• শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৮ ১৪৩১

  • || ০৫ মুহররম ১৪৪৬

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করতে চায় চীন: শি জিনপিং চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী চীন সফর সংক্ষিপ্ত করে আজ দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী ঢাকা-বেইজিং ৭ ঘোষণাপত্র, ২১ চুক্তি সই চীনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে চীনের প্রতি সহযোগিতার আহ্বান বাংলাদেশে বিনিয়োগের এখনই উপযুক্ত সময় তিয়েনআনমেন স্কয়ারে চীনা বিপ্লবীদের প্রতি শেখ হাসিনার শ্রদ্ধা চীন-বাংলাদেশ হাত মেলালে বিশাল কিছু অর্জন সম্ভব: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে বিনিয়োগের এখনই সময়: চীনা ব্যবসায়ীদের প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী বেইজিং পৌঁছেছেন, শি জিংপিংয়ের সঙ্গে বৈঠক আজ দ্বিপক্ষীয় সফরে চীনের পথে প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী চীন সফরে যাচ্ছেন আজ সর্বজনীন পেনশনে যুক্ত হতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান শেখ হাসিনার পড়াশোনা নষ্ট করে কোটাবিরোধী আন্দোলনের কোনো যৌক্তিকতা নেই পিজিআরকে ‘চেইন অব কমান্ডে’র প্রতি আস্থাশীল থেকে অর্পিত দায়িত্ব সুষ্ঠুভাবে পালনের নির্দেশ রাষ্ট্রপতির টেকসই উন্নয়ন ত্বরান্বিতে কৃষি ও কৃষকের উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হবে সরকারের কৃষিবান্ধব নীতির ফলে টেকসই কৃষি প্রবৃদ্ধি নিশ্চিত হয়েছে এমডি পদের জন্য এত লালায়িত কেন, কী মধু আছে: প্রধানমন্ত্রী

শিগগিরই জনশক্তি সংক্রান্ত কমিটির সভা করতে চায় বাংলাদেশ-ওমান

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৯ মে ২০২৩  

শিগগিরই জনশক্তি সহযোগিতা সংক্রান্ত যৌথ কারিগরি কমিটির সভা আয়োজনের বিষয়ে সম্মত হয়েছে বাংলাদেশ ও ওমান। একইসঙ্গে দুই দেশের শীর্ষ বাণিজ্য সংস্থাগুলোর মধ্যে একটি যৌথ ব্যবসা চেম্বার স্থাপনে জোর দিয়েছে উভয়পক্ষ।

রোববার (২৮ মে) মাস্কাটে বাংলাদেশ-ওমানের তৃতীয় যৌথ পরামর্শক সভায় এসব বিষয়ে সম্মত হয় উভয়পক্ষ।

দুই দেশের সামগ্রিক বিষয়ে হওয়া সভায় ঢাকার পক্ষে নেতৃত্ব দেন পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন এবং মাস্কাটের পক্ষে দেশ‌টির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাজনৈতিক বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি শেখ খলিফা বিন আলহার্থি।

সভায় রাজনৈতিক সফর বিনিময়, প্রতিরক্ষা সহযোগিতা, বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক বিষয়, কনস্যুলার সমস্যা এবং জনশক্তি, জ্বালানি, কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ইত্যাদি ক্ষেত্রে সহযোগিতা নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়।

উভয়পক্ষ দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে গভীর সম্পৃক্ততার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেয়। এক্ষেত্রে বন্দর-টু-বন্দর সংযোগে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। এছাড়া দুই দেশের বিদ্যমান সম্পর্ককে উন্নত ও সুসংহত করতে ক্লিন এনার্জি, সরাসরি শিপিং, স্বাস্থ্যসেবায় পেশাদার নিয়োগ, তথ্য প্রযুক্তির বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতার বিষয়ে উভয়পক্ষ সম্মত হয়েছে।

সভায় আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্ম এবং সমসাময়িক বৈশ্বিক ইস্যুতে সহযোগিতা নিয়েও আলোচনা হয়। পরবর্তী তথা চতুর্থ সভা ঢাকায় করার সিদ্ধান্ত হয়।

এ সময় ওমানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. নাজমুল ইসলাম এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পশ্চিম এশিয়া অনুবিভাগের মহাপরিচালক মো. শফিকুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

এফওসি ছাড়াও একই দিনে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রসচিব ওমানের বাণিজ্য, শিল্প ও বিনিয়োগ মন্ত্রণালয়ের আন্ডার সেক্রেটারি সালেহ বিন সাইদ সালেম মাসেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। পররাষ্ট্রসচিব ওমান থেকে বাংলাদেশে আরও বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সহযোগিতার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। মাসুদ বিন মোমেন আন্ডার সেক্রেটারিকে একটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদল নিয়ে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান।

এছাড়া পররাষ্ট্রসচিব ওমানের শ্রম মন্ত্রণালয়ের আন্ডার সেক্রেটারি নাসর বিন আমের আল হোসনির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। উভয়পক্ষ শিগগিরই জনশক্তি সংক্রান্ত যৌথ কমিশনের পরবর্তী বৈঠকে বসার বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।