• বুধবার   ০৩ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৯ ১৪২৭

  • || ১১ শাওয়াল ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
হাসপাতাল থেকে রোগী ফেরানো শাস্তিযোগ্য অপরাধ: তথ্যমন্ত্রী যেকোনো প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলা করে এগিয়ে যেতে পারব: প্রধানমন্ত্রী সময় যত কঠিনই হোক দুর্নীতি ঘটলেই আইনি ব্যবস্থা: দুদক চেয়ারম্যান জেলা হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ ইউনিট স্থাপনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর করোনা বিশ্ব বদলে দিলেও বিএনপিকে বদলাতে পারেনি: কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ মৃত্যু, শনাক্ত ২৯১১ সীমিত আকারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার নির্দেশনা খাদ্য উৎপাদন আরও বাড়াতে সব ধরনের প্রচেষ্টা চলছে: কৃষিমন্ত্রী সারা দেশকে লাল, সবুজ ও হলুদ জোনে ভাগ করা হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২৩৮১ জনের করোনা শনাক্ত পুরোপুরি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চলছে: রেলমন্ত্রী দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫৪৫ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৪০ জন বাস ভাড়া যৌক্তিক সমন্বয়, প্রজ্ঞাপন আজই: ওবায়দুল কাদের এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবো না: প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে এসএসসির ফল প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল ১২টার পরিবর্তে ১১টায় প্রকাশ হবে এসএসসির ফল করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৭৬৪ পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কি.মি. দৃশ্যমান, বসল ৩০তম স্প্যান পদ্মা সেতুর ৩০তম স্প্যান বসছে আজ একদিনে সর্বোচ্চ আড়াই হাজার শনাক্ত, মৃত্যু ২৩ জনের
১৯৮১

কেজিতে ২০ টাকা কমলো পেঁয়াজের দাম

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০২০  

নতুন পেঁয়াজের সরবরাহ বেড়ে যাওয়ায় এবং ভারত রপ্তানি বন্ধের আদেশ তুলে নেয়ায় কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। গত সপ্তাহের তুলনায় দাম আরো কমে বর্তমানে দেশি পেঁয়াজের কেজি খুচরা পর্যায়ে বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকায়। যা এক সপ্তাহ আগেও ছিল ৬০ টাকা।

শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার, শান্তিনগর, মালিবাগ ও হাতিরপুলসহ কয়েকটি বাজার ঘুরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

তবে পাড়া-মহল্লার ভেতরে ছোট ছোট বাজার এবং দোকানে এই দামের চেয়ে কিছুটা বেশি দামে বিক্রি হতে দেখা গেছে। এসব স্থানে পেঁয়াজের কেজি ৫০ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

ব্যবসায়ীরা জানান, আগামী ১৫ মার্চ ভারত থেকে পেঁয়াজ আসা শুরু হবে। তখন দাম আরও কমে যাবে। এছাড়া দেশি পেঁয়াজ বাজারে উঠতে শুরু করেছে। এর প্রভাবও পড়বে বাজারে।

বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, ভালো মানের দেশি পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫৫ টাকা (এগুলোর মধ্যে রয়েছে দেশি পুরোনো পেঁয়াজ ও মিয়ানমারের ভাল মানের পেঁয়াজ)। আর মোটামুটি ভালো মানের দেশি পেঁয়াজ (নতুন পেঁয়াজ) বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকার মধ্যে। এক সপ্তাহ আগে ভালো মানের দেশি পেঁয়াজের কেজি ছিল ৭০ থেকে ৮০ টাকা। আর চলতি মাসের শুরুতে বিক্রি হয়েছিল ১০০ থেকে ১২০ টাকায়।

আমদানি করা পেঁয়াজের দামও কমেছে। তবে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম তুলনামূলক দেশি পেঁয়াজের থেকে বেশি। ভালো মানের আমদানি করা পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৬৫ টাকা। আর বড় পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা (মিশরীয় ও চায়না)।

বাজারে পেঁয়াজের পাশাপাশি রসুনের দামও কমেছে। সপ্তাহের ব্যবধানে আমদানি করা রসুনের দাম কেজিতে কমেছে ২০ টাকা পর্যন্ত। গত সপ্তাহে আমদানি করা রসুন ১৭০ থেকে ১৮০ টাকা কেজি বিক্রি হয়েছিল, যা এখন বিক্রি হচ্ছে ১৫০ থেকে ১৬০ টাকায়। আর দেশি রসুনের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ৮০ থেকে ৯০ টাকা।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে শেষ সপ্তাহে ভারত রপ্তানি বন্ধ করলে বাংলাদেশে হু হু করে দাম বেড়ে পেঁয়াজের। ধাপে ধাপে দাম বেড়ে কেজি ২৫০ টাকা গিয়ে ঠেকে। এরপর সরকারের নানামুখী তৎপরতায় পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমলেও তা আর ১শ টাকার নিচে নামেনি। দীর্ঘ ৫ মাসেরও বেশি সময় মসলা জাতীয় এই পণ্যটির দাম ছিল ১শ টাকার ওপরে।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে রপ্তানি বন্ধের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় ভারত, যা কার্যকর হবে আগামী ১৫ মার্চ থেকে। ভারতের এই ঘোষণার পর ধীরে ধীরে কমতে থাকে পেঁয়াজের দাম। চলতি মাসেই ভালো মানের দেশি পেঁয়াজের দাম কমেছে প্রায় ৮০ টাকা।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর