• বুধবার   ০৮ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৫ ১৪২৬

  • || ১৪ শা'বান ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
নিয়োগ পেলেন নতুন আইজিপি বেনজীর, র‌্যাব মহাপরিচালক মামুন মাজেদের মৃত্যু পরোয়ানা জারি যারা সাহায্য চাইতে পারবে না তাদের তালিকা করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী দেশে করোনায় আরও ৫ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত বেড়ে ১৬৪ কারাগারে বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনি ক্যাপ্টেন মাজেদ বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি ক্যাপ্টেন মাজেদ আদালতে বঙ্গবন্ধু হত্যা: আত্মস্বীকৃত খুনি ক্যাপ্টেন মাজেদ গ্রেফতার চিকিৎসকরা কেন চিকিৎসা দেবে না, এটা খুব দুঃখজনক : প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নীতিমালা করার নির্দেশ রমজানে সরকারি অফিস ৯টা থেকে সাড়ে ৩টা প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়ন হলে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবে: অর্থমন্ত্রী করোনা: ৭৩ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসা না দিলেই ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আজ থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান করোনায় খাদ্য ঘাটতি হবে না : কৃষিমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখ‌ছেন প্রধানমন্ত্রী
২৪৮

সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে আসামিকে ধরল পুলিশ!

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১০ মার্চ ২০২০  

 

সাত সকালে ক্যাম্পাসে যাচ্ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদালয়ের (জবি) নাট্যকলা বিভাগের এক ছাত্রী। কবি নজরুল কলেজের পেছনের সড়কে আসার পর বাইকে আসা এক বখাটে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে চলে যায়। ওই ঘটনায় মামলা করে মেয়েটি। পরে আশপাশের প্রায় শতাধিক সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পর্যালোচনা করে মূল আসামি আনুকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

রবিবার সন্ধ্যায় তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন সূত্রাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াজেদ। উদ্ধার করা হয় ঘটনার সময় ব্যবহৃত মোটরসাইকেল। গ্রেফতার হওয়া আনু খুন, ডাকাতিসহ আরও চার মামলার আসামি বলে জানিয়েছেন কাজী ওয়াজেদ।

সূত্রাপুরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, ঘটনার আগের দিন রাতভর মদপান করে সকালে দূর সম্পর্কের ভাগিনাকে নিয়ে মোটরসাইকেল নিয়ে বের হয় অনু। অনেকটা হিরোইজম ভাব নিয়ে ছুটতে থাকে সাতসকালে। হঠাৎ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী সামনে পড়লে চলন্ত অবস্থাতেই তার শ্লীলতাহানি ঘটায় তারা।
এই ঘটনায় চুপ করে না থেকে মেয়েটি প্রতিবাদ করায় ধন্যবাদ জানান তিনি। কারণ সে অজ্ঞাতনামা দুজনকে আসামি করে মামলা করেন।

কিভাবে আসামি গ্রেফতার তা জানিয়ে কাজী ওয়াজেদ বলেন, ঘটনার পর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ঘটনাটি পুলিশকে জানায়। কিন্তু ঘটনায় জড়িতদের কোনো কুলকিনারা পাওয়া যাচ্ছিলো না। পরে উধ্বর্তন কর্তকর্তারাও সবাই যুক্ত হন ঘটনা উদঘাটনে। কিন্তু কোনোভাবেই রহস্য উদঘাটন করা যাচ্ছিলো না। প্রায় ১০০টি সিসি ক্যামেরা ফুটেজ পর্যালোচনা করা হয়। প্রযুক্তিগত তদন্তে পরে রহস্য উদঘাটন হয়।

অপরাধ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর