• বৃহস্পতিবার   ১৩ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৮ ১৪২৭

  • || ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
করোনায় আরও ৪২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৯৯৫ দেশে একদিনে ৩৩ মৃত্যু, আক্রান্ত ২৯৯৬ করোনায় আরও ৩৯ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৯০৭ পদ্মা ব্যাংকের অর্থ আত্মসাৎ মামলায় সাহেদ ৭ দিনের রিমান্ডে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৪৮৭ দলীয় পরিচয় কোনো অপরাধীকে রক্ষা করতে পারেনি: কাদের লাইসেন্স নবায়ন না করলেই বেসরকারি হাসপাতাল বন্ধ দেশে করোনায় আরও ৩২ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬১১ কাল অনলাইনে শুরু একাদশের ভর্তি, যেভাবে আবেদন করবেন সুযোগ আছে, করোনা সংকটেও বিনিয়োগ আনতে হবে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জাপানের প্রধানমন্ত্রী আবের ফোন করোনায় আরও ৩৩ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬৫৪ কামাল বেঁচে থাকলে সমাজকে অনেক কিছু দিতে পারতো: শেখ হাসিনা সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহার মাকে প্রধানমন্ত্রীর ফোন করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৫০ মৃত্যু, শনাক্ত ১৯১৮ করোনায় আরও ৪৮ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬৯৫ প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে অসচ্ছল গর্ভবতী নারীরা পাবে চার হাজার টাকা ট্রাফিক পুলিশ বক্সে বিস্ফোরণ, ‘নব্য জেএমবির সদস্য’ আটক করোনায় আরও ৩৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৩০০৯ ১২ কোটি টাকা আত্মসাত করে গ্রেফতার যমুনা ব্যাংকের ম্যানেজার
১৬৪

ফোন পেয়ে অসহায় পরিবারের পাশে দাড়াঁলো ইউএনও

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৫ এপ্রিল ২০২০  

ভোলা প্রতিনিধিঃ ফোন পেয়ে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে  ভোলা সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মিজানুর রহমান। রবিবার দুপুরে  ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের নবীপুর এলকার অর্ধশতাধিক খেটে খাওয়া শ্রমিক,অসহায় দরিদ্র্য  গরীব লোকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে  খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিলেন ইউএনও। করোনা আতঙ্কে বাড়ী থেকে বের হতে পারছেন না খেটে খাওয়া দিনমজুররা। বাড়ীর বাইরে যেতে না পারায় তাদের দিন কাটছে অনাহারে। তাই  গাড়ীতে করে চাল, ডাল,আলু,সাবানসহ নিত্যপন্য খাবার সামগ্রী  পৌছে দিচ্ছেন উপজেলার বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় খেটে খাওয়া দিনমজুরদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে খাদ্যসামগ্রী তুলে দিচ্ছেন অসহায় পরিবারের হাতে। খাবার পেয়ে আনন্দে চোখের পানি ঝড়িয়েছেন অনেকের।

ভোলা সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মিজানুর রহমান জানায়, আমরা দিন-রাত চেষ্টা করছি প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ সামগ্রী অসহায় মানুষের হাতে তুলে দেয়ার। যাতে নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষ ত্রাণ পায় । এ জন্য আমি নিজে চেষ্টা করি সরাসরি ত্রাণ বিতরণে অংশগ্রহন  করার। এতে করে প্রকৃত অসহায়রা সরকারের খাদ্য সামগ্রী পাচ্ছেন। এ জন্য আমি প্রতিদিন খেটে খাওয়া মানুষের জন্য ত্রাণ নিয়ে বের হই। অপর দিকে খাদ্য সামগ্রী নিতে ঝুঁকি নিয়ে কাউকে ঘর থেকে বের হতে হচ্ছেনা। এ ভাবে পর্যায়ক্রমে  উপজেলার সকল ইউনিয়নে কর্মহীন দরিদ্র অসহায়দের মাঝে খাদ্য পৌছে দেয়ার চেষ্টা করছি। উল্লেখ্য, জেলা প্রশাসক এর নিদের্শ ক্রমে এর আগে ভোলা বাসটার্মিনালে প্রায় দেড়শ পরিবহন শ্রমিকদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

উপজেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর