• শনিবার   ০৮ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ২২ ১৪২৯

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
দেশের বিভিন্ন জেলায় বিদ্যুৎ বিপর্যয় ঢাকেশ্বরী মন্দিরে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী কন্যাশিশুর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা আমাদের কর্তব্য: রাষ্ট্রপতি সমৃদ্ধ দেশ গড়তে কন্যাশিশুদের নিরাপত্তা অপরিহার্য: প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী দেশে ফেরার পথে লন্ডনে প্রধানমন্ত্রীর যাত্রা বিরতি কৃষিতে বাংলাদেশের সাফল্যের সূচনা বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব: রাষ্ট্রপতি সোনার বাংলা গড়তে কৃষিকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী ‘শিশুদের শারীরিক-মানসিক বিকাশে সুস্থ বিনোদনের বিকল্প নেই’ ‘মুজিববর্ষে ১ লাখ ৮৫ হাজার ১২৯টি ঘর নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে’ শিশুদের বুকে বড় হওয়ার স্বপ্ন জাগিয়ে দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী আগামী প্রজন্মের জন্য পরিকল্পিত নগরায়ণের বিকল্প নেই : রাষ্ট্রপতি ‘সেনাবাহিনীর হাজার হাজার অফিসার ও সৈনিক হত্যা করে জিয়া’ যুক্তরাজ্য-যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী জিনপিংকে শুভেচ্ছা জানিয়ে হামিদ-হাসিনার চিঠি প্রতিটি ক্ষেত্রে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি অপরিহার্য: রাষ্ট্রপতি দেশে উৎপাদনশীলতা বাড়াতে একযোগে কাজ করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর খুনি রাশেদ চৌধুরীকে দেশে ফেরানোর চেষ্টা চলছে বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে করোনায় প্রবীণদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী

শেখ হাসিনার জন্য রাখি পাঠালো পশ্চিমবঙ্গ সরকার

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১১ আগস্ট ২০২২  

বৃহস্পতিবার(১১ আগস্ট) বাঙালির রাখিবন্ধন উৎসব। বাংলার এই বিশেষ উৎসবে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁ পুরসভার পক্ষ থেকে বুধবার(১০ আগস্ট) বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্যে কচুরিপানার তৈরি রাখি ও মিষ্টি তুলে দেওয়া হয় বাংলাদেশের সংসদ সদস্য শেখ আফিলউদ্দিন হাতে।

এই বিষয়ে বনগাঁ পুরসভার চেয়ারম্যান গোপাল শেঠ বলেন, এই বছর বনগাঁ পুরসভার পক্ষ থেকে আমেরিকা, জার্মান, কানাডা ও বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের কাছে রাখি পাঠানো হয়েছে। সেজন্য পেট্রাপোল সীমান্তে এসে বাংলাদেশের সংসদ সদস্যের হাতে আমরা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর জন্য রাখি ও মিষ্টি তুলে দিলাম।

শেখ আফিল উদ্দিন জানান, একটা চমৎকার দিনে আপনারা একটি চমৎকার উপহার আমাদেরকে দিলেন। আমি এই রাখি আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পৌঁছে দেব। আসলে রাখি দিয়েই আমাদের দুই বাংলার বন্ধন শেষ হয় না। দুই দেশের বন্ধন রাখিবন্ধনের মধ্যদিয়ে আরও  শক্তিশালী হলো।

বনগাঁ পুরসভা এখন আর উত্তর ২৪ পরগনার জেলার মধ্যে পরে না। সম্প্রতি রাজ্যের ছটি জেলা বাড়াতেই বনগাঁ অঞ্চল ইছমতী জেলার অন্তর্গত হয়েছে। সেই ইছামতি নদীর কচুরিপানা দিয়ে রাখি তৈরির পরিকল্পনা আগেই নিয়েছিল বনগাঁ পুরসভা।

গোপাল শেঠ আরও জানান, দুই বাংলার একদিকে মমতা ব্যানার্জি, অন্যদিকে শেখ হাসিনা। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, শান্তি বজায় রাখা আমাদের দুই দেশের মূল উদ্দেশ্য।  বাংলাদেশের সঙ্গে আমাদের যে মৈত্রী, ভালোবাসার সম্পর্ক এটা সমগ্র বিশ্ব জানে। সেই ভালোবাসাই ছড়িয়ে দেওয়া হলো।

এদিন সীমান্তরক্ষী বিএসএফ-এর সদস্যদেরও হাতেও রাখি পরিয়ে দেন গোপাল শেঠ। তবে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই অনুষ্ঠান না থাকলেও বিষয়টি জানেন বলে এদিন জানান বনগাঁ পুরসভার চেয়ারম্যান গোপাল শেঠ।