• বৃহস্পতিবার   ২৪ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ১০ ১৪২৮

  • || ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
জনগণের ভাগ্য নিয়ে যেন কেউ না খেলে: প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে ফের বিশ্ব নেতাদের সহযোগিতা কামনা আজ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ২৪ জুন শর্তসাপেক্ষে কক্সবাজারে খুলছে হোটেল পরিকল্পিতভাবেই এগোচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী আগামী মাস থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা ২০ হাজার টাকা: মন্ত্রী মঙ্গলবার থেকে সাত জেলায় লকডাউন, বন্ধ গণপরিবহন সেনাবাহিনীর অপারেশনাল সক্ষমতা বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী একসঙ্গে ঘর পেল ৫৩ হাজার অসহায় পরিবার, বিশ্বে নজিরবিহীন বিশ্ব শান্তি সূচকে সাত ধাপ এগোলো বাংলাদেশ ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনে অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলেন রাষ্ট্রপতি বিধিনিষেধ বাড়লো আরো এক মাস দেশের উন্নয়নে যেন কোনোভাবেই সুন্দরবন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় রাষ্ট্রপতি কাজাখ রাজধানীতে ওআইসি সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যোগ দিবেন এসএসএফের দক্ষতা বৃদ্ধিতে সুযোগ সৃষ্টি করে দিচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী একটা করে বনজ, ফলজ ও ভেষজ গাছ লাগান: প্রধানমন্ত্রী করোনায় কোনো রকম রিস্ক না নিতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী এয়ার মার্শাল র‌্যাঙ্ক ব্যাজ পরলেন নতুন বিমানবাহিনী প্রধান স্কুল-কলেজে ছুটি আবার বাড়ল গণতন্ত্রের মুক্তি দিবস ১১ জুন

এবার পেছাচ্ছে ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষা

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১০ জুন ২০২১  

এবারই প্রথম গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে দেশের ৯টি সাধারণ ও ১১ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। ভর্তি পরীক্ষা ১৯ জুন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও তা আর হচ্ছে না। তবে কবে এই ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে এ নিয়েও বলা যাচ্ছে না। 

তবে ভর্তি পরীক্ষা না পিছিয়ে উপায় নেই বলছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ফরিদ উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে চলমান বিধিনিষেধের উপর নির্ভর করছে সবকিছু। এখন যদি ১৬ জুন পর্যন্ত বিধিনিষেধ থাকে, তাহলে প্রাথমিক আবেদন করতে ২৬ জুন পর্যন্ত চলে যাবে। তারপর আবার চূড়ান্ত আবেদন। এসব করতে সময় লাগবে। এই অবস্থায় পরীক্ষার তারিখও ঘোষণা করা যাচ্ছে না। আগামী শুক্রবার সভা করে পরীক্ষা স্থগিতের কথা জানিয়ে দেয়া হবে। 

গত শিক্ষাবর্ষে সাতটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও কৃষির প্রাধান্য থাকা বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু করেছিল। গুচ্ছভিত্তিক পরীক্ষার মাধ্যমে একজন ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থী নিজ নিজ বিভাগে একটি পরীক্ষা দিয়েই যোগ্যতা ও আসন অনুযায়ী যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাবেন।

আগের তারিখ অনুযায়ী, ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩ জুন বিজ্ঞান, ১৯ জুন মানবিক ও ২৬ জুন বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন হবে উচ্চমাধ্যমিকের পাঠ্যসূচির ভিত্তিতে। 

সাধারণ ও বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ২০ বিশ্ববিদ্যালয়    
১. ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (কুষ্টিয়া)    
২. খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়    
৩. বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়    
৪. জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়    
৫. কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়    
৬. জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়    
৭. বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়    
৮. শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়    
৯. রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়    ০৬ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
১০.শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়    
১১.পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়    
১২. হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়    
১৩.মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়    
১৪.নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়    
১৫.যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়    
১৬.পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১৭. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১৮. রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়  
১৯. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি 
২০. বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

বর্তমানে দেশে ৪৯টি সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এর মধ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয় ও চারটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে সরাসরি শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয় না। বাকি ৩৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ে সরাসরি ভর্তি পরীক্ষা করা হয়। এগুলোতে ৬০ হাজারের কিছু বেশি আসন আছে।