রোববার   ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৩ ১৪২৬   ১০ রবিউস সানি ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার পাঁয়তারা করছে বিএনপি-জামায়াত- জ্যাকব বঙ্গবন্ধুকে ‘ড. অব ল’ সম্মাননা দেবে ঢাবি ইংরেজির পাশাপাশি বাংলায়ও রায় লেখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর সবাই যেন ন্যায়বিচার ও আইনের আশ্রয় পায়: প্রধানমন্ত্রী আজ আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান চলাচল দিবস চরফ্যাশনে ২৫ হাজার মিটার জাল আটক বিচার বিভাগের প্রতি মানুষের আস্থা ফিরেছে- প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরছেন মিয়ানমারের জলসীমায় আটক ১৭ জেলে আ`লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভা সোমবার ফাইনাল নিশ্চিতের লড়াইয়ে টস হেরে ব্যাটিংয়ে সৌম্য-আফিফরা জাতীয় বিচার বিভাগীয় সম্মেলন আজ আওয়ামী লীগের খাদ্য উপ-কমিটির সভা আজ সভাপতির পদ ছাড়া যেকোনো পদে পরিবর্তন হতে পারে : কাদের ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক চিরকালীন: রীভা গাঙ্গুলী সৌম্যের ফিফটিতে ভুটানকে উড়িয়ে দিল বাংলাদেশ বিএনপি বিশৃঙ্খলা করলে আওয়ামী লীগও প্রস্তুত: কাদের চাল নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই : কৃষিমন্ত্রী দেশ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে চলছে: তথ্যমন্ত্রী বিএনপিপন্থিদের হট্টগোল কলঙ্কজনক-আদালত অবমাননা অন-অ্যারাইভাল ভিসাসহ বাংলাদেশ-ভারতের নৌপথে খুলছে অনেক জট
৬৪

ভোলার মাঝের চরে ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

প্রকাশিত: ১৪ নভেম্বর ২০১৯  

ভোলা প্রতিনিধিঃ
ভোলার সদরের কাচিয়া ইউনিয়নের মেঘনা নদীল মাঝে অবস্থিত মাঝের চরে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঘূর্নিঝড় বুলবুলের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্থ ২০০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) কাচিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা আ’লীগের ১নং যুগ্ম সম্পাদক মোঃ জহুরুল ইসলাম নকীব ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, তেল, শুকনো খাবার বিতরণ করেন।

কার্যক্রম পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামাল হোসেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জিয়া উদ্দিন সহ জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, শিক্ষকবৃন্দ।

কাচিয়া ইউপি চেয়ারম্যান জহুরুল ইসলাম নকীব বলেন, কাচিয়া ইউনিয়নের মাঝের চর এলাকাটি মূল ভূখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ায় ঝড় জলোচ্ছ্বাসে এখানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। এখানের বাসিন্দারা জীবিকা নির্বাহের জন্য এই চরে ধান, ক্যাপসিক্যাম, শসা, রেখা, মরিচ চাষাবাদ করে। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে এখানে প্রায় ১৫ হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। এতে প্রায় ১০০ কোটি টাকার ফসলের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এছাড়াও কয়েকটি ঘরবাড়ী বিধ্বস্ত হয়েছে। ভোলা সদর উপজেলার সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে মাঝের চরে। চরের যেসব পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে তাদের একটি তালিকা করে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০০ পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, চিনি, তেল সহ শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোঃ কামাল হোসেন বলেন, ভোলা সদরের কাচিয়া ইউনিয়নের মাঝের চর এলাকাটি মেঘনার মাঝখানে হওয়ায় এখানে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে বেশি ক্ষতি হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ ২০০ পরিবারের মাঝে বরাদ্দকৃত ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের একটি তালিকা করে সরকারিভাবে তাদেরকে সহযোগীতা করা হবে বলে তিনি জানান।

এই বিভাগের আরো খবর