• শনিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৪ ১৪২৭

  • || ০১ সফর ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
নারায়ণগঞ্জের মসজিদে বিস্ফোরণে মৃত্যু বেড়ে ৩৩ আহমদ শফী কওমি শিক্ষার আধুনিকায়নে ভূমিকা রেখেছেন: প্রধানমন্ত্রী না.গঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩২ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৬, শনাক্ত ১৫৯৩ পেঁয়াজ আমদানিতে ৫ শতাংশ শুল্ক কমানোর চিন্তা: অর্থমন্ত্রী সরকার ওজোনস্তর রক্ষায় কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে: পরিবেশ মন্ত্রী শামুকের পাশাপাশি ঝিনুকও সংরক্ষণ করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৪৩, শনাক্ত ১৭২৪ পাটকল শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের কার্যক্রম শুরু তুরস্কে বাংলাদেশ চ্যান্সারি ভবন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৬, শনাক্ত ১৮১২ এবার দুদকের মামলায় ওসি প্রদীপ গ্রেপ্তার প্রধানমন্ত্রী কাল আঙ্কারায় বাংলাদেশ চ্যান্সেরির উদ্বোধন করবেন ২০২২ সালের মধ্যে ঢাকা-কক্সবাজার সরাসরি ট্রেন চলবে: রেলমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৪, শনাক্ত ১২৮২ শিক্ষার্থীদের আমরা এক হাজার করে টাকা দেব: প্রধানমন্ত্রী সিনহা হত্যা: জবানবন্দি শেষে কারাগারে চার পুলিশ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৬, শনাক্ত ১৮৯২ বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ মোস্তফা কামালের মা আর নেই মসজিদে বিস্ফোরণ: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৭
৫৩

‘দেশের নদ-নদী দখল রোধে কাজ করছে সরকার’

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০২০  

জাতীয় নদী কমিশনের চেয়ারম্যান ড.মুজিবুর রহমান হাওলাদার বলেছেন, দেশের নদ-নদীর দূষণ, নদী দখল রোধে নদী ও খাল রক্ষায় কঠোরভাবে কাজ করছে সরকার। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় মোংলা বন্দর এলাকায় নদী পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন তিনি।

এসময় তিনি বলেন, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উপকূলীয় এলাকায় নদ রক্ষায় আমাদের সমুদ্র বন্দর ও ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সুন্দরবনের কথা চিন্তা করতে হবে। বনের বনজ সম্পদ ও জীব বৈচিত্র্য রক্ষা এবং রামপালের তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কথা মাথায় রেখে এ অঞ্চলের নদীগুলো রক্ষা করতে মাঠে নেমেছে সরকারের প্রশাসনিক দল। এখানকার নদী দখল ও খাল রক্ষায় উপজেলা প্রশাসনকে আমাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

এসময় তিনি বলেন, সমস্যা সমাধানে প্রশাসনের কার্যক্রমের পাশাপাশি মানুষের মধ্যে গণসচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। যাতে মানুষ বুঝতে পারে সরকার জনগণের বন্ধু, সরকার দেশে ও মানুষের উন্নয়ন করছে। সুন্দরবনের মধ্যে প্রায় ৪৫০টি শাখা খাল রয়েছে, মানুষের অপব্যবহারের কারণে তা ধ্বংস হচ্ছে এবং পলি পড়ে অধিকাংশ খাল ভরাট হয়ে যাচ্ছে।

এছাড়াও সমুদ্র বন্দরের সাথে সংশ্লিষ্ট মোংলা-রামপালে ঘশিয়াখালী সংলগ্ন ৮৩টি খাল ও তার শাখা খালগুলো এখনও পু:খনন কাজ সম্পূর্ণ হয়নি। সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক পুরনো খতিয়ান অনুযায়ী খুব শীঘ্রই তা দখল ও অবমুক্ত করা হবে।

এসময় জাতীয় নদী কমিশনের চেয়ারম্যান সরকারের সচিব ড.মুজিবুর রহমান হাওলাদার ছাড়াও জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের সার্বনিক সদস্য মোঃ আলাউদ্দিন, উপ-পরিচালক আখতারুজ্জামান তালুকদার, বন্দর চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম মোজাম্মেল হক, বন্দর কর্তৃপক্ষ (সদস্য অর্থ) যুগ্ম-সচিব ইয়াসমিন আফসানা, পরিচালক প্রশাসন মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজিজুল কবির, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রাহাত মান্নান, সহকারী কমিশনার ভূমি নয়ন কুমার রাজবংশীসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর