• বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ৮ ১৪৩০

  • || ১০ শা'বান ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আগামীকাল মিউনিখ সম্মেলনে শেখ হাসিনাকে নিমন্ত্রণ বাংলাদেশের গুরুত্ব বুঝায় গুণীজনদের সম্মাননা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে : রাষ্ট্রপতি একুশে পদকপ্রাপ্তদের অনুসরণ করে তরুণরা সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবে আজ একুশে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সফর শেষে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী বরই খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, কারণ অনুসন্ধান করবে আইইডিসিআর দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের উপযুক্ত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা: শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ নেদারল্যান্ডস, যুক্তরাজ্য, আজারবাইজান থেকে বড় বিনিয়োগ আহ্বান জার্মান চ্যান্সেলরের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক শান্তি ফর্মুলা বাস্তবায়নে শেখ হাসিনার সহযোগিতা চাইলেন জেলেনস্কি কাতারের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন শেখ হাসিনা কিছু খুচরো দল তিড়িং বিড়িং করে লাফাচ্ছে: শেখ হাসিনা মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে বিশ্বনেতাদের অভিনন্দন

পরিবেশবান্ধব শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে উদ্যোগ নিতে জোর মোমেনের

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৬ ডিসেম্বর ২০২৩  

জাতিসংঘের (ইউএন) শান্তিরক্ষা কার্যক্রমকে আরও পরিবেশবান্ধব করতে উদ্ভাবনী পন্থা ও উদ্যোগের ওপর জোর দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) রাতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঘানার আক্রায় জাতিসংঘ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ আয়োজনে ‘শান্তি রক্ষায় পরিবেশ ব্যবস্থাপনার উন্নতি’ বিষয়ক একটি অনুষ্ঠানে প্যানেলিস্টের বক্তৃতাকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী উল্লেখ করেন যে, বাংলাদেশ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে সোলার প্যানেল স্থাপনে প্রথম সেনা ও পুলিশ অবদানকারী দেশ হিসেবে গর্বিত।

বর্তমানে, মোমেন ঘানায় জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে বাংলাদেশের একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

পরে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঘানার আক্রায় ঘানার পররাষ্ট্রমন্ত্রী শার্লি আয়োরকর বোচওয়ের সঙ্গে দেখা করেন।

বৈঠকে, উভয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী উন্নত দেশগুলোর দ্বারা আক্রমণাত্মক জাতীয়ভাবে নির্ধারিত অবদান (এনডিসি) গ্রহণ করার এবং বার্ষিক ১০০ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের আহ্বান জানান।

উভয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী উভয় দেশের পারস্পরিক সুবিধার জন্য কৃষি খাতে অভিজ্ঞতা এবং দক্ষতা ভাগাভাগি করতে সম্মত হন এবং অন্যান্যদের মধ্যে ফার্মাসিউটিক্যাল এবং আইটি খাতে সম্ভাব্য সহযোগিতার উপায় নিয়েও আলোচনা করেন।

ঘানা এবং বাংলাদেশ যথাক্রমে সংস্থার বর্তমান এবং সর্বশেষ চেয়ার হিসাবে জলবায়ু ঝুঁকিপূর্ণ ফোরামের ট্রোইকা-সদস্য।