শুক্রবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৯ ১৪২৬   ২৬ জমাদিউস সানি ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ সমৃদ্ধ দেশ গড়তে সুস্থ যুব সমাজের বিকল্প নেই : প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ ডাকঘর সঞ্চয়ের সুদহার পুনর্বিবেচনা করা হবে : অর্থমন্ত্রী মুঠোফোন প্রতারক জিনের বাদশা গ্রেফতার করোনাভাইরাস নিয়ে গুজবে কান দিবেন না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাগর তীরে উঁচু স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বিএনপি জ্বালাও-পোড়াও না করলে দেশ আরো এগিয়ে যেত : তথ্যমন্ত্রী শহীদ দিবসে জঙ্গি হামলার কোনো সম্ভাবনা নেই : ডিএমপি কমিশনার দেশে ব্রয়লারসহ কোন পশু-পাখির মধ্যে করোনা পাওয়া যায়নি : আইইডিসিআর বিশ্ববাসীর কাছে বাংলাদেশ এখন অনুকরণীয়: শ ম রেজাউল ওআইসিকে শক্তিশালী করতে চাই: ড. মোমেন
৪০৪

মাটি খুঁড়তেই বেড়িয়ে এল ৬০ বছর আগের অক্ষত মরদেহ

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৩ ডিসেম্বর ২০১৯  

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে একটি পুরোনো ঢিবির মাটি কাটার সময় আনুমানিক ৬০ থেকে ৭০ বছর পূর্বের একটি অক্ষত মরদেহের সন্ধান পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার (২ ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের অভিরামপুর গ্রামে।

এ নিয়ে দিনভর স্থানীয় মানুষের মাঝে ব্যাপক আলোচনা চলে। কেউ বলছেন মরদেহটি ৬০ বছরের পুরোনো আবার কেউ বলছেন প্রায় দেড় থেকে দুইশ বছরের পুরোনো।

এলাকাবাসী জানান, সোমবার অভিরামপুর গ্রামে কয়েজন শ্রমিক মাটি কাটার সময় মাটির ৩/৪ ফুট নিচে একটি মরদেহ অক্ষত অবস্থায় দেখতে পান। কাফনের কাপড়ও অক্ষত রয়েছে। তবে মরদেহটির পরিচয় কেউ নিশ্চিত করতে পারেনি।

গ্রামবাসীর ধারণা- মরদেহটি কোনো পরহেজগার ব্যক্তির হতে পারে। সে কারণেই হয়তো নষ্ট হয়নি। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে হাজার হাজার মানুষ মরদেহটি দেখার জন্য ভিড় করে। পরে মরদেহটি আবার দাফন করা হয়।

উপজেলার অভিরামপুর গ্রামের পঁচাত্তর বছর বয়সী আব্দুল মালেক জানান, ওই স্থানে একটি উঁচু ঢিবি ছিল। জমির মালিক ঢিবির মাটি অন্যত্র বিক্রি করায় শ্রমিকরা ৩/৪ ফুট মাটি কাটার পরেই মরদেহটি দেখতে পান। মরদেহের মুখমণ্ডল এবং কাফনের কাপড় অক্ষত ছিল। ওই স্থানে কোনো দিন কবরস্থান ছিল বলে তার জানা নেই।

গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আফজাল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মরদেহটি আনুমানিক ৬০ বছর আগের হতে পারে। কিন্তু এলাকার কেউই মরদেহটির পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি।

এই বিভাগের আরো খবর