• শুক্রবার   ২৩ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ৯ ১৪২৮

  • || ১০ রমজান ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
মেট্রোরেলের অগ্রগতি ৬১ শতাংশ : কাদের ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল ৭ দিনের রিমান্ডে সম্মিলিত প্রয়াসে করোনা একদিন পরাজিত হবে: কাদের দেশে করোনায় আরও ৯৫ প্রাণহানি প্রকৌশলে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি আবেদন শুরু ২৪ এপ্রিল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘটনায় আরও ১১ জন গ্রেফতার চুক্তিভিত্তিক বিয়ের বৈধতা নেই: হক্কানী আলেম সমাজ করোনায় প্রাণ গেল আরও ৯১ জনের নারায়ণগঞ্জকাণ্ডে মামুনুলের সম্পৃক্ততা আছে: সিআইডি বিএনপির আমলে যে সার ৯০ টাকা ছিল আজ তা ১২ টাকা : প্রধানমন্ত্রী করোনায় দেশে ১১২ জনের মৃত্যু হেফাজত নেতা মামুনুল ৭ দিনের রিমান্ডে করোনায় দেশে ১০২ জনের মৃত্যু লকডাউনে ১ কোটি ২৫ লাখ পরিবার পাবে খাদ্য সহায়তা: কাদের হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক গ্রেফতার করোনায় দেশে আজও শতাধিক মৃত্যু হেফাজত নেতা জুবায়ের পাঁচদিনের রিমান্ডে হেফাজত নেতা মাওলানা জালাল গ্রেফতার দেশে করোনায় মৃত্যু ১০ হাজার ছাড়াল সরবরাহ কম থাকায় চালের দাম বেশি : অর্থমন্ত্রী

স্বল্প পরিসরে কাজ চলছে পাসপোর্ট অফিসগুলোতে

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৭ এপ্রিল ২০২১  

করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী স্বল্প পরিসরে পাসপোর্ট অফিসগুলোতে কাজ চলছে। সাধারণ মানুষ যাতে ভোগান্তির শিকার না হয় সেজন্য বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদফতর থেকে সারাদেশের পাসপোর্ট অফিসগুলোকে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সোমবার (৫ এপ্রিল) থেকে লকডাউন শুরুর পর পাসপোর্ট অফিসগুলোতে মানুষের চাপও কম ছিল বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

পাসপোর্ট অধিদফতরের কর্মকর্তারা জানান, দেশে করোনা সংক্রমণ শুরু হলে ২০২০ সালের ২৩ মার্চ থেকে নতুন পাসপোর্টের আবেদন গ্রহণ ও বিতরণের সব ধরনের কাজ বন্ধ করে দিয়েছিল কর্তৃপক্ষ। এরপর ওই বছরের ৩১ মে থেকে সীমিত আকারে অফিস কার্যক্রম চালুর পর শুধু রি-ইস্যু পাসপোর্ট বিতরণ শুরু করে তারা। পরে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসার পর অন্যান্য অফিসের মতো পাসপোর্ট অফিসের কার্যক্রম চলতে থাকে।

একবছর পর করোনা পরিস্থিতি অবনতি হলে সোমবার (৫ এপ্রিল) থেকে আবারও শর্তসাপেক্ষে এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করে সরকার। জরুরি সেবা ছাড়া সব সরকারি-বেসরকারি অফিস অর্ধেক জনবল দিয়ে পরিচালনা করারও একটি শর্ত রয়েছে। যেহেতু পাসপোর্ট অধিদফতর জরুরি সেবার বাইরে সেজন্য সরকারের লকডাউনের সেই শর্ত অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক জনবল দিয়ে পাসপোর্ট অফিসগুলোতেও স্বল্প পরিসরে কাজ চলছে। কারণ, পাসপোর্টের আবেদনকারীকে পাশে নিয়ে আঙুলের ছাপ ও ছবি তুলতে হয়। এটা করতে গিয়ে দায়িত্বরত যে কেউ আক্রান্ত হতে পারেন। সেজন্যই এখন সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে জরুরি পাসপোর্টের কাজ করা হচ্ছে।

বগুড়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক মো. আবজাউল আলম জানান, প্রধান অফিসের নির্দেশনা অনুযায়ী স্বল্প পরিসরে তারা কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। কোনও সমস্যা হচ্ছে না।

সাতক্ষীরা আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক মো. সাহজাহান কবির জানান, তারাও অর্ধেক জনবল দিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ চালিয়ে নিচ্ছেন। লকডাউনের কারণে মানুষ এসে ফিরে যাচ্ছেন এমনটাও নয়। তুলনামূলক কাজের চাপও কম। যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকার কারণেও হতে পারে।

লকডাউনের মধ্যে পাসপোর্ট অফিসগুলোর কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে চাইলে বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আইয়ুব চৌধুরী বলেন, সরকারের নির্দেশনা যেটা দেওয়া হয়েছে সে অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে সারাদেশের অফিসগুলোতে স্বল্প পরিসরে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন তারা। আগারগাঁওয়ে সাত-আটজনকে দিয়ে কাজ চালানো হচ্ছে। তিনি বলেন, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী পাসপোর্ট জরুরি সেবার আওতায় পড়েনি। কিন্তু মানুষের কথা চিন্তা করে স্বল্প পরিসরে কাজ চালানো হচ্ছে। কারণ, অনেকের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে। বিদেশ যেতে হবে। এমন জরুরিগুলোই করা হচ্ছে। এ বিষয়ে একটি মহাপরিচালকের পক্ষ থেকে আদেশ দেওয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান।