রোববার   ০৫ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ২১ ১৪২৬   ১১ শা'বান ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসা না দিলেই ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আজ থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান করোনায় খাদ্য ঘাটতি হবে না : কৃষিমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখ‌ছেন প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ৬৪ জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কনফারেন্স পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ ভোলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নৌ-বাহিনীর টহল পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী
৬৫৬

সরকারি ভাবে শুরু হয়েছে ভোলায় আঞ্চলিক হাঁস প্রজনন খামার

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বর ২০১৮  


ভোলা প্রতিনিধি :
 ভোলা শহরের বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল বাসস্ট্যান্ডে’র উল্টো দিকে চরজংলা এলাকায় ২ একর জমির উপর প্রকল্পটির  নির্মান কাজ শেষ  পর্যায়। প্রানী সম্পদ মন্ত্রনালয়ের অধীনে এখানে হ্যাচারী, লেয়ার শেড, ডরমেটরি, অফিস ভবন, গুদাম ঘর, পাম্প হাউজ ইত্যাদীর কাজ শেষ হয়েছে। এখন হাঁস এর প্রজনন শুরু করার অপেক্ষায়।প্রজনন শুরু হলে  এখান থেকে বাচ্চা নিয়ে জেলার বেকার যুবকেরা ব্যাক্তিগত পর্যায়ে হাসের খামার করে কর্মসংস্থান করবেন।    
জেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আলমগীর  জানান, এই প্রকল্পের মাধ্যমে এই অঞ্চলের মানুষের হাঁসের বাচ্চা সংগ্রহের দুর্ভোগ কমবে। আগে দুর-দুরান্ত থেকে হাঁসের বাচ্চা ক্রয় করত হতো খামারীদের। এখন স্বল্প মূল্যে ও কম সময়ে নিজ জেলাতে পাওয়া যাবে উন্নত হাঁসের ডিম ও বাচ্চা। এর মাধ্যমে জেলায় ৫০০ জন হাঁস পালনকারীকে প্রশিক্ষনের দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ২০০ জনের প্রশিক্ষন সম্পন্ন হয়েছে। ফলে দক্ষ হয়ে উঠছে আমাদের খামারীরা।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, জেলায় ছোট-বড় মিলিয়ে প্রায় ২’শ ৫০ টি হাঁসের খামার রয়েছে। এর মধ্যে সাধারন হাঁসের সংখ্যা রয়েছে ১৩ লাখ ৬৩ হাজার ৬৬৮ টি ও রাজহাঁস রয়েছে প্রায় ২ লাখ। এই খামারে প্রজননের মাধ্যমে উন্নত মানের ডিম বিক্রি করা হবে। ডিম কিনে চাষিরা নিজেরা বাচ্চা ফুটাতে পারবে। এছাড়া এখানে একসাথে প্রায় ১২ হাজার বাচ্চা উৎপাদন করার ব্যবস্থা থাকবে। খামারীরা চাইলে বাচ্চা কিনেও প্রতিপালন করতে পারবে। আর প্রানী সম্পদ অধিদপ্তর থেকে সব ধরনের সহায়তা দেওয়া হবে হাঁস পালনকারীদের।
প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা আরো বলেন, এই প্রকল্পে ইতোমধ্যে প্রায় ৩ কোটি টাকার ব্যায়ে এই অবকাঠামো নির্মান করা হয়েছে। সামনের দিকে আরো কিছু কাজ চলমান আছে।  বর্তমানে শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে এর কার্যক্রম। আগামি কয়েক মাসের মধ্যেই এখান থেকে হাঁসের বাচ্চা উৎপাদন করা হবে। এছাড়া সম্পুর্ন সরকারিভাবে বিনামুল্যে মানুষের কাছে হাঁসের বাচ্চা বিতরনেরও পরিকল্পনা রয়েছে । 
 

এই বিভাগের আরো খবর