• মঙ্গলবার   ১৮ মে ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৪ ১৪২৮

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
চোখ বন্ধ করে বিদেশি পরামর্শক নিয়োগ নয়: প্রধানমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় ৩০ জনের মৃত্যু ৪২তম বিসিএসের মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত রাজধানীতে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার ৩ দিনের রিমান্ডে মামুনুল দুর্নীতি করলে ব্যাংক কর্মকর্তাদের জরিমানা, হবে ফৌজদারি মামলা ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় ৩২ জনের মৃত্যু শেখ হাসিনা বাংলাদেশের উন্নয়নের কান্ডারি : সেতুমন্ত্রী ইতিহাস আর কেউ কোনো দিন বিকৃত করতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী আরও তিনদিনের রিমান্ডে মামুনুল হক ২৪ ঘণ্টা করোনায় আরও ৪০ মৃত্যু, আক্রান্ত ১১৪০ আল-আকসা মসজিদে হামলায় প্রধানমন্ত্রীর নিন্দা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ব্যাপারে সরকার আন্তরিক: হানিফ ড. ওয়াজেদ মিয়া দেশে আণবিক গবেষণার পথিকৃৎ: রাষ্ট্রপতি লাইলাতুল কদর এক মহিমান্বিত রজনী: প্রধানমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দেশে ৪৫ মৃত্যু খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেয়ার প্রয়োজন নেই : হানিফ তাণ্ডবকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনলাইনে পরীক্ষা নিতে পারবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আজই ফিরছেন সাকিব-মুস্তাফিজ

উল্টো করেই বিশ্বকে দেখছেন ৪৪ বছর!

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৩ মে ২০২১  

ব্রাজিলের পূর্বাঞ্চলীয় বাহিয়া রাজ্যের বাসিন্দা ক্লাউডিওর। জন্ম থেকেই স্বাভাবিক মানুষের মতো নন তিনি। মাথা থাকলেও সেটা জন্মগত এক ত্রুটির কারণে উল্টো হয়। এভাবেই চলছে ৪৪ বছর ধরে বেঁচে থাকার সংগ্রাম।

ক্লাউডিও ভেইরা ডি অলিভেইরা আর্থ্রোগ্রিপোসিস মাল্টিপ্লেক্স কনজেনিটাল ব্যাধিতে ভুগছেন। ফলে তার পায়ের পেশীতে পুষ্টির অভাব দেখা দেয়। হাত দু’টি বুকের এবং মাথা উল্টোভাবে পিঠের সঙ্গে লেগে রয়েছে। এমন অস্বাভাবিক শিশুর বেঁচে থাকার আশা চিকিৎসকের সঙ্গে পরিবারও। চিকিৎকরা জানিয়েছিলেন যে ২৪ ঘণ্টার বেশি বেঁচে থাকার আশা নেই। উত্তর-পূর্ব ব্রাজিলের রাজ্য বাহিয়া থেকে ক্লাউডিও ভেইরা ডি অলিভেইরা জন্মগ্রহণ করেছিলেন আর্থ্রোগ্রিপোসিস মাল্টিপ্লেক্স কনজেনাইটা নামক একটি বিরল রোগ নিয়ে।

 

জন্ম থেকেই ক্লাউডিও এই রোগে আক্রান্ত

জন্ম থেকেই ক্লাউডিও এই রোগে আক্রান্ত

তবে সবাইকে অবাক করে দিয়ে ক্লাউডিওর বেঁচে যান। অন্য শিশুদের মতোই বড় হতে থাকেন তিনি। জগৎকে তিনি উল্টোভাবে দেখেন। জীবনের অনেক কিছু থেকে বঞ্চিত থেকেছেন ঠিকই, কিন্তু জীবনের প্রতি পদে বাঁচার রসদ খুঁজে নিয়েছেন তিনি। এত প্রতিকূলতার মাঝেও দমে যাননি ক্লাউডিও। আর দশটা মানুষের মতো শিশুকাল থেকেই মায়ের কাছে লেখাপড়া শিখেছেন। নিজের পছন্দ মতো সব কাজ করেন তিনি।

নিজের এই অবস্থাকে অন্যের কাছে অনুপ্রেরণা হিসেবে তুলে ধরতে চান ক্লাউডিও। এজন্য তিনি একটি ডিভিডি তৈরি করেছেন। পাশাপাশি নিজের আত্মজীবনীও লিখেছেন। এখানেই শেষ নয়, ২০০০ সাল থেকে তিনি মোটিভেশনাল স্পিকার হিসেবে বিভিন্ন সেমিনারে বক্তব্য রাখেন। 

 

নিজের আত্মজীবনীও লিখেছেন ক্লাউডিও

নিজের আত্মজীবনীও লিখেছেন ক্লাউডিও

ক্লাউডিওর নিঃশ্বাস নিতে, দেখতে, খেতে এবং জলপান করতে কোনো সমস্যা হয় না। পাশাপাশি তিনি প্রেরণামূলক বার্তা দিয়ে নানা ভিডিও করেন। তিনি কখনো তার জীবনে কোনো অসুবিধা আছে এটা মনে করেননি। তিনি নিজের জীবন আর ৫টা সাধারণ জীবনের মতোই মনে করেছেন। 

মহামারিতে থেকে নেই ক্লাউডিওর কাজ, এখন অন্যদের সতর্ক করতে বানাচ্ছে ভিডিও বার্তা। নিজের বিভিন্ন অভিজ্ঞতা শেয়ারের পাশাপাশি নানান সতর্কবার্তাও দিচ্ছেন। ক্লাউডিও নিজের জীবনকে উপভোগ করেন। তার কাছে বেঁচে থাকাটাও এক প্রকার আনন্দ। সেখানে আপনি নিজে কতখানি অর্জন করলেন এবং মানুষের জন্য করে গেলেন সেটার হিসেব কষাও প্রয়োজন।