• রোববার   ০৯ মে ২০২১ ||

  • বৈশাখ ২৫ ১৪২৮

  • || ২৫ রমজান ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
২৪ ঘণ্টায় করোনায় দেশে ৪৫ মৃত্যু খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেয়ার প্রয়োজন নেই : হানিফ তাণ্ডবকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনলাইনে পরীক্ষা নিতে পারবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আজই ফিরছেন সাকিব-মুস্তাফিজ খালেদা জিয়ার আবেদন পেয়েছি, দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে: আইনমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ২০ মিলিয়ন টিকা চেয়েছে বাংলাদেশ: আব্দুল মোমেন গ্রামে বাড়ি নির্মাণে ইউনিয়ন পরিষদের অনুমতি লাগবে: তাজুল করোনা প্রাণ নিল আরও ৫০ জনের, নতুন শনাক্ত ১৭৪২ শপিংমল খোলা রাত ৮টা পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবের ঘটনায় আরো ১০ জন গ্রেফতার করোনায় একদিনে আরও ৬১ জনের মৃত্যু শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে কোনো ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করা হবে: আ`লীগ জুনায়েদ আল হাবিব আরও ৪ দিনের রিমান্ডে নাশকতার মামলায় ফের ৫ দিনের রিমান্ডে মামুনুল হক জামায়াত-শিবিরের ৮ নেতাকর্মী আটক করোনায় প্রাণ গেল আরও ৬৫ জনের, শনাক্ত ১৭৩৯ ‘লকডাউন’ বাড়লো ১৬ মে পর্যন্ত অর্থবিত্তে বড় হলেও সত্য সংবাদ পরিবেশন হওয়া উচিত: তথ্যমন্ত্রী জনস্বার্থে মামলার নামে জনমনে ভীতি ছড়াবেন না: হাইকোর্ট

লঞ্চের লস্কর হত্যায় একজনের যাবজ্জীবন

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৩ মার্চ ২০২১  

খুলনায় লঞ্চের লস্কর আইয়ুব আলী হত্যা মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. মশিউর রহমান চৌধুরী এ রায় ঘোষণা করেন। এ সময় আসামি উপস্থিত ছিলেন।

এ মামলার অপর আসামি অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় শিশু আদালতে তার বিচারকার্য চলছে। দণ্ডিত মো. রায়হান সরদার যশোরের চাঁচড়া এলাকার হাকিম সরদারের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর সকাল পৌনে ৬টায় লঞ্চটি কয়রা উপজেলার ভান্ডার পোল এলাকায় পৌঁছায়। যাত্রীরা লঞ্চ থেকে নামতে শুরু করলে দুই যাত্রী নিজেদের টিকিট দেখাতে পারেননি। তাদের জিজ্ঞাসা করা হলে উত্তর দেন চালনা থেকে এসেছেন। তখন লঞ্চের লস্কর আইয়ুব আলী বলেন, তারা খুলনা থেকে উঠেছে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে পকেট থেকে ছুরি বের করে আইয়ুবের পেটে ঢুকিয়ে দেন রায়হান। পরে তিনি লঞ্চের ওপর লুটিয়ে পড়েন।

এ সময় এক কেরানি এগিয়ে গেলে তামিম হাসান আকাশ নিজের পকেট থেকে ছুরি বের করে তার ওপরও চড়াও হন। পরে উপস্থিত জনতা তাদের দুজনকে গণধোলাই দিয়ে আমাদি পুলিশ ক্যাম্পে সোপর্দ করেন।

আহত আইয়ুব আলীকে প্রথমে জায়গীর মহল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার পরদিন কয়রা থানায় হত্যা মামলা করেন লঞ্চ মাস্টার মো. আলমগীর মোল্লা। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা একই বছরের ৩০ নভেম্বর রায়হান সরদারকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।