• মঙ্গলবার   ২০ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ৬ ১৪২৮

  • || ০৬ রমজান ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
করোনায় দেশে ১১২ জনের মৃত্যু হেফাজত নেতা মামুনুল ৭ দিনের রিমান্ডে করোনায় দেশে ১০২ জনের মৃত্যু লকডাউনে ১ কোটি ২৫ লাখ পরিবার পাবে খাদ্য সহায়তা: কাদের হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক গ্রেফতার করোনায় দেশে আজও শতাধিক মৃত্যু হেফাজত নেতা জুবায়ের পাঁচদিনের রিমান্ডে হেফাজত নেতা মাওলানা জালাল গ্রেফতার দেশে করোনায় মৃত্যু ১০ হাজার ছাড়াল সরবরাহ কম থাকায় চালের দাম বেশি : অর্থমন্ত্রী উদোর পিন্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপানোর অপচেষ্টা করেছে বিএনপি: কাদের একদিনে করোনায় ৬৯ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬০২৮ নারায়ণগঞ্জে সহিংসতার ঘটনায় জামায়াত নেতা গ্রেফতার অবকাঠামো নির্মাণকাজ লকডাউনের আওতামুক্ত থাকবে: কাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলমান উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রাখুন: তাজুল ইসলাম করোনায় একদিনে রেকর্ড ৮৩ জনের মৃত্যু হামলাকারীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে: রেলমন্ত্রী বিশ্বে শান্তি নিশ্চিত করাটাই চ্যালেঞ্জ: প্রধানমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় বরিশালে করোনা শনাক্ত ১১৫ বাজেটে স্বাস্থ্য ও কৃষি খাত গুরুত্ব পাবে: অর্থমন্ত্রী

খালি পেটে গ্রিন টি পানের অপকারিতা

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৮ মার্চ ২০২১  

শরীর ও মনকে চাঙা রাখতে চায়ের জুড়ি নেই। তা সে যেকোনো স্বাদের চা-ই হোক না কেন। তবে পছন্দের ভিন্নতায় একেক জনের স্বাদ একেক রকম হয়ে থাকে। যেমন- দুধ চা, রঙ চা, মশলা চা ইত্যাদি। কিন্তু যারা স্বাস্থ্য সচেতন মানুষ তাদের কাছে গ্রিন টির প্রাধান্য সবচেয়ে বেশি। কারণ গ্রিন টি ওজন কমাতে সহায়তা করে।

গ্রিন টিতে রয়েছে অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট, ভিটামিন এ, বি, বি৫, ডি, ই, সি, ই, এইচ সেলেনিয়াম, ক্রোমিয়াম, জিংক, ম্যাঙ্গানিজ ও সামান্য ক্যাফেইন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, এটি রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এমনকি ক্যান্সার প্রতিরোধেও এটি সহায়ক। এছাড়া উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস ইত্যাদি নিয়ন্ত্রণে গ্রিন টি সাহায্য করে।

এক কাপ কফির থেকে এক কাপ গ্রিন টি পান করা বেশি স্বাস্থ্যকর। ২৩০ মিলিগ্রাম গ্রিন টিতে ২০ থেকে ৪৫ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন রয়েছে যা সাধারণ চা বা কফির তুলনায় কম।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, যেহেতু গ্রিন টি অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ভরপুর তাই দিনে ২-৩ কাপ গ্রিন টি খাওয়া যেতে পারে। তবে তার বেশি খাওয়া উচিত নয়। কারণ অতিরিক্ত গ্রিন টি খেলে যে টক্সিন নির্গত হয় তা সরাসরি লিভারে গিয়ে জমা হয়। যেখান থেকে পরবর্তীতে লিভার ড্যামেজের মতো সমস্যা হতে পারে।

অন্যদিকে, খালি পেটে গ্রিন টি পান করলে শরীরে নেতিবাচক প্রভাবও পড়তে পারে। গ্রিন টিতে ট্যানিন রয়েছে, যা পেটে অ্যাসিড বাড়িয়ে তুলতে পারে। ফলে পেট ব্যথা হয়ে থাকে। এছাড়াও খালি পেটে গ্রিন টি খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য এবং বমিভাব হতে পারে। চলুন জেনে নেয়া যাক খালি পেটে গ্রিন টি পানের অন্যান্য অপকারিতাগুলো-

>> খালি পেটে গ্রিন টি পান করলে তা সরাসরি রক্তকে প্রভাবিত করে। এতে রক্ত জমাট বাঁধায় কাজ করে যেসব প্রোটিন, সেগুলোর পরিমাণ কমতে থাকে। ফলে রক্ত পাতলা হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা বাড়ে।

>> গ্রিন টি পরোক্ষভাবে ওজন কমাতে সাহায্য করে। তবে যদি ব্যায়াম না করে গ্রিন টি পান করা হয়, এটি তেমন ভালো কাজে দেয় না। ব্যায়াম এবং গ্রিন টি পান একসঙ্গে চালিয়ে গেলে ওজন কমবে দ্রুত।

>> খাওয়ার পর এবং ঘুমাতে যাওয়ার আগে গ্রিন টি শরীরে উল্টো ক্ষতি ডেকে আনে। আর এ কারণেই সকালে নাস্তার পর কিংবা বিকেলেই গ্রিন টি পান করা উচিত।

>> গ্রিন টি হজমপ্রক্রিয়াকে বাড়িয়ে শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমিয়ে ফেলতে সাহায্য করে। তবে পেপটিক আলসার বা অ্যাসিড রিফ্লাক্সে আক্রান্ত রোগীদের খালি পেটে গ্রিন টি পান করা উচিত নয়।

>> শরীরে আয়রনের পরিমাণও কমিয়ে দেয় গ্রিন টি। এজন্য রক্তাল্পতায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের উচিত গ্রিন টি পান না করা।