• শনিবার   ০৬ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২২ ১৪২৭

  • || ২২ রজব ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
করোনার টিকা নিলেন প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়নে গবেষণা ও বিজ্ঞানের বিবর্তন অপরিহার্য: প্রধানমন্ত্রী সীমান্তে হত্যাকাণ্ড দুঃখজনক: জয়শঙ্কর ২৪ ঘণ্টায় আরও সাতজনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬১৯ বিএনপি এখন মায়াকান্না করছে: কাদের ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৬১৪ সুন্দরবনে বিষ দিয়ে মাছ ধরা বন্ধ করতে হবে: বনমন্ত্রী ৪ কোটি ডোজ করোনার টিকা সংগ্রহ করা হবে: জাহিদ মালেক ১০ বছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে শীর্ষে বাংলাদেশ: অর্থমন্ত্রী মানুষকে খাদ্য সরবরাহ-সময়মতো ভ্যাকসিন দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৭, শনাক্ত ৫১৫ মুক্তিযুদ্ধকে অসম্মান করেছে বিএনপি: সেতুমন্ত্রী ঢাবির ১২ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কার দেশবিরোধী একটি মহল সরকার হটানোর ষড়যন্ত্র করছে: কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৮, শনাক্ত ৫৮৫ মুশতাকের মৃত্যুর কারণ তদন্তে বেরিয়ে আসবে: তথ্যমন্ত্রী আজ থেকে ২ মাস ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধ প্রেস ক্লাবে চরম ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে পুলিশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বেসরকারি চিকিৎসা সেবা ব্যয় নির্ধারণ শিগগিরই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাটকা সংরক্ষণে কাল থেকে ৬ জেলায় মাছ ধরা নিষিদ্ধ

সেদিন গণভবনের দরজা ছিল অবারিত

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৬ জানুয়ারি ২০২১  

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর অসীম ধৈর্য দেখে অবাক হতে হয়। অবাক হতে হয় তার সুবিশাল আর স্নেহপরায়ন হৃদয়কে উপলব্ধি করে। ১৯৭৩ সালের এ দিন ছিল ঈদুল আজহা। ঈদের দিনে শতশত গরিব-দুঃখীকে হৃদয়ের উষ্মতা দিয়ে ঈদ মোবারক জানান বঙ্গবন্ধু। কোলাকুলি করেন, খোঁজখবর নেন। সেদিন গণভবনের দরজা ছিল অবারিত। সর্বস্তরের মানুষ বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আসেন। কারও হাতে ছিল ফুলের মালা। তাদের সকলের বুকভরা ছিল জাতির পিতার জন্য অপরিসীম ভালোবাসা। সারাদিন বঙ্গভবন সাধারণ মানুষের আনাগোনায় ভরপুর ছিল। সকালে নামাজের পরপরই রাষ্ট্রপতিও জাতির পিতাকে ঈদ মোবারক জানাতে আসেন। এছাড়া আসেন গণপরিষদের স্পিকার মোহাম্মদ উল্লাহ, মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা, রাজনৈতিক নেতারা এবং  গণপরিষদ সদস্যরা। ধানমন্ডিতে ঈদের জামাত শেষ করে বাসায় ফিরে সেখানে উপস্থিত পুলিশ ও নিরাপত্তা ব্যবস্থার দায়িত্বে থাকা কর্মচারীদের শুভেচ্ছা জানান বঙ্গবন্ধু। গাড়ি থেকে নেমে তিনি কুশল বিনিময় করেন। এর আগে ধানমন্ডি ময়দানে নামাজ শেষে অসংখ্য ব্যক্তির সঙ্গে বঙ্গবন্ধু কোলাকুলি করেন। আর ভিড়ের কারণে যারা বঙ্গবন্ধুর কাছে পৌঁছাতে পারেননি, তাদের দিকে হাত নেড়ে তিনি শুভ কামনা জানান।

 

ঈদের আনন্দ উদযাপন

বিপুল উৎসাহ ও আনন্দের মধ্য দিয়ে এই দিনে ঢাকাসহ সারা দেশে পবিত্র ঈদ-উল-আজহা পালিত হয়। প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয় পল্টন ময়দানে। রাষ্ট্রপতি বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী এই জামাতে উপস্থিত ছিলেন। বরাবরের মতো প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ধানমন্ডির মাঠে  নামাজে অংশ নেন। এ দিন ঈদ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির আবাস বঙ্গভবন ও প্রধানমন্ত্রীর আবাস গণভবন সারাদিন জনসাধারণের জন্য অবারিত ছিল। সাধারণ মানুষ রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীকে ঈদ মোবারক জানায়। লালবাগ শাহী মসজিদসহ বিভিন্ন স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিটি জামাতে বাংলাদেশের প্রগতি, জাতির পিতার দীর্ঘায়ু ও যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলার মানুষের সুখ সমৃদ্ধির কথা উল্লেখ করা হয়। পাকিস্তানে আটক বাঙালিদের স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের কামনা করে সর্বশক্তিমান আল্লাহর কাছে মোনাজাতও করা হয়।

ইদগাহে লোক  ছিল কম

এবারের ঈদে বিভিন্ন জামাতে লোক সমাগম অন্যান্য বারের তুলনায় কম হয়। সরকার তিন দিনের সরকারি ছুটি ঘোষণা করায় ঈদের তিন দিন আগে থেকে ঢাকায় বসবাসকারী  চাকরিজীবীরা দেশের বাড়ি যেতে শুরু করেন। ফলে বাস, ট্রেন, লঞ্চ ও স্টিমারগুলো ছিল অতিরিক্ত ভিড়াক্রান্ত।

রাষ্ট্রপতি বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী গণভবনে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়

সম্প্রতি বাংলাদেশে বেকার বাস্তুহারা সমিতির শাহজাহানপুর আঞ্চলিক শাখা বঙ্গবন্ধুর প্রতি অকুণ্ঠ সমর্থন জানায় এবং যারা বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করছে, তাদেরকে ক্ষমা প্রার্থনার আহ্বান জানায়। এই সভায় সভাপতিত্ব করেন সমিতির সভাপতি মো. ইউনুছ মিয়া। সমিতির সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব আলী মিয়া জানান যে, জাতির জনকের নির্দেশে সকল বাস্তুহারাকে পুনর্বাসনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। সমিতির এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। গণআদালতের রায়ের প্রতি সম্মান দেখাতে হবে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী অধ্যাপক ইউসুফ আলী বলেন যে, সরকার উত্তর বাংলার বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে সচেতন রয়েছে এবং প্রতিটি সমস্যার সমাধান করা হবে।’ সকালে ঢাকার পথে রওনার সময় তিনি আরও বলেন, ‘এরই মধ্যে সরকার অগ্রাধিকার ভিত্তিতে উত্তর বাংলায় বহু সমস্যার সমাধান করেছে এবং বাকি সমস্যাগুলো সমাধান হবে। সরকার উত্তরাঞ্চলের তথা দেশের অন্যান্য অঞ্চলের জনগণকে আরও সুযোগ-সুবিধা দিতে সচেষ্ট রয়েছে। উত্তরা গণভবনের মাধ্যমে নিকট ভবিষ্যতে শাসনতান্ত্রিক সকল অসুবিধা দূর করা হবে।’ সরকারের সম্পদ সীমাবদ্ধ বলে তিনি জনগণের প্রতি ধৈর্য ধারণের আহ্বান জানান।

মহাসচিব আসছেন

জাতিসংঘের সেক্রেটারি জেনারেল কুর্ট ওয়াল্ডহেইম ১০ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় আসবেন। তার যে সফর সূচি ঘোষণা করা হয়েছে, তাতে এর উল্লেখ আছে। ঢাকায় অবস্থানকালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন তিনি। ঢাকা পৌঁছার আগে পশ্চিম পাকিস্তান সফর করবেন। নয়া দিল্লিতে তিনি চার দিন অবস্থান করবেন।