• শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭

  • || ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
একদিনে সর্বোচ্চ আড়াই হাজার শনাক্ত, মৃত্যু ২৩ জনের বিকেল ৪টার মধ্যে বন্ধ করতে হবে দোকান-শপিংমল দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ১৫ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৩১ মে থেকে গণপরিবহন চালুর সিদ্ধান্ত দেশে একদিনে নতুন শনাক্ত ১৫৪১, মৃত্যু ২২ জীবন বাঁচাতে জীবিকাও সচল রাখতে হবে: কাদের ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৮৭৩ জন শনাক্ত, মৃত্যু আরও ২০ জনের মমতাকে সহমর্মিতা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফোন মোংলা ও পায়রা বন্দরে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত মহাবিপদ সংকেত জারি সকালে, রাতের মধ্যে আসতে হবে আশ্রয় কেন্দ্রে ২ লাখ ৫ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন বাজেট অনুমোদন আম্পানের আঘাতে ১০ ফুটের অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা আরও ১২৫১ করোনা রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ২১ জনের আরও ৭ হাজার কওমি মাদ্রাসাকে প্রধানমন্ত্রীর অর্থ সহায়তা পায়রা-মংলায় ৭, চট্টগ্রাম-কক্সবাজারে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেশে একদিনে আক্রান্ত ও মৃত্যুর নতুন রেকর্ড সমুদ্রসীমায় অবৈধ মৎস্য আহরণ বন্ধ করতে হবে: প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী পাঁচ হাজার টেকনোলজিস্ট নিয়োগের ঘোষণা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর করোনা সংক্রমণে বাংলাদেশ কিছুটা ভালো অবস্থানে আছে: কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১৪ মৃত্যু, শনাক্ত ১২৭৩
৮৪

উত্তর-দক্ষিণ ২৪ পরগনা ধ্বংস হয়ে গেছে: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২১ মে ২০২০  

বাড়িঘর, নদী বাঁধ ভেঙে ও ক্ষেত ভেসে গিয়ে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর-দক্ষিণ ২৪ পরগনা ধ্বংস হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুই ২৪ পরগনার বাড়িঘর, নদী বাঁধ ভেঙে গেছে। ভেসে গিয়েছে সব ধরণের ক্ষেত। অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’র  তাণ্ডবে রাজ্যে এখনো ১০ থেকে ১২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন মূখ্যমন্ত্রী মমতা।

বুধবার রাত ৯টায় নবান্নে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এসব মন্তব্য ও তথ্য জানান মুখ্যমন্ত্রী। বক্তব্যের সময় তিনি বারবার ‘রাজ্যের সর্বনাশ হয়ে গেল' বলে উচ্চারণ করছিলেন।

সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সুন্দরবনে আছড়ে পড়ার পর দক্ষিণে তাণ্ডব চালিয়ে উত্তর ২৪ পরগনায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে প্রবল ঘূর্ণিঝড়টি। সারাদিনই নবান্নের কন্ট্রোল রুম থেকে ঝড়ের গতিপ্রকৃতির খোঁজ নিচ্ছেন মমতা। 

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বলেন, পাথরপ্রতিমা, নামখানা, বাসন্তী, কুলতলি, বারুইপুর, সোনারপুর, ভাঙড় থেকে আসা খবরগুলো ভয়াবহ। উত্তর ২৪ পরগনা থেকেও খারাপ খবর আসছে। 

তিনি আরো বলেন, দক্ষিণবঙ্গের প্রায় ৯৯ শতাংশ শেষ হয়ে গেছে। বিদ্যুৎ নেই, পানি নেই, পুকুর, চাষের জমি সব শেষ। এ ডিজাস্টারে আমরা শকড। আমরা খুবই স্তম্ভিত, খুব খারাপ লাগছে।

মূখ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ক্ষতির পরিমাণ এখনি বলা যাচ্ছে না। গোটা ধ্বংসের চিত্র বুঝতে ১০ থেকে ১২ দিন লাগবে। একদিনে ক্ষতির হিসাবের কোনো কিনারা পাওয়া যাবে না।

কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে মমতা বলেন, ডিজাস্টারটি পলিটিক্যালি না দেখে মানবিকভাবে দেখুন। ধ্বংসের হাত থেকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যেতে আবারো সবাইকে একসঙ্গে নিয়ে কাজ করার অঙ্গীকার করছি।

আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর