• সোমবার   ০৬ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৩ ১৪২৬

  • || ১২ শা'বান ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নীতিমালা করার নির্দেশ রমজানে সরকারি অফিস ৯টা থেকে সাড়ে ৩টা প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়ন হলে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবে: অর্থমন্ত্রী করোনা: ৭৩ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসা না দিলেই ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আজ থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান করোনায় খাদ্য ঘাটতি হবে না : কৃষিমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখ‌ছেন প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ৬৪ জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কনফারেন্স পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার
২৮৭

চলন্ত ট্যাক্সি থেকে ছুঁড়ে ফেলা হল ৮ মাসের শিশু, বাঁচাল পুলিশ

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

চট্টগ্রামের খুলশী এলাকায় চলন্ত সিএনজি ট্যাক্সি থেকে ছুঁড়ে ফেলা হয়েছে ৮ মাসের এক শিশুকে। হত্যার জন্যই শিশুটিকে ছুঁড়ে ফেলা হয়েছে বলে ধারণা পুলিশের। দুপুরের এ ঘটনার পর পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে মেডিকেলে ভর্তি করেছে।

পুলিশ জানায়, দুপুর ১টার দিকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশে খুলশী থানার পলিট্যাকনিক্যাল এলাকায় মডেল স্কুলে এসএসসি পরীক্ষাকেন্দ্রের বাইরে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব পালন করছিলেন এএসআই হিরণ মিয়া। হিরণ হঠাৎ দেখতে পান দ্রুতগামী একটি সিএনজিচালিত ট্যাক্সির ভেতর থেকে ছোট বস্তু সদৃশ কিছু একটা ফেলে দিয়ে সিএনজি ট্যাক্সিটি চলে যাচ্ছে। সাথে সাথে হিরণ ঘটনাস্থলে এগিয়ে যায় এবং সেখান থেকে অনুমান ৭-৮ মাসের একটি বাচ্চা মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করেন।

বাচ্চাটিকে সুচিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নিয়ে যায় এবং উত্তর বিভাগের পক্ষ থেকে বাচ্চাটির চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হলে ধীরে ধীরে সে সুস্থ হয়ে ওঠে। বর্তমানে সে হাসপাতালে ৮নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে খুলশী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রণব চৌধুরী জানান, অটোরিকশার ভেতরে কারা ছিল, সেটা এএসআই হিরণ সঠিকভাবে দেখতে পাননি। শিশুটি মারা যাবে ভেবে কবরস্থানের পাশে ফেলে যাওয়া হয়েছে, যাতে মৃত্যুর পর বেওয়ারিশ হিসেবে ধরে দাফন করে ফেলতে পারে। একটি শিশুর সঙ্গে এমন নির্মম আচরণ কল্পনাও করা যায় না বলে তিনি মন্তব্য করেন।

চিকিৎসকের উদ্বৃতি দিয়ে তিনি আরো জানান, শিশুটি পানিশূন্যতা ও অপুষ্টিতে ভুগছে। তাকে স্যালাইন দেওয়া হয়েছে। তবে বাঁচানো যাবে বলে ডাক্তাররা আশ্বাস দিয়েছেন। শিশুটি সুস্থ হওয়া পর্যন্ত পুলিশ তত্ত্বাবধানে রাখবে। এর মধ্যে পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা হবে। পরিচয় না পেলে আদালতের শরণাপন্ন হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনাস্থলে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরায় সংরক্ষিত ফুটেজ থেকে অটোরিকশাটির গন্তব্য অনুসন্ধানের চেষ্টা চলছে বলেও জানিয়েছেন খুলশী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রণব চৌধুরী।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর