শনিবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১২ ১৪২৬   ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
কোন সিপাহির বাঁশির হুইসেলে এদেশ স্বাধীন হয়নি - শ.ম রেজাউল করিম নাসিরুদ্দিন শাহ ও অনুপম খেরের বাকযুদ্ধ আকাশ থেকে মোবাইলে পদ্মাসেতুর ছবি তুললেন প্রধানমন্ত্রী চীনের রহস্যময় ভাইরাস বাদুড় ও সাপ হয়ে মানবদেহে! `শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বের কারণে পরিচয় দিতে গর্ববোধ করি` এত গুণ পুদিনা পাতার? হাঁসের মাংসের কালিয়া দেশ গঠনে ক্যাডেটদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে-সেনাপ্রধান মুজিববর্ষ ঘিরে বিদেশিদের মধ্যেও আগ্রহ বাড়ছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পাখি মেলা শিগগিরই মালয়েশিয়া-সিঙ্গাপুরকে পেছনে ফেলবো: অর্থমন্ত্রী শিক্ষার অন্যতম উদ্দেশ্য মানবসম্পদ তৈরি: শিক্ষা সচিব মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের লক্ষ্যেই আ’লীগ কাজ করে যাবে-শেখ হাসিনা সোলেইমানি হত্যার নিন্দা জানানোয় কসোভোতে নারীর কারাদণ্ড বরিশাল বোর্ডে এসএসসিতে অনিয়মিত পরীক্ষার্থী ২১ শতাংশ টুঙ্গিপাড়া যাত্রায় টোল পরিশোধ করলো আওয়ামী লীগ বিক্ষোভে জনসমুদ্র বাগদাদ, স্লোগানে কাঁপছে রাজপথ বিএনপি ভোট কারচুপির রাজত্ব সৃষ্টি করেছিল বলেই ইভিএম আনা হয়েছে পাকিস্তানকে ১৪২ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ বৈশ্বিক স্বাস্থ্যে এখনো ঝুঁকি নয় করোনা ভাইরাস: ডব্লিউএইচও
৭৮

বিএনপি বিশৃঙ্খলা করলে আওয়ামী লীগও প্রস্তুত: কাদের

প্রকাশিত: ৬ ডিসেম্বর ২০১৯  

আদালত প্রাঙ্গণে বিএনপি যে হট্টগোল করেছে সেটা ক্ষমার অযোগ্য বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, আন্দোলনের নামে বিএনপি বিশৃঙ্খলা তৈরির চেষ্টা করলে আওয়ামী লীগও প্রস্তুত আছে, সমুচিত জবাব দেওয়া হবে।

শুক্রবার (০৬ ডিসেম্বর) আওয়ামী লীগের দপ্তর উপ-কমিটির সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যের পর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ মন্তব্য করেন। আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

আদালত প্রাঙ্গণে বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের হট্টগোলের প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এটা ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ। এটা কোনো রাজনৈতিক মামলা নয় যে, রাজনৈতিকভাবে সরকার মুক্তি দিতে পারে। এটা হলো দুর্নীতির মামলা। দুর্নীতির মামলায় সরকারের কিছু করার নেই। এটা আদালতের বিষয়। যদি রাজনৈতিক মামলা হতো, তাহলে চিন্তা-ভাবনার সুযোগ থাকে। তাকে রাজনৈতিকভাবে আটকে রাখা হয়েছে, বিএনপি নেতাকর্মীদের এগুলো মিথ্যা কথা। বিষয়টি তারা জেনে শুনেই বলছে’।

কাদের বলেন, ‘আদালত প্রাঙ্গণে তারা রণাঙ্গন সৃষ্টি করেছে, আদালতের ভেতরে শেষ পর্যন্ত প্রধান বিচারপতিকে কমেন্ট করতে হয়েছে। আমি এমন ঘটনা কখনও দেখিনি। বাড়াবাড়ির একটা সীমা আছে, এমন কমেন্ট প্রধান বিচারপতি করেছেন। আমি মনে করি আদালতের ভেতরে আদালতকক্ষে তারা যে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করেছে, হট্টগোল তারা করেছে সেটা ক্ষমার অযোগ্য।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপির আন্দোলনে, নির্বাচনে ব্যর্থতার কোনো সীমা নেই। তারা রাজনীতিতেও ব্যর্থ, সাংগঠনিকভাবেও ব্যর্থ। আমাদের এখানে কী করার আছে। আমরা এখানে রাজনৈতিক মামলা হলে তার (খালেদা জিয়া) মুক্তির বিষয়টা বিবেচনা করতাম। এটা রাজনৈতিক কোনো মামলা নয়, দুর্নীতির মামলা। তারা এখন আন্দোলনে ব্যর্থ, নির্বাচনে ব্যর্থ। তাদের এখন এই অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করে ঘোলা পানিতে মাছ স্বীকার করার দুরভিসন্ধি ছাড়া তাদের আর কিছু করার নেই’।

‘তারা বারবার আন্দোলনের ডাক দিচ্ছে, জনগণের সাড়া পাচ্ছে না। তারা এখন আদালত প্রাঙ্গণে, আদালতের ভেতরে যে হট্টগোল সৃষ্টি করেছে, এটাই এখন তাদের রাজনীতি’।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য পিযুশ কান্তি ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পদাক মাহবুব-উল আলম হানিফ, দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় সদস্য আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

এই বিভাগের আরো খবর