• বৃহস্পতিবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১৫ ১৪২৭

  • || ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৫০৯ আন্তঃরাষ্ট্রীয় সুসম্পর্ক বজায় রেখে এগিয়ে যাচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী তিন লাখ ভোটের ব্যবধানে চট্টলার ‘নগরপিতা’ হলেন রেজাউল টিকা কার্যক্রমে ঈদের মতো আনন্দঘন পরিবেশ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী আগে নিলে বলবে কাউকে দিলো না: প্রধানমন্ত্রী ৪০তম বিসিএসের ফল প্রকাশ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৫২৮ দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী: প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী চাল আমদানির ফলে বাজার স্থিতিশীল হয়েছে: কৃষিমন্ত্রী করোনার প্রথম টিকা নিলেন নার্স রুনু দেশে করোনা টিকা কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ৭ ফেব্রুয়ারি একযোগে টিকাদান কর্মসূচি শুরু: স্বাস্থ্যমন্ত্রী দেশে করোনায় ১৪ মৃত্যু, শনাক্ত ৫১৫ কারও ব্যবসায়িক স্বার্থে ভ্যাকসিন সংগ্রহ করেনি সরকার: কাদের দেশের প্রথম নৌপ্রধান ক্যাপ্টেন নুরুল হক আর নেই দেশে ফিটনেসবিহীন গাড়ি চার লাখ ৮১ হাজার: কাদের বৈধ পথে বাড়ছে রেমিট্যান্স: পলক করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৮, শনাক্ত ৬০২ চার ফিফটিতে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৯৭ সব জেলায় ৪-৫ দিনের মধ্যে ভ্যাকসিন পৌঁছে যাবে: পাপন

২১ দিনে রেকর্ড রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২০  

মহামারি করোনাভাইরাসের প্রার্দূভাবের মধ্যেও রেকর্ড সংখ্যক রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা।

পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরকে সামনে রেখে চলতি মে মাসের প্রথম ২১ দিনে ১১২ কোটি ১০ লাখ ডলার পাঠিয়েছে প্রবাসীরা। বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ প্রায় ৯ হাজার ৫২০ কোটি টাকা। গত এপ্রিলে ১০৮ কোটি ১০ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছিলেন প্রবাসীরা। কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

রেমিট্যান্সের এমন ঊর্ধ্বগতিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৩৩ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্রে আরও জানা যায়, গত মার্চে ১২৮ কোটি ৬৮ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স এসেছিল, যা গত বছরের মার্চ মাসের চেয়ে ১৩ দশমিক ৩৪ শতাংশ কম। পরের মাস এপ্রিলে রেমিট্যান্স আরও কমে ১০৮ কোটি ১০ লাখ ডলারে আসে। তবে মে মাসে চিত্র পাল্টাতে থাকে। 

প্রথম ১১ দিনে ৫১ কোটি ২০ লাখ ডলার রেমিট্যান্স আসে, ১৩ মে পর্যন্ত আসে ৬৮ কোটি ৮০ লাখ ডলার। ১৪ মে পর্যন্ত আসে ৮০ কোটি ডলার। ২১ মে পর্যন্ত ১১২ কোটি ১০ লাখ ডলারে পৌঁছে যায়। যদিও মহামারির প্রভাব শুরুর আগে রেমিট্যান্সে প্রবৃদ্ধি ২০ শতাংশের বেশি ছিল।

করোনার প্রভাবে বিশ্ব যখন সংকটে স্বাভাবিকভাবেই এর প্রভাব পড়বে এমনটাই আশঙ্কা করেছিল অর্থনীতিবিদসহ সংশ্লিষ্টরা। তবে এখনো বড় ধরণের নেতিবাচক প্রভাব পড়েনি রেমিট্যান্সে। গত বছরও রোজার ঈদের আগে মে মাসে ১৭৪ কোটি ৮২ লাখ ডলারের রেকর্ড রেমিট্যান্স এসেছিল।