• রোববার ২৬ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪৩১

  • || ১৭ জ্বিলকদ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
ঢাকায় কোনো বস্তি থাকবে না, দিনমজুররাও ফ্ল্যাটে থাকবে অগ্নিসংযোগকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি বঙ্গবাজারে বিপণী বিতানসহ চারটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন নজরুলের বলিষ্ঠ লেখনী মানুষকে মুক্তি সংগ্রামে উদ্দীপ্ত করেছে জোটের শরিক দলগুলোকে সংগঠিত ও জনপ্রিয় করতে নির্দেশ সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে রেমাল বঙ্গবাজার বিপনী বিতানসহ ৪ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী কৃষিতে ফলন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী বাজার মনিটরিংয়ে জোর দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক’ দেবে বাংলাদেশ ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক রাইসি-আমির আব্দুল্লাহিয়ান মারা গেছেন: ইরানি সংবাদমাধ্যম সকল ক্ষেত্রে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিতে কাজ করছে বিএসটিআই: প্রধানমন্ত্রী চাকরির পেছনে না ছুটে যুবকদের উদ্যোক্তা হওয়ার আহ্বান ‘সামান্য কেমিক্যালের পয়সা বাঁচাতে দেশের সর্বনাশ করবেন না’ ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আগামীকাল ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির

ইয়াবা কারবারের মামলায় রোহিঙ্গা নারীর যাবজ্জীবন

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  

৬ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধারের মামলায় মোসাম্মৎ নুর তাজ (৩২) নামে এক রোহিঙ্গা নারীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত।

রোববার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকালে চতুর্থ অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক শরীফুল আলম ভূঁঞা এ রায় দেন। একই রায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন বিচারক।

দণ্ডিত নুর তাজ কক্সবাজারের উখিয়া থানার ১৯ নম্বর বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মো. ইদ্রিসের স্ত্রী। আদালতের বেঞ্চ সহকারী ওমর ফুয়াদ রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। রায় ঘোষণার সময় আসামি পলাতক ছিলেন বলে জানান তিনি।

মামলার নথি সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৮ ডিসেম্বর নগরীর বাকলিয়া থানার শাহ আমানত সেতু সংলগ্ন মীর ফিলিং স্টেশনের সামনে একটি বাস থেকে নুর তাজ ও আরেক কিশোরকে আটক করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। এ সময় নুর তাজের কাছ থেকে ৬ হাজার ও ওই কিশোরের কাছ থেকে ৪ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক তপন কান্তি শর্মা বাদী হয়ে বাকলিয়া থানায় মামলা করেন। ২০১৯ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি মামলার পৃথক অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ। কিশোর আসামির বিরুদ্ধে দেওয়া অভিযোপত্রটি দেওয়া হয় শিশু আদালতে। ওই বিচার এখনো চলছে।

অন্যদিকে নুর তাজের বিরুদ্ধে দেওয়া অভিযোগপত্রটি গ্রহণ করে বিচার শুরু করেন অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালত। ২০২২ সালের ৫ জানুয়ারি আসামি নুর তাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। বিচারকালে ৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন আদালত।