সোমবার   ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৪ ১৪২৬   ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
খালেদার প্যারোলে মুক্তির কোনো আবেদন পাইনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উহান ফেরত শিক্ষার্থীরা নজরদারিতেই থাকবেন : আইইডিসিআর রোহিঙ্গা ইস্যুতে ইন্দোনেশিয়ার সহায়তা চাইলেন ড. মোমেন ইউএনও’দের মাধ্যমে রাজাকারের তালিকা করা হবে : মোজাম্মেল হক মানবপাচারে অভিযুক্ত এমপির বিষয়ে দুদককে তদন্তের আহ্বান কাদেরের হত্যা মামলায় ৯ জনের যাবজ্জীবন বিশ্বকাপজয়ী ৬ ক্রিকেটারকে নিয়ে বিসিবি একাদশ ঘোষণা মশা মারার পর্যাপ্ত ঔষধ মজুত আছে : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট রহমত আলী আর নেই নিঃস্বার্থভাবে জনগণের কাজ করুন, নেতাকর্মীদের শেখ হাসিনা ৫ আসনের উপ-নির্বাচনে আ’লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা কে ভোট দিল কে দিল না তা বিবেচনা করে না আ. লীগ : প্রধানমন্ত্রী আ.লীগ উন্নয়নে বিশ্বাসী: প্রধানমন্ত্রী চীন থেকে দেশে আসা সবাই সুস্থ : আইইডিসিআর বিএনপি এখন টেলিফোনে প্রেমালাপ শুরু করেছে : নানক মুজিববর্ষে দেশের প্রতিটি ঘর আলোকিত হবে: নাসিম দাখিল পরীক্ষায় নকল করায় ৬ ছাত্র বহিষ্কার খালেদার মুক্তি নিয়ে বিএনপি-ই দ্বিধান্বিত: তথ্যমন্ত্রী ৩৫ এলাকায় ফ্রি ওয়াই-ফাই পাচ্ছেন কক্সবাজারবাসী করোনা নিয়ে গুজব ছড়ানো ব্যক্তিরা দেশের মঙ্গল চায় না: জাহিদ মালেক
৪০৫

ভোলায় বাল্য বিয়ে করতে এসে বর,বাবা ও মেয়ের বড় ভাই আটক

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২০ জানুয়ারি ২০২০  

ভোলা প্রতিনিধিঃ
ভোলা পৌর সভার ৯ং ওয়ার্ডের ভোকেশনাল রোডের সোহেল পেশায় একজন মহড়ী । কথা ছিলো সন্ধ্যায় বিয়ে করে নববধূ নিয়ে বাড়ী ফিরবে। কিন্তুু  কনের বয়েস না হওয়ায় বাল্য বিয়ে করতে এসে যেতে হলো কারাগারে। শুধু তাই নয় বরের বাবা আবুল হোসেন ও মেয়ের বড় ভাই  রিয়াজকে আটক করেছে পুলিশ।

রবিবার সন্ধ্যায় ভোলা থানার পুলিশ বাল্য বিয়ের খবর পেয়ে তাদেরকে আটক করে নিয়ে আসে। পরে তাদেরকে ভ্রামমান আদালতে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।  

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,রোববার  রাতে ভোলা পৌর সভার ৯ ওয়ার্ডের মো: ইদ্রিস এর ছোট মেয়ে  এ রব স্কুল এন্ড কলেজের এসএসসি পরীক্ষার্থী শান্তা আকতার এর সাথে বিয়ে হওয়ার কথা ছিলো আবুল হোসেন এর ছেলে  মহড়ী সোহেল এর। তবে বিয়ের অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার আগেই কনের বাড়ীতে হাজির হয় পুলিশ। বাল্যবিবাহের অভিযোগে বর- বরের বাবা আবুল হোসেন ও কনের ভাই রিয়াজ হোসেন আটক করে পুলিশ। পরে রাতে তাদের মোচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেয়া ভ্রামমান আদালতের নির্বাহী মেজিস্ট্রেট।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  মো: কামাল হোসেন  বলেন,মেয়েটির যেহেতু ১৮ বছর পূর্ণ হয়নি তাই  পরিবারের কাছে থেকে মুচলেকা নেওয়া হয়েছে। প্রপ্ত বয়স্ক হলে মেয়ের বিয়ে দেয়া হবে এই মর্মে তাদের কাছ থেকে  মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

এই বিভাগের আরো খবর