রোববার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬   ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ সমৃদ্ধ দেশ গড়তে সুস্থ যুব সমাজের বিকল্প নেই : প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ ডাকঘর সঞ্চয়ের সুদহার পুনর্বিবেচনা করা হবে : অর্থমন্ত্রী মুঠোফোন প্রতারক জিনের বাদশা গ্রেফতার করোনাভাইরাস নিয়ে গুজবে কান দিবেন না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
৫০

অফিসেও হাসিখুশি থাকুন এভাবে

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

টানা আট-নয় ঘণ্টা কাজের ভেতর থাকতে হয় অফিসে। এটি মোটেও কম সময় নয়। অফিসের কারণে নানা রকম মানসিক চাপ ও স্ট্রেস তৈরি হয় বলেও অভিযোগ অনেকের। কাজের চাপ, সহকর্মীর ঈর্ষা, বসের ঝাড়ি- সব ঠান্যা মাথায় সামলে চলা বেশ কঠিন। কিন্তু অফিসের পরিবেশ নিজের অনুকূলে রাখলে কাজগুলো আর কঠিন মনে হবে না। অফিসেও হাসিখুশি থাকুন। কীভাবে? জেনে নিন-

যেকোনো কাজের ক্ষেত্রে ইতিবাচক মনোভাব থাক জরুরি। অফিসেও তাই ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে কাজ শুরু করুন। মাথায় রাখবেন প্রতিটি দিনই আপনার কাছে কর্মদক্ষতা প্রমাণ করার একেকটি সুযোগ। তাই ধরাবাঁধা নিয়মের বাইরে ভিন্ন কিছু ভাবার চেষ্টা করুন। কাজের প্রতি শতভাগ ভালোবাসা রাখুন।

অফিসে সহজে কারো সঙ্গে বন্ধুত্ব হয় না এটা অনেকেই বলে থাকেন। কিন্তু কাজ করতে গেলে সবার সঙ্গে মিলেমিলে থাকাই ভালো। এক্ষেত্রে অতিরিক্ত বন্ধুত্ব করা দরকার নেই, তবে কাজের পরিবেশটা ভালো রাখার চেষ্টা করুন।

অনেক সময় কাজ করতে করতে একঘেয়ে লাগতেই পারে। তাই সময়টুকু যাতে একঘেয়ে না লাগে সেটুকু কথা বলুন আপনার সহকর্মীদের সঙ্গে। এতে কাজের পরিবেশ সহজ হবে। মনও খুশি থাকবে।

নিজের ডেস্ক মনের মতো করে সাজিয়ে-গুছিয়ে রাখুন। অফিস বলেই যে শুধু অফিস সংক্রান্ত জিনিসপত্র থাকবে, তা কিন্তু নয়। প্রিয়জনের ছবি, নিজের তৈরি বিশেষ কোনো ক্রাফট বা কোনো অর্জনের ক্রেস্ট রাখতে পারেন নিজের ডেস্কে। বাড়ি থেকে আসার পরেও মনে হবে বাড়িতেই আছেন।

গবেষণা জানা গেছে, আশেপাশে যদি গাছ থাকে তাহলে মন ভালো হয়ে যায়। তাই কিছু প্ল্যান্টের ব্যবস্থা করে ফেলুন। দেখবেন আপনার কাজের পরিমাণ বেড়েছে, উন্নত হয়েছে কাজের মানও।

একটানা অনেকক্ষণ কাজ করবেন না। তাতে কাজের প্রতি বিরক্তি আসতে পারে। কাজের মাঝে ছোট বিরতি নিন। একটু ঘুরে আসুন, চাইলে অল্পক্ষণ গান শুনে নিন, দু-একজনের সঙ্গে কথা বলুন। তারপর আবার কাজে লেগে পড়ুন।