বৃহস্পতিবার   ০২ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ১৮ ১৪২৬   ০৮ শা'বান ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান করোনায় খাদ্য ঘাটতি হবে না : কৃষিমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখ‌ছেন প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ৬৪ জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কনফারেন্স পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ ভোলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নৌ-বাহিনীর টহল পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে আজ ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী
৫১৬

রোগীর শরীরে মিললো সাড়ে ৭ কেজি ওজনের কিডনি!

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৬ নভেম্বর ২০১৯  

একটি কিডনির স্বাভাবিক ওজন ১২০ থেকে ১৫০ গ্রাম। কিন্তু সম্প্রতি এক রোগীর শরীর থেকে ৭.৪ কেজি ওজনের একটি কিডনি অপসারণ করেছেন চিকিৎসকরা। অর্থাৎ কিডনিটির ওজন দুটি নবজাতক শিশুর সমান। 

অবিশ্বাস্য মনে হলেও ভারতের দিল্লিতে ‘স্যার গঙ্গারাম হাসপাতাল’-এ ঘটনাই ঘটেছে। মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।  

খবরে বলা হয়, ওই রোগী ‘অটোজোমাল ডমিন্যান্ট পলিসিস্টিক কিডনি ডিজিস’ নামে বিশেষ এক ধরনের অসুখে ভুগছিলেন। এতে পুরো কিডনি ঘিরে সিস্ট (অর্বুদ) তৈরি হয়। ফলে রোগীর শরীরে বৃহৎ আকারের কিডনি পাওয়া যায়। তারপরও এতো বড় কিডনি পাওয়ায় খুবই অবাক বলে জানিয়েছেন অপারেশনে সংশ্লিষ্ট এক চিকিৎসক। 

শচীন কাঠুরিয়া নামে ওই চিকিৎসক বলেন, এ ধরনের অসুখের ক্ষেত্রে ইনফেকশন (সংক্রমণ) বা অভ্যন্তরীণ রক্তপাতের উপসর্গ না পেলে চিকিৎসকরা সাধারণত কিডনি অপসারণ করেন না, যেহেতু কিছু না কিছু মাত্রায় কিডনিটি শরীরের ছাঁকন প্রক্রিয়ায় কাজ করছে। 

‘এ রোগীর ক্ষেত্রেও ইনফেকশন হয়েছিল। অ্যান্টিবায়োটিকে কাজ হচ্ছিল না। তাছাড়া বিশাল আকারের কিডনির ফলে তার শ্বাসপ্রশ্বাসেও সমস্যা হচ্ছিল। ফলে কিডনিটি অপসারণ ছাড়া আমাদের হাতে কোনো বিকল্প ছিল না।’

অপারেশনের সময় চিকিৎসকরা বড়সড় আকারের কিডনিই প্রত্যাশা করছিল, কিন্তু সেটি যে এতো বড় হতে পারে, তা তারা ভাবতেই পারেননি বলে জানান কাঠুরিয়া। এ রোগীর বাকি কিডনিটিও আকারে বেশ  বড় বলে জানান তিনি। 

এ চিকিৎসক আরও জানান, এখন পর্যন্ত গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম ওঠা সবচেয়ে বেশি ওজনের কিডনিটি সাড়ে ৪ কেজির। যদিও ইউরোলজি জার্নালের রেকর্ডে এর চেয়েও বেশি ওজনের কিডনির উল্লেখ পাওয়া যায়। জার্নাল অনুসারে, এর আগে যুক্তরাষ্ট্রে ৯ কেজি ওজনের ও নেদারল্যান্ডে ৮.৭ কেজি ওজনের কিডনি পাওয়া গেছে। 

তারপরও গিনেজ বুকে সেগুলোর উল্লেখ না থাকায় ৭.৪ কেজি ওজনের এ কিডনিটির জন্য গিনেজ কমিশনে আবেদন করা হবে কিনা এ ব্যাপারে চিকিৎসকরা এখনো সিদ্ধান্ত নেননি বলে জানিয়েছেন কাঠুরিয়া। তবে তারা বিষয়টি বিবেচনা করছেন।    

‘অটোজমাল ডমিন্যান্ট পলিসিস্টিক কিডনি ডিজিস’ একটি বংশগত রোগ। এ ক্ষেত্রে সাধারণত ৩০ থেকে ৬০ বছর বয়সের মধ্যে রোগীর বিভিন্ন শারীরিক জটিলতা দেখা দেয়। চূড়ান্ত পর্যায়ে তার কিডনি সম্পূর্ণ বিকল হয়ে যায়। 

এই বিভাগের আরো খবর