• শুক্রবার   ০৫ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২০ ১৪২৭

  • || ২১ রজব ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
করোনার টিকা নিলেন প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়নে গবেষণা ও বিজ্ঞানের বিবর্তন অপরিহার্য: প্রধানমন্ত্রী সীমান্তে হত্যাকাণ্ড দুঃখজনক: জয়শঙ্কর ২৪ ঘণ্টায় আরও সাতজনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬১৯ বিএনপি এখন মায়াকান্না করছে: কাদের ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৬১৪ সুন্দরবনে বিষ দিয়ে মাছ ধরা বন্ধ করতে হবে: বনমন্ত্রী ৪ কোটি ডোজ করোনার টিকা সংগ্রহ করা হবে: জাহিদ মালেক ১০ বছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে শীর্ষে বাংলাদেশ: অর্থমন্ত্রী মানুষকে খাদ্য সরবরাহ-সময়মতো ভ্যাকসিন দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৭, শনাক্ত ৫১৫ মুক্তিযুদ্ধকে অসম্মান করেছে বিএনপি: সেতুমন্ত্রী ঢাবির ১২ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কার দেশবিরোধী একটি মহল সরকার হটানোর ষড়যন্ত্র করছে: কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৮, শনাক্ত ৫৮৫ মুশতাকের মৃত্যুর কারণ তদন্তে বেরিয়ে আসবে: তথ্যমন্ত্রী আজ থেকে ২ মাস ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধ প্রেস ক্লাবে চরম ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে পুলিশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বেসরকারি চিকিৎসা সেবা ব্যয় নির্ধারণ শিগগিরই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাটকা সংরক্ষণে কাল থেকে ৬ জেলায় মাছ ধরা নিষিদ্ধ

ঢাকার ১০৫০ পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর বাড়ি উপহার

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২১ জানুয়ারি ২০২১  

মুজিববর্ষে বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না- প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে দেশের সব ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি এবং গৃহ প্রদান কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ঢাকা জেলার এক হাজার ৫০টি পরিবারের জন্য দুই শতাংশ জমিসহ ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। আগামী শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপকারভোগী পরিবারের কাছে এসব বাড়ি হস্তান্তর কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) ঢাকা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘ঢাকার দোহার উপজেলায় ১৯৮টি, নবাবগঞ্জে ৭৭০টি, কেরানীগঞ্জে ৫টি, সাভারে ৪১টি এবং ধামরাই উপজেলায় ৩৬টি বাড়ি নির্মাণ করা হয়েছে।’

জেলা প্রশাসক বলেন, ‘প্রতিটি বাড়িতে বৈদ্যুতিক সংযোগ, গভীর নলকূপ এবং স্বাস্থ্যসম্মত টয়লেট নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া চলাচলের সুবিধার জনা বাড়িগুলোর পাশে রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। এই বাড়ি নির্মাণ কার্যক্রমে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা সম্পৃক্ত ছিলেন। তাদের সহযােগিতায় বাড়ি নির্মাণ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়েছে।’

শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘যারা রাস্তায় ও বস্তিতে থাকতেন, তাদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার এই বাড়ির ব্যবস্থা করা হয়েছে। তারা কখনো কল্পনাও করেননি মাত্র দু-তিন মাসের মধ্যে এ ধরনের আধুনিক ঘর পাবেন। আমরা চাই দেশে যেন কোনো গরিব মানুষ না থাকে। আমরা প্রতিনিয়ত হাজারো মানুষের জন্য কাজ করছি। এই বাড়ি নির্মাণকাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে পেরে যে মানসিক তৃপ্তি পেয়েছি তা অন্য কোথাও পাইনি।’

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মুজিববর্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে একগৃহ নির্মাণের মাধ্যমে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে ২০২০-২১ অর্থবছরে সারাদেশে ৬৬ হাজার ১৮৯টি বাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে। আগামী শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপকারভোগী পরিবারের কাছে গৃহ হস্তান্তর কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। এ অনুষ্ঠানে ৬৪ জেলার উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে বিভাগীয় কমিশনার এবং জেলা প্রশাসকরা সংযুক্ত থাকবেন।