রোববার   ০৫ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ২১ ১৪২৬   ১১ শা'বান ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসা না দিলেই ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আজ থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান করোনায় খাদ্য ঘাটতি হবে না : কৃষিমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখ‌ছেন প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ৬৪ জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কনফারেন্স পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ ভোলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নৌ-বাহিনীর টহল পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী
৯২

হাসপাতালে ব্যবহৃত মাস্ক ধুয়ে বিক্রি করার চক্র আটক

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৮ মার্চ ২০২০  

হাসপাতালের ব্যবহৃত মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস সংগ্রহের পর ধুয়ে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করাই তাদের ব্যবসা। প্রতিদিন সরকারি ও প্রাইভেট হাসপাতালের অসাধু নার্স ও কর্মচারীদের নামমাত্র মূল্য দিয়ে ব্যবহৃত মাস্ক সংগ্রহ করতো তারা। গাজীপুরের টঙ্গীতে এমন অভিযোগে দু'জনকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৮ মার্চ) বিকেলে টঙ্গীর স্টেশন রোড এলাকার আবেদ আলীর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ব্যবহৃত মেডিকেল সামগ্রী উদ্ধার ও দু'জনকে আটক করে পুলিশ। আটকরা হলেন- ইউসুফের ছেলে ইমরান (৪৫) ও জসিম উদ্দিনের ছেলে লাল মিয়া (৪৫)। তাদের স্থায়ী ঠিকানা জানাতে পারেনি পুলিশ।

তারা দুই মাস আগে আবেদ আলীর বাড়িতে ভাড়ায় উঠে। সেখানে পরিত্যক্ত মেডিকেল সামগ্রী রাখার একটি গোডাউন রয়েছে। এটির মূল মালিক গোপালগঞ্জের মোকছেদপুর থানার মন্ডলগাছি এলাকার আব্দুর রউফের ছেলে মো. নাসির মিয়া (৪০)। তার ঘরের তালা ভেঙে এসব সামগ্রী উদ্ধার করা হলেও তাকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

টঙ্গী পূর্ব থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শুভ মন্ডল বলেন, এই চক্রটি টঙ্গী, গাজীপুর ও উত্তরাসহ আশপাশের অঞ্চলের সরকারি ও প্রাইভেট হাসপাতালের অসাধু নার্স ও কর্মচারীদের নামমাত্র মূল্য দিয়ে ব্যবহৃত মাস্ক, স্যালাইনের (ইনজেকশন) উপাদান, হ্যান্ড গ্লাভস ও মেয়াদ উত্তীর্ণ কেমিক্যাল সংগ্রহ করতো। এরপর মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে রোদে শুকানো হতো। পরে আয়রন করে বিভিন্ন অঞ্চলে নতুন বলে চড়া দামে বিক্রি করা হতো।

তিনি আরও বলেন, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে প্রায় আড়াই বস্তা মাস্ক, বিপুল পরিমাণ স্যালাইনের উপাদান, রক্তমাখা হ্যান্ড গ্লাভস ও ছয় বোতল মেয়াদ উত্তীর্ণ কেমিক্যাল উদ্ধার করা হয়েছে।

অভিযানকারী এই এসআই বলেন, পরিত্যাক্ত মেডিকেল সামগ্রীর ব্যবসাটি মূলহোতা নাছির। অন্য দু'জন সেখানে কাজ করে। করোনা ভাইরাসের কারণে মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভসের চাহিদা বাড়ায় তারা বেশি সোচ্চার হয়েছিল। তাদের বিরুদ্ধে ভেজাল দ্রব্য বিক্রি করে মানুষের ক্ষতি সাধন করায় ভোক্তা সংরক্ষণ আইনে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

এই বিভাগের আরো খবর