• রোববার   ২২ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৯

  • || ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
রূপপুর মেটাবে বিদ্যুতের চাহিদা, দেবে লাভও দ্রব্যমূল্য নিয়ে ৩ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ৪ দফা প্রস্তাব অবিলম্বে বৈশ্বিক সরবরাহ চেইন স্বাভাবিক করার আহ্বান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিবেশবান্ধব: প্রধানমন্ত্রী খালেদাকে পদ্মায় ফেলতে আর ইউনূসকে চুবিয়ে তুলতে বললেন শেখ হাসিনা কক্সবাজার হবে আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের রিফুয়েলিং পয়েন্ট কক্সবাজারে যত্রতত্র স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারে কউক’র নতুন ভবনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর টোল নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি আওয়ামী লীগ সরকার আছে বলেই সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে- প্রধানমন্ত্রী ওপেনিংয়ে চতুর্থ সেরা জুটি গড়ে ফিরলেন জয়, তামিমের সেঞ্চুরি নিত্যপণ্যের দাম কেন চড়া, জানালেন প্রধানমন্ত্রী স্বদেশ প্রত্যাবর্তন: শেখ হাসিনা দেশের মানুষের শেষ ভরসাস্থল শেখ হাসিনা বাঙালি জাতির নিরাপদ আশ্রয়স্থল শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ইতিহাসে মাইলফলক: রাষ্ট্রপতি চার দশকেরও বেশি সময় শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে আ.লীগ উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি খাদ্য সাশ্রয় করুন: প্রধানমন্ত্রী সবাই স্বাধীনভাবে সরকারের সমালোচনা করতে পারে: প্রধানমন্ত্রী টাকা অপচয় করা যাবে না: প্রধানমন্ত্রী

পরীক্ষা ছাড়াই সিজার, মারা গেল মা-সন্তান

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০২২  

ঠাকুরগাঁওয়ে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় নবজাতকসহ প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ভুল চিকিৎসার কারণেই তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি স্বজনদের।

মঙ্গলবার রাতে ‘একতা নার্সিং হোম’ ক্লিনিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম নাসিমা খাতুন। ৩০ বছর বয়সী নাসিমা ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার দেবীপুর ইউনিয়নের খইলসাকুরি গ্রামের বাসিন্দা।

স্বজনরা জানান, মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে সন্তানসম্ভবা নাসিমাকে ‘একতা নার্সিং হোম’ ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। এরপর কোনো ধরনের পরীক্ষা-নীরিক্ষা ছাড়াই তার সিজারিয়ান অপারেশন করা হয়। সিজারের পর মারা যায় শিশু সন্তানটি। এরপর তাৎক্ষণিক রোগীকে রংপুরে রেফার্ড করেন চিকিৎসক। পরে একটি অ্যাম্বুলেন্স এনে রোগীকে রেখে পালিয়ে যায় ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ।

ওই রোগীর সার্জারি চিকিৎসক ডা. জাহাঙ্গীর বলেন, বাচ্চা পেটেই মৃত ছিল এবং রোগীর বিপি পাওয়া যাচ্ছিল না। এমন অবস্থায় আইসিইউ প্রয়োজন হতে পারে ভেবে রোগীকে দ্রুত রংপুর মেডিকেল কলেজে রেফার্ড করি। কিন্তু স্বজনরা তাকে নিয়ে যেতে রাজি হননি। দ্রুত রংপুরে নিলে হয়তো রোগীটিকে বাঁচানো যেতো।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভিরুল ইসলাম বলেন, এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।