রোববার   ০৫ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ২১ ১৪২৬   ১১ শা'বান ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসা না দিলেই ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আজ থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান করোনায় খাদ্য ঘাটতি হবে না : কৃষিমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখ‌ছেন প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ৬৪ জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কনফারেন্স পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ ভোলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নৌ-বাহিনীর টহল পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী
৬০

গুজব ছড়িয়ে আটক চাঁদপুরের ব্যবসায়ী

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৩ মার্চ ২০২০  

করোনাভাইরাস নিয়ে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে চাঁদপুরে খাজা মোহাম্মদ মাকসুদ (৩৯) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি ফেসবুক,ইউটিউবসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ও আতঙ্ক ছড়ান বলে পুলিশ দাবি করেছে। আটক এ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আগেই রাষ্ট্রদ্রোহ ও বিস্ফোরক আইনে মামলা রয়েছে।

সূত্র জানায়, চাঁদপুরে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা সোমবার বিকেলে এক অভিযান চালিয়ে শহরে বাসস্ট্যান্ড এলাকার ফয়সাল শপিং কমপ্লেক্স থেকে আটক করে খাজা মোহাম্মদ মাকসুদ নামের ব্যক্তিকে। চাঁদপুর  জেলার পুলিশ সুপার মো. মাহবুবুর রহমানের নির্দেশে এসআই রেজাউল করিমের নেতৃত্বে পুলিশ টিম তাকে আটক করে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছে। আটক মাকসুদ গত ২১ মার্চ চট্টগ্রামের চিকিৎসক ইফতেখার আদনান ইউটিউব ও ফেসবুকে যে মিথ্যা তথ্য প্রচার করেছিলেন তা শেয়ার দিয়ে গুজব ছড়িয়ে দিতে সহায়তা করেন।

চাঁদপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নূর হোসেন মামুন জানান, খাজা মোহাম্মদ মাকসুদ সদর উপজেলার গাছতলা এলাকার মাওলানা খাজা ওয়ালীউল্লাহর ছেলে । তিনি চাঁদপুর শহরে সাইমন ডিজিটাল হাউজ এন্ড অফসেট প্রেসের মালিক। মাকসুদের বিরুদ্ধে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ ও বিস্ফোরক আইনে চারটি মামলা বিচারাধীন।

এই বিভাগের আরো খবর