মঙ্গলবার   ৩১ মার্চ ২০২০   চৈত্র ১৬ ১৪২৬   ০৬ শা'বান ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ ভোলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নৌ-বাহিনীর টহল পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে আজ ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নিষেধাজ্ঞা অক্ষরে অক্ষরে পালন করুন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই খালেদা জিয়াকে মুক্তির সিদ্ধান্ত করোনা ছোঁয়াচে, এক মিটার দূরত্বে থাকার পরামর্শ টিসিবি-ভোক্তা অধিদফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল ২৬ মার্চ থেকে সারাদেশে ১০ দিন গণপরিবহন বন্ধ সকল বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও বন্ধের নির্দেশ
৬৭৯

ভোলা-৩ আসন: বিএনপির জন্য বড় চ্যালেঞ্জ শাওন

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২২ নভেম্বর ২০১৮  

 

লালমোহন প্রতিনিধি:
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোলা-৩ (লালমোহন-তজুমদ্দিন) আসনে আওয়ামীলীগের বর্তমান সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য দ্বীপবন্ধু আলহাজ্ব নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন ও কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা মেজর (অবঃ) হাফিজ উদ্দিন আহমদ বীর বিক্রম, লালমোহন উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও বর্তমানে চরভূতা ইউপি চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান টিটব, ঢাকা মহানগর জাসার্সের সহ-সভাপতি সাইদুল ইসলাম মিলন, হাই কোর্টের এডভোকেট কামাল হোসেন এবং তজুমদ্দিন উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম মোস্তফা তাদের দলীয় মনোনয়ন পেতে চান। তবে এলাকায় আওয়ামীলীগ ছাড়া অন্য প্রার্থীদের নির্বাচনী তৎপরতা নেই বললেই চলে।
ভোলার অন্য আসনগুলোতে বিএনপির নেতারা মাঠে থাকলেও এখানে কোন কার্যক্রম বা কর্মসূচি নেই বিএনপির। মেজর (অবঃ) হাফিজ নিশ্চিত নমিনেশন পাচ্ছেন বলে নেতাকর্মীদের মধ্যে গুনঞ্জণ থাকলেও নির্বাচনী এলাকায় বিগত ৮ বছর আসতে পারেননি। রাজনৈতিক পরিবেশ স্থিতিশীল থাকায় আওয়ামীলীগ সরকারের ২ মেয়াদে নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন তার নির্বাচনী এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। স্থানীয়ভাবে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করেন একাদশ নির্বাচনে শাওনের অভূতপূর্ণ উন্নয়ন মোকাবেলাই বিএনপির জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভোলা-৩ সংসদীয় আসন লালমোহন ও তজুমদ্দিন দু’টি উপজেলা ও একটি পৌরসভা নিয়ে গঠিত।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর লালমোহন ও তজুমদ্দিনে অভূতপুর্ব উন্নয়ন হয়েছে। যা বিগত বিএনপি জোট সরকারের আমলে হয়নি।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারাদেশের ন্যায় লালমোহন ও তজুমদ্দিনে ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন। ভোলা-৩ আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর লালমোহন ও তজুমদ্দিনে মেঘনার ভাঙ্গনরোধে শ’শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ, স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসার নতুন নতুন ভবন নির্মাণ, রাস্তা, ব্রীজ ও কালভার্ট নির্মাণ করেছেন নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন। লালমোহনে দৃষ্টি নন্দন সজীব ওয়াজেদ জয় ডিজিটাল পার্ক নির্মাণ করে এখানকার শিশুদের বিনোদনের ব্যবস্থা করেছেন তিনি। 
সরেজমিনে দেখা যায়, ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে এ আসনের রাজনৈতিক মাঠ সরগরম হয়ে উঠতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যে আওয়ামীলীগের নিশ্চিত মনোনয়ন প্রত্যাশী নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন বিভিন্ন এলাকায় জনসভা, পথসভা,সমাবেশ, উঠান বৈঠক ও নির্বাচনী কমিটি গঠনসহ নির্বাচন প্রস্তুতি সম্পন্ন করে ফেলেছেন।
তবে লালমোহনে দীর্ঘদিন যাবৎ বিএনপির কোন কার্যালয়ের অস্তিত্ব নেই। মহাজোটের প্রার্থী নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন তাঁর অন্যতম প্রতিদন্ধি বিএনপির প্রার্থী মেজর (অবঃ) হাফিজ।
আওয়ামীলীগের প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য নূরুন্নবী চৌধুরী শাওনের করা ব্যাপক উন্নয়ন মোকাবেলা করাই হলো বিএনপির প্রার্থীর বড় অন্তরায়।
আওয়ামীলীগের প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন নির্বাচনী মাঠে সরব থাকলেও বিএনপির সম্ভাব্য ৫ প্রার্থী মেজর (অবঃ) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, আক্তারুজ্জামান টিটব, সাইদুল ইসলাম মিলন, এডভোকেট কামাল হোসেন ও গোলাম মোস্তফাকে নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে রয়েছে দ্বিধা।
 

এই বিভাগের আরো খবর