শনিবার   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১৬ ১৪২৬   ০৫ রজব ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ বঙ্গবন্ধু অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ দিয়েছেন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মশা যেন ভোট খেয়ে না ফেলে, নতুন মেয়রদের প্রধানমন্ত্রী তাপস-আতিককে শপথ পড়ালেন প্রধানমন্ত্রী দ্বিতীয় কিস্তির ২৭ কোটি ৬০ লাখ টাকা বিটিআরসিকে দিল রবি মাধ্যমিক পর্যন্ত বিজ্ঞান বাধ্যতামূলকের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর মাদক মামলায় ‘ক্যাসিনো খালেদের’ বিচার শুরু বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ওপর নজরদারি বাড়াতে বললেন প্রধানমন্ত্রী আজকের স্বর্ণপদক প্রাপ্তরা ২০৪১ এর বাংলাদেশ গড়ার কারিগর যে কোন অর্জনের পেছনে দৃঢ় মনোবল এবং আত্মবিশ্বাস গুরুত্বপূর্ণ ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ পেলেন ১৭২ শিক্ষার্থী আজ ১৭২ শিক্ষার্থী প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাচ্ছেন অশান্ত দিল্লিতে কারফিউ, নিহত ১৭ পিকে হালদারসহ ২০ জনের ব্যাংক হিসাব জব্দের আদেশ বহাল ৭ মার্চ জাতীয় দিবস ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায় ১৪ দিনেই ভালো হচ্ছেন করোনা রোগী : আইইডিসিআর মুশফিক-নাঈমে ইনিংস ব্যবধানে দূর্দান্ত জয় টাইগারদের পিলখানা ট্র্যাজেডি দিবস আজ রিফাত হত্যা মামলার আসামি সিফাতের বাবা গ্রেফতার কুষ্টিয়ায় জগো বাহিনীর প্রধানের ফাঁসি, ১১ জনের যাবজ্জীবন
১১৩

মাইগ্রেন থেকে মুক্তি দেবে চুম্বক!

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৭ জানুয়ারি ২০২০  

মাথা ব্যথা আর মাইগ্রেন মোটেও এক নয়। যদিও অনেকেই এই দুটি ব্যাপারকে এক করে ফেলে। নানা কারণেই মাথা ব্যথা হতে পারে। দুশ্চিন্তায় বা মাইগ্রেনের কারণে তীব্র ব্যথা অনুভূত হয়।

মাইগ্রেনের সমস্যায় ভুগছেন এমন অনেক মানুষ আছেন। তারা ওষুধ খেয়েও এই কঠিন রোগ থেকে রেহাই পাচ্ছেন না। তবে এই রোগ থেকে রেহাই দিতে মার্কিন বিজ্ঞানীরা চেষ্টা চালিয়েছেন। তারপর তারা আবিষ্কার করলেন ‘পেইন জ্যাপার’ নামে এক ধরনের চুম্বকীয় পদার্থ। এর মাধ্যমে দুই ঘণ্টার মধ্যে একজন রোগী অনেকটাই আরাম পাবেন।

চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায়, যন্ত্রটির নাম সিঙ্গল পালস ট্রান্সক্র্যানিয়্যাল ম্যাগনেটিক স্টিমুলেশন সংক্ষেপে এসটিএমএস। এই চুম্বকীয় পদার্থ বিদ্যুৎ সংযোগের সাহায্যে মস্তিষ্কের কোষকে সজাগ করে তোলে।

যন্ত্রাংশটির প্রথম কাজ হিসেবে যন্ত্রটি মাথার পেছনের অংশে লাগিয়ে সুইচ অন করতে হয়। এটা মাথার ভেতর শর্ট সার্কিট ঘটিয়ে ব্যথা থেকে মুক্তি দেয়। এতে মাইগ্রেন থেকে আরাম পাওয়া যায়।

ক্যালিফোর্নিয়ার নিউরেলিভ ফার্ম ইতিমধ্যে ১৬০ জন রোগীর মাধ্যমে এই যন্ত্রাংশটি পরীক্ষা করেছে। এদের মধ্যে পুরুষ ও মাহিলা দুই-ই ছিল। এই রোগীরা ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা মাইগ্রেনের ব্যথায় কষ্ট পাচ্ছিলেন। এই পরীক্ষার পর রোগীদের একটি করে গেজেট ও ডামি যন্ত্রাংশ দেয়া হয়। রোগীদের মধ্যে ৪০ শতাংশ যন্ত্রটি ব্যবহার করে দুই ঘণ্টার মধ্যে রোগ থেকে মুক্তি পেয়েছেন।

এই বিভাগের আরো খবর