• বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ৮ ১৪৩০

  • || ১০ শা'বান ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আগামীকাল মিউনিখ সম্মেলনে শেখ হাসিনাকে নিমন্ত্রণ বাংলাদেশের গুরুত্ব বুঝায় গুণীজনদের সম্মাননা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে : রাষ্ট্রপতি একুশে পদকপ্রাপ্তদের অনুসরণ করে তরুণরা সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবে আজ একুশে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সফর শেষে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী বরই খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, কারণ অনুসন্ধান করবে আইইডিসিআর দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের উপযুক্ত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা: শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ নেদারল্যান্ডস, যুক্তরাজ্য, আজারবাইজান থেকে বড় বিনিয়োগ আহ্বান জার্মান চ্যান্সেলরের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক শান্তি ফর্মুলা বাস্তবায়নে শেখ হাসিনার সহযোগিতা চাইলেন জেলেনস্কি কাতারের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন শেখ হাসিনা কিছু খুচরো দল তিড়িং বিড়িং করে লাফাচ্ছে: শেখ হাসিনা মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে বিশ্বনেতাদের অভিনন্দন

বগুড়ায় শুরু ইজতেমা

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৭ ডিসেম্বর ২০২৩  

ফজরের পর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে বগুড়ার ধুনটে তিন দিনব্যাপী ৪৫তম ইজতেমা শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়নের সরুগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ ইজতেমা শুরু হয়।

উদ্বোধনী বয়ান পেশ করেন ঢাকার কাকরাইল মসজিদের মুরুব্বি হজরত মাওলানা মুফতি রেজাউল করিম। ইজতেমা ময়দানে হাজার হাজার মুসল্লির আগমন ঘটেছে। ইজতেমা মাঠের আশপাশের এলাকায় শীতের পোশাক, খাবারের দোকান ও কাঁচা বাজারের ব্যবস্থা রয়েছে।

ইজতেমা আয়োজক কমিটির সদস্য হুমায়ন কবির বলেন, অন্য বছরের মতো এবারও কাকরাইল মসজিদের মেহমানদের তত্ত্বাবধানে ইজতেমা পরিচালিত হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন এলাকা ছাড়াও সৌদি আরব, শ্রীলঙ্কা, মালয়েশিয়ার মুসল্লিরা ইজতেমায় যোগ দিয়েছেন। আগামী শনিবার সকালে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে ইজতেমা শেষ হবে।

ধুনট থানার ওসি রবিউল ইসলাম বলেন, ইজতেমা ময়দানের চারপাশে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ইজতেমাস্থলে পুলিশ কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা রয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব, আনসার ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরাও নিয়োজিত রয়েছেন। ইজতেমাস্থলে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে মেডিকেল টিম কাজ করছে।