• বৃহস্পতিবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৮

  • || ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
আইন করলে হবে না, মানসিকতাও বদলাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী নারীর প্রতি দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর তরুণ প্রজন্মকে প্রস্তুত করার ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর বেগম রোকেয়া ছিলেন দূরদৃষ্টিসম্পন্ন আধুনিক নারী রোকেয়া শুধু নারী শিক্ষার অগ্রদূত না, বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী খালেদা জিয়াকে যথেষ্ট উদারতা দেখিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী ফোর্বসের ১০০ ক্ষমতাধর নারীর তালিকায় শেখ হাসিনা নেপাল ও ভুটানে জলবিদ্যুৎ উৎপাদন করে উপকৃত হবে ঢাকা-দিল্লী মালিক ও শ্রমিকের মধ্যে সুসম্পর্ক থাকতে হবে : প্রধানমন্ত্রী শ্রমজীবী মহিলা হোস্টেলসহ ৮ স্থাপনার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ড দিলেন প্রধানমন্ত্রী করোনার প্রভাব মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা দরকার- প্রধানমন্ত্রীর মেঘনা নামে কুমিল্লা ও পদ্মা নামে ফরিদপুর বিভাগ হবে: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতের সম্পর্ক আরো দৃঢ় করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বিশ্ব শান্তি সম্মেলনে ‘ঢাকা শান্তি ঘোষণা’ গৃহীত শান্তিপূর্ণ বিশ্ব গড়তে সম্পদ ব্যবহার করুন: প্রধানমন্ত্রী ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প গড়ে তোলার তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর দেশবাসীকে শপথ করানোর প্রস্তুতি নিতে নির্দেশনা উপকূলীয় এলাকার ৫৩ শতাংশ জমি সরাসরি লবণাক্ততায় আক্রান্ত

বিদেশফেরত ৩০ লাখ যাত্রীর হেলথ স্ক্রিনিং সম্পন্ন

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৭ অক্টোবর ২০২১  

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমে এলেও অন্য দেশ থেকে দেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে বিভিন্ন বন্দরে (বিমান, স্থল, সমুদ্র ও রেলওয়ে স্টেশন) বিদেশফেরত যাত্রীদের হেলথ স্ক্রিনিং অব্যাহত রয়েছে।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহান প্রদেশে করোনার সংক্রমণ দেখা দেয়। এক কয়েক মাস পরই ২০২০ সালের ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর বিদেশে থেকে বিভিন্ন বন্দরে আসা যাত্রীদের হেলথ স্ক্রিনিং (হেলথ কার্ড পূরণের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ ও জ্বর পরিমাপ ইত্যাদি) শুরু হয়।

ওই সময় থেকে গতকাল মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন বিমানবন্দর, স্থল, সমুদ্র ও রেলওয়ে স্টেশনে সর্বমোট ২৯ লাখ ৮৫ হাজার ৫৮০ জনের হেলথ স্ক্রিনিং হয়েছে। এর মধ্যে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরগুলোতে ২২ লাখ ৭৭ হাজার ৭১১ জন, স্থলবন্দরে পাঁচ লাখ ৯০ হাজার ১১৯ জন, সমুদ্রবন্দরে এক লাখ ১০ হাজার ৭২১ জন ও রেলওয়ে স্টেশনে সাত হাজার ২৯ জনের হেলথ স্ক্রিনিং হয়েছে।

সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরগুলোতে ছয় হাজার ২২৫ জন, স্থল বন্দরে এক হাজার ২৭ জন এবং সমুদ্রবন্দরে এক হাজার ২৭ জনের হেলথ স্ক্রিনিং হয়।

হেলথ স্ক্রিনিং শেষে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী, কাউকে হোম কোয়ারেন্টাইন কিংবা প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়।

মাস দেড়েক আগেও বিপুল সংখ্যক বিদেশফেরত যাত্রীকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে যেতে হতো। কিন্তু বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনার দুই ডোজ টিকা নিয়ে দেশে আসা যাত্রীর সংখ্যা বেশি হওয়ায় এখন হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের হেলথ ডেস্ক জানায়, সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় ৪০টি ফ্লাইটে পাঁচ হাজার ৮৪৯ জন যাত্রী আসেন। তাদের সবাইকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।