• রোববার   ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৫ ১৪২৯

  • || ০৫ রজব ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় রাজশাহীবাসী, ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ সাধারণ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী আপনি কি আল্লাহর ফেরেস্তা, ফখরুলকে কাদেরের প্রশ্ন কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী পরবর্তী লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিটি শিক্ষার্থী যেন স্কাউট প্রশিক্ষণ পায়: প্রধানমন্ত্রী সংঘাত, সন্ত্রাস ও ক্ষমতা দখলকে পেছনে ফেলে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র ২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় হবে ১২ হাজার ডলার: প্রধানমন্ত্রী টেক্কা দিয়ে বাংলাদেশের এগোনো অনেকের পছন্দ না: প্রধানমন্ত্রী জনগণের পয়সায় সুযোগ-সুবিধা, তাদের সেবা করুন বাবার পরিচয়হীন সন্তানের অভিভাবক হবেন মা- হাইকোর্টের রায় অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমিয়ে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার ডিসি সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর ২৫ নির্দেশনা জনগণের সেবায় আত্মনিয়োগ করতে হবে: ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধুর খুনিকে লালন-পালন করছে: প্রধানমন্ত্রী

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৬ নভেম্বর ২০২২  

যুক্তরাষ্ট্রে পালিয়ে থাকা বঙ্গবন্ধুর এক খুনিকে ফিরিয়ে আনার প্রচেষ্টার কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, আমেরিকায় এক খুনি রয়ে গেছে। তাকে ফিরিয়ে আনার জন্য আমরা বারবার চেষ্টা করছি। তারা সেই খুনিকে লালন-পালন করছে। তাদের কারবারই এরকম।

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বিকালে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের জাতীয় সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের প্রসঙ্গ টেনে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করি এবং জনগণের প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা জানাই। অন্তত তারা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছিল বলেই এই হত্যার বিচার করতে পেরেছি। কিন্তু এখনও কিছু খুনি রয়ে গেছে। আমেরিকায় এক খুনি রয়ে গেছে, তাকে ফিরিয়ে আনার জন্য আমরা বারবার চেষ্টা করছি। তার ফাঁসির আদেশ হয়েছে। আমেরিকা সেই খুনিকে লালন-পালন করছে। অবশ্য আমেরিকার কারবারই এরকম।’

বঙ্গবন্ধুর পালিয়ে থাকা খুনিদের ফিরিয়ে আনা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘খুনিদের লালন-পালন করা একজন কানাডায়, একজন আছে আমেরিকায়, আর দুই জন পাকিস্তানে। আরেক জনের খবর পাওয়া যাচ্ছে না, কখনও ইন্ডিয়ায় কখনও জার্মানিতে বিভিন্ন জায়গায়—মোসলেহউদ্দিন। তারপরও আমাদের প্রচেষ্টা আছে পৃথিবীর যেখানেই থাক, যেভাবেই হোক, ধরে এনে এদের সাজা অবশ্যই আমরা নিশ্চিত করবো ইনশাআল্লাহ, সেটাই আমি চাই।’

পশ্চিমা বিশ্বের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘এখানে যেরকম একজন ড্রাগ ডিলার, বারবার ড্রাগসহ ধরতে গেছে পুলিশ, তার (পুলিশ) ওপর হামলা করেছে, র‌্যাব ধরতে গেছে, হামলা করেছে। ১৪টা মামলার আসামি ড্রাগসহ ধরা পড়ে সে। পুলিশের ওপর তার গ্রুপ গুলি করে, র‌্যাবের ওপর গুলি করে। তারপর সেও গুলি খায়, মারা যায়। তার জন্য আমাদের দেশের কিছু লোক বিভিন্ন জায়গায় তদবির করে বেড়ায়। অথচ এই ড্রাগ ডিলারদের খোঁজ আনতে গিয়ে, ধরতে গিয়ে আমাদেরই এয়ারফোর্সের একজন অফিসারকে ড্রাগ ডিলাররা হরণ করে নিয়ে যায়। অত্যন্ত নির্মমভাবেই তাকে মারে, হত্যা করে। এইমাত্র কিছু দিন আগের ঘটনা।’

বাংলাদেশের কয়েকজনের ওপর আমেরিকার স্যাংশন দেওয়ার সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে এদের কোনও উদ্বেগ নেই। মানবাধিকার সংস্থাগুলোর উদ্বেগ নেই। যারা ওই আমাদের ওপর স্যাংশন দেয় আমেরিকা, তাদেরও কোনও উদ্বেগ নেই। কারও কোনও উদ্যোগ নেই। কেমন একটা অদ্ভুত বিশ্ব পরিস্থিতি, সেটাই আমার কাছে অবাক লাগে।’