• মঙ্গলবার   ০৯ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৫ ১৪২৯

  • || ১০ মুহররম ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে বঙ্গমাতার মনোভাব প্রতিফলিত হয়েছে বঙ্গমাতার সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা স্বাধীনতার সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর সারথি ছিলেন আমার মা: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গমাতা কঠিন দিনগুলোতে ছিলেন দৃঢ় ও অবিচল: রাষ্ট্রপতি ফজিলাতুন নেছা মুজিব দৃঢ়চেতা-বলিষ্ঠ চরিত্রের অধিকারী ছিলেন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী আজ বাংলাদেশে সহায়তা অব্যাহত রাখবে চীন: ওয়াং ই চীনে ৯৯ শতাংশ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে বাংলাদেশ মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়েছি মায়ের দুধ শিশুর সর্বোত্তম খাবার: রাষ্ট্রপতি শেখ কামাল ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী: প্রধানমন্ত্রী শেখ কামাল ছিলেন ক্রীড়া ও সংস্কৃতিমনা সুকুমার মনোবৃত্তির মানুষ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের মর্যাদাকে সমুন্নত করবে যুবসমাজ ‘শেখ হাসিনার কাছ থেকে শিখুন’ ঘাতকরা আজও তৎপর, আমাকে ও আ’লীগকে সরাতে চায়: প্রধানমন্ত্রী বিচারকদের সততা-নিষ্ঠা নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে হবে: রাষ্ট্রপতি একনেকে ২ হাজার কোটি টাকার ৭ প্রকল্প অনুমোদন বাঁধ টেকসই করতে বেশি করে ঝাউগাছ লাগানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘আন্তর্জাতিক শান্তি পুরস্কার’ পেলো বাংলাদেশ বিএনপির আমলে মানুষের ভোটের অধিকার ছিল না: প্রধানমন্ত্রী

ইশতেহারে দেওয়া প্রতিশ্রুতি ভোলেনি সরকার: প্রধানমন্ত্রী

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৩ জুলাই ২০২২  

নির্বাচনের সময় জনগণের কাছে যেসব প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল ক্ষমতায় বসে সরকার যেসব প্রতিশ্রুতি ভুলে যায়নি বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (৩ জুলাই) মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি সই অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, সরকার যে মানুষের সেবা করার জন্য সেটা মানুষ ভুলেই গিয়েছিল। নির্বাচনের সময় জনগণের কাছে আওয়ামী লীগ যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলে তা ভুলে যায়নি। ২০০৯ সাল থেকে আমরা ধারাবাহিকভাবে ক্ষমতায় রয়েছি বলেই মানুষের জীবনমানের অনেক পরিবর্তন এসেছে।

সরকারপ্রধান বলেন, ‘ক্ষমতায় আসার পর দেশটাকে কিছুটা হলেও এগিয়ে নিয়ে যেতে পেরেছি। একুশ সালে আমরা যখন স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন পালন করেছি তখন বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদাও আমরা পেয়েছি।’

করোনার মোকাবিলায় সরকারের নেওয়া পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, বিনা পয়সায় উন্নত দেশগুলো করোনা পরীক্ষা এবং ভ্যাকসিন দেয়নি। কিন্তু আমরা সেটা দিতে পেরেছি। এটা আমাদের জন্য বিরাট সাফল্য। উন্নত দেশগুলোতে টাকা দিয়েই সব করতে হয়েছে। সেখানে আমরা বিনা পয়সায় দিয়েছি। সকলকে টিকা দিয়েছি। এখন বুস্টার ডোজ দেওয়া হচ্ছে আমি আশা করি সকলে সেই বুস্টার ডোজ নেবে।

করোনা ও ইউক্রেন যুদ্ধের মাঝেও সরকারি কর্মকর্তাদের আন্তরিকতার কারণে দেশ এগিয়ে চলছে এমন মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, ইউক্রেন যুদ্ধ ও বন্যা মোকাবিলা করার প্রতিটি কাজ আমরা বাস্তবায়ন করছি। আশা করি এই কাজগুলোর মধ্য দিয়ে আমরা আরও সাফল্য অর্জন করতে পারব।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকে ধন্যবাদ দিয়ে বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, চতুর্থবার রাষ্ট্র পরিচালনায় আমি দেখেছি সকল অর্থমন্ত্রীই একটু বেশি কৃপণ থাকে। কিন্তু আমাদের এই অর্থমন্ত্রী কোনো কৃপণতা করেনি। যখন যেটা বলা হয়েছে সে যথেষ্ট উদার ছিল এজন্য তাকে ধন্যবাদ। তার কারণে আমরা অনেক কাজ সহজভাবে করতে পেরেছি। সবচাইতে বড় কাজ আমাদের পদ্মা সেতু।

পদ্মা সেতুর কারণে ঢাকায় যানবাহনের চাপ বাড়বে জানিয়ে চাপ কমাতে ঢাকার চারপাশে রিং রোড করতে গুরুত্বারোপ করেন সরকারপ্রধান।