মঙ্গলবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১২ ১৪২৬   ০১ রজব ১৪৪১

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
রিফাত হত্যা মামলার আসামি সিফাতের বাবা গ্রেফতার কুষ্টিয়ায় জগো বাহিনীর প্রধানের ফাঁসি, ১১ জনের যাবজ্জীবন এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ করোনামুক্ত: আইইডিসিআর লোভ-লালসার ঊর্ধ্বে থেকে দায়িত্ব পালন করতে বললেন রাষ্ট্রপতি নাঈমুল আবরার হত্যা : ৪ আসামিকে গ্রেফতারের নির্দেশ আইন মেনেই বিদেশি কম্পানিকে এদেশে ব্যবসা করতে হবে- প্রধান বিচারপতি অপ্রাপ্তবয়স্ক চার কোটি নাগরিককে এনআইডি দেবে ইসি বাকি এক হাজার কোটি টাকা তিন মাসের মধ্যে দিতে গ্রামীণফোনকে নির্দেশ পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ
৩৭০

২০১৯ সালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি ৮৫ দিন

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৮ নভেম্বর ২০১৮  

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ২০১৯ সালের জন্য শিক্ষাপঞ্জি (একাডেমিক ক্যালেন্ডার) প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে সরকারি-বেসরকারি মাধ্যমিক ও নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোর ৮৫ দিন ছুটি ঘোষণা করা হয়।

গত রোববার প্রকাশিত এ তালিকায় ক্লাস-পরীক্ষা ও ফল প্রকাশের তারিখও উল্লেখ করা হয়েছে।

শিক্ষাপঞ্জিতে বলা হয়েছে, সাপ্তাহিক ছুটি শুক্রবার ছাড়া বছরে মোট ছুটি ৮৫ দিন। সরকার যে সব দিনকে সাধারণ ছুটি (পাবলিক হলিডে) এবং নির্বাহী আদেশে সরকারি ছুটি বলে ঘোষণা করা হবে সেসব দিন ওই ৮৫ দিনের অন্তর্ভুক্ত হবে। শিক্ষাপঞ্জিতে বিভিন্ন পর্বে ৮২ দিন এবং প্রধান শিক্ষকের সংরক্ষিত তিন দিনসহ মোট ৮৫ দিন ছুটি রাখা হয়েছে।

শিক্ষাবর্ষ হবে ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর। প্রথম কর্মদিবস অর্থাৎ ১ জানুয়ারি পাঠ্যপুস্তক দিবস হিসেবে উদযাপিত হবে বলে একাডেমিক ক্যালেন্ডারে বলা হয়েছে। এছাড়া বিদ্যালয়ে সংবর্ধনা বা পরিদর্শন উপলক্ষ্যে ক্লাস বন্ধ না করার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের রাস্তায় দাঁড় করাতে নিষেধ করা হয়েছে।

আগামী বছরের ২২ জুন থেকে ৪ জুলাই (১২ দিন) অর্ধ-বার্ষিক/প্রাক নির্বাচনী পরীক্ষা এবং ২০ জুলাই ফল প্রকাশ, নির্বাচনী পরীক্ষা ১৪ অক্টোবর থেকে ২৯ অক্টোবর (১২ দিন) এবং ফলাফল প্রকাশ ৭ নভেম্বর। আর বার্ষিক পরীক্ষা ২৭ নভেম্বর থেকে ১১ ডিসেম্বর (১২ দিন) গ্রহণ করে ৩০ ডিসেম্বর ফল প্রকাশের দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষার গুণগত মান বাড়াতে পরীক্ষার সময়সূচি মোতাবেক অর্ধ-বার্ষিক, নির্বাচনী ও বার্ষিক পরীক্ষা গ্রহণ নিশ্চিত করবে। বার্ষিক পরীক্ষার উত্তরপত্র অন্তত এক বছর সংরক্ষণ করতে হবে। প্রতি পরীক্ষার সময়কাল ১৪ দিনের বেশি হবে না বলে একাডেমিক ক্যালেন্ডারে বলা হয়েছে।

উল্লেখযোগ্য ছুটির মধ্যে গ্রীষ্মকালীন অবকাশ, রমজান, বুদ্ধ পূর্ণিমা, জুমাতুল বিদা, শব-ই-বরাত ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ৬ মে থেকে ১৩ জুন পর্যন্ত ৩৪ দিন।

আগামী বছর ঈদুল আযহা, জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ৮ আগস্ট থেকে ১৯ আগস্ট ১০ দিন; দুর্গাপূজা, প্রবারণা পূর্ণিমা ও লক্ষ্মী পূজা উপলক্ষে ৪ অক্টোবর থেকে ১৩ অক্টোবর ৮ দিন এবং শীতকালীন অবকাশ, বিজয় দিবস, যিশু খ্রিস্টের জন্মদিন বা বড়দিন উপলক্ষে ১৫ ডিসেম্বর থেকে ২৯ ডিসেম্বর ১৩ দিন।

জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ দিবস যথা: ২১ ফেব্রুয়ারি, ১৭ মার্চ, ২৬ মার্চ, ১৫ আগস্ট ও ১৬ ডিসেম্বর ক্লাস বন্ধ থাকবে। তবে সংশ্লিষ্ট দিবসের বিষয়ভিত্তিক বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিদ্যালয়ে দিবসটি উদযাপন করতে হবে।

এই বিভাগের আরো খবর