• মঙ্গলবার   ১৮ মে ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৪ ১৪২৮

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
রাজধানীতে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার ৩ দিনের রিমান্ডে মামুনুল দুর্নীতি করলে ব্যাংক কর্মকর্তাদের জরিমানা, হবে ফৌজদারি মামলা ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় ৩২ জনের মৃত্যু শেখ হাসিনা বাংলাদেশের উন্নয়নের কান্ডারি : সেতুমন্ত্রী ইতিহাস আর কেউ কোনো দিন বিকৃত করতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী আরও তিনদিনের রিমান্ডে মামুনুল হক ২৪ ঘণ্টা করোনায় আরও ৪০ মৃত্যু, আক্রান্ত ১১৪০ আল-আকসা মসজিদে হামলায় প্রধানমন্ত্রীর নিন্দা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ব্যাপারে সরকার আন্তরিক: হানিফ ড. ওয়াজেদ মিয়া দেশে আণবিক গবেষণার পথিকৃৎ: রাষ্ট্রপতি লাইলাতুল কদর এক মহিমান্বিত রজনী: প্রধানমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দেশে ৪৫ মৃত্যু খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেয়ার প্রয়োজন নেই : হানিফ তাণ্ডবকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনলাইনে পরীক্ষা নিতে পারবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আজই ফিরছেন সাকিব-মুস্তাফিজ খালেদা জিয়ার আবেদন পেয়েছি, দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে: আইনমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ২০ মিলিয়ন টিকা চেয়েছে বাংলাদেশ: আব্দুল মোমেন গ্রামে বাড়ি নির্মাণে ইউনিয়ন পরিষদের অনুমতি লাগবে: তাজুল

চুক্তিভিত্তিক বিয়ের বৈধতা নেই: হক্কানী আলেম সমাজ

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০২১  

দেশে চুক্তিভিত্তিক বিয়ের কোনো বৈধতা নেই। তাই হেফাজত নেতা মামুনুল হক ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে তার অনৈতিক কর্মকাণ্ড বৈধ করার যে চেষ্টা চালাচ্ছেন তা দেশের আলেম সমাজ মেনে নেবে না।

বুধবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে হাক্কানী আলেম সমাজ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পীর মুফতী এহসানুল হক আল মোজ্জাদ্দেদী।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়েছে, ‘পবিত্র ইসলাম ধর্মকে হেফাজত ইসলাম নামের সংগঠনটি যেভাবে কলঙ্কিত করে আসছে তাতে আলেম সমাজ লজ্জিত ও হতভম্ভ। গত ২৫ থেকে ২৮ মার্চ হেফাজতে ইসলামের সদস্যরা সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে জ্বালাও-পোড়াওয়ের মাধ্যমে যে ক্ষতি করেছে তা ইসলাম সমর্থ করে না।’

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে, ‘সম্প্রতি হেফাজতের এক নেতা অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয়ে পড়েন, তা অত্যন্ত লজ্জাজনক। দেশে চুক্তিভিত্তিক বিয়ের কোনো বৈধতা নেই। তাই মামুনুল হক অপব্যাখ্যা দিয়ে তার অনৈতিক কর্মকাণ্ড বৈধ করার চেষ্টা চালাচ্ছেন। সেটি দেশের আলেমরা মেনে নেবে না।’

লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, ‘সম্প্রতি বিভিন্ন কওমি মাদরাসার ছাত্রদের বলৎকারের চিত্র যেভাবে প্রকাশ পাচ্ছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয় ও জঘন্যতম অপরাধ। হেফাজতের অনেক নেতা ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে ধর্মকে কলঙ্কিত করছে, তাদের চিহ্নিত করে বিচারের দাবি আওতায় আনা হোক।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে সংগঠনের সভাপতি ড. কাফিলদ্দিন সরকার সালেহী বলেন, ‘২০১০ সালে অরাজনৈতিক দল হিসেবে হেফাজতে ইসলাম প্রতিষ্ঠা হয়। ইমান, আলেম ও দ্বীনকে প্রতিষ্ঠা করা ছিল তাদের মূল উদ্দেশ্য। সেখান থেকে বিচ্যুত হয়ে তারা ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত হয়ে পড়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমান করোনা মহামারিতে চলমান লকডাউন পরিস্থিতিতে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হলেও কওমি মাদরাসা খোলা রাখা হয়। যেকোনো মুহূর্তে কওমি শিক্ষার্থীদের মাঠে নামিয়ে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি করা ছিল তাদের প্রধান লক্ষ্য।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ড. আবদুল মোমেন সিরাজী, ক্বারী হাফিজুল হক, লোকমান সাইফুল, মুফতী ফয়জুল্লাহ (ঢাকা সেন্ট্রাল জেল ইমাম), মাওলানা মঈনউদ্দিন ফারুকী প্রমুখ।