• বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ৮ ১৪৩০

  • || ১০ শা'বান ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আগামীকাল মিউনিখ সম্মেলনে শেখ হাসিনাকে নিমন্ত্রণ বাংলাদেশের গুরুত্ব বুঝায় গুণীজনদের সম্মাননা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে : রাষ্ট্রপতি একুশে পদকপ্রাপ্তদের অনুসরণ করে তরুণরা সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবে আজ একুশে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সফর শেষে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী বরই খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, কারণ অনুসন্ধান করবে আইইডিসিআর দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের উপযুক্ত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা: শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ নেদারল্যান্ডস, যুক্তরাজ্য, আজারবাইজান থেকে বড় বিনিয়োগ আহ্বান জার্মান চ্যান্সেলরের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক শান্তি ফর্মুলা বাস্তবায়নে শেখ হাসিনার সহযোগিতা চাইলেন জেলেনস্কি কাতারের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন শেখ হাসিনা কিছু খুচরো দল তিড়িং বিড়িং করে লাফাচ্ছে: শেখ হাসিনা মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে বিশ্বনেতাদের অভিনন্দন

ময়লার ভাগাড়ে মিলল তরুণীর লাশ

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৭ ডিসেম্বর ২০২৩  

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় ময়লার ভাগাড় থেকে কম্বল দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় রেখা খাতুন নামে এক তরুণীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া শহরের হাউজিং সি-ব্লকের ওয়াপদার পুরোনো গেটের সামনের ভাগাড় থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত রেখা খাতুন কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার নন্দলালপুর ইউনিয়নের বাখোই গ্রামের আব্দুর রহিম মেয়ে।

জানা যায়, বুধবার সন্ধ্যায় স্থানীয় কয়েকজন হাঁটাহাঁটির সময় রশি দিয়ে বাধা অবস্থায় একটি কম্বল দেখতে পান। সন্দেহ হলে তারা ৯৯৯-এ কল দেন। পরে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কম্বল খুলে অজ্ঞাত এক তরুণীর লাশ উদ্ধার করে। পরে লাশটি কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। এ ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে কুমারখালী উপজেলার নন্দলালপুর ইউনিয়নের বাখোই গ্রামের আব্দুর রহিম ও তার স্ত্রী মর্গে গিয়ে তাদের মেয়ে রেখা খাতুনকে শনাক্ত করেন।

নিহত রেখা খাতুনের বাবা আব্দুর রহিম জানান, তার মেয়ের সঙ্গে খুলনার হাফিজুর নামে এক ছেলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ২০ দিন আগে পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে দেওয়া হয়। হাফিজুর মাগুরায় একটি ঔষধ কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধি হিসেবে চাকরি করে। রেখা বিয়ের কয়েকদিন পর থেকে বাবার বাড়িতেই ছিল। বুধবার সকাল ৯টার দিকে সে কলেজে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। সন্ধ্যা হয়ে গেলেও বাড়ি ফেরেনি। পরে হাউজিং-এ একটি লাশ পাওয়ার কথা শুনে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে যায়। পরে দেখেন রেখার লাশ পড়ে আছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি সোহেল রানা জানান, ৯৯৯-এ কল পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরে রশি খুলে কম্বলে মোড়ানো অবস্থায় ঐ তরুণীর লাশ উদ্ধার করা হয়। খবর পেয়ে ঐ তরুণীর মা-বাবা এসে লাশ শনাক্ত করেন।

ওসি আরো জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে- ঐ তরুণীকে শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশ ফেলে রাখা হয়েছে। পুলিশ এরিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।