• মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১১ ১৪৩১

  • || ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
ড. ইউনূস কর ফাঁকি দিয়েছেন, তা আদালতে প্রমাণিত: প্রধানমন্ত্রী ‘শেখ হাসিনা দেশ বিক্রি করে না’ অভিন্ন নদীর টেকসই ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার পথ নিয়ে আলোচনা করেছি সরকার শিক্ষা ব্যবস্থাকে বহুমাত্রিক করেছে: প্রধানমন্ত্রী অনেক হিরার টুকরা ছড়িয়ে আছে, কুড়িয়ে নিতে হবে বারবার ভস্ম থেকে জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ: শেখ হাসিনা টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিত করতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী গণতন্ত্র রক্ষায় আ. লীগ নেতাকর্মীদের সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী আজ ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ১০ চুক্তি সই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আগামীকাল দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে রাজকীয় সংবর্ধনা হাসিনা-মোদী বৈঠক আজ সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেয় বঙ্গবন্ধুর চার নীতি এবং বাংলাদেশের চার স্তম্ভ সুফিয়া কামালের সাহিত্যকর্ম নতুন প্রজন্মের প্রেরণার উৎস শুক্রবার ভারত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

স্বামীকে হত্যার দায়ে স্ত্রীর যাবজ্জীবন

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৯ নভেম্বর ২০২৩  

স্বামীকে গলা টিপে শ্বাসরোধে হত্যার ঘটনার মামলায় স্ত্রীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত। একই সঙ্গে আসামিকে ২০ হাজার অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও ছয় মাস কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (২৯ নভেম্বর) পঞ্চম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. শরীফুর রহমানের আদালত এ রায় দেন।

দণ্ডিত মিনু আক্তার (২৯) পটিয়ার কুসুমপুরা এলাকার সৈয়দ আহমদের মেয়ে।

মামলার নথিপত্র পর্যালোচনা করে জানা যায়, ২০১৩ সালের ২ ডিসেম্বর রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বামী আবদুর রহিমকে গলা টিপে খুন করেন মিনু আক্তার। কিন্তু মিনু পুলিশকে জানান তিনি তার স্বামীকে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখতে পান। পরে ময়নাতদন্ত রিপোর্টে রহিমকে গলা টিপে খুন করা হয়েছে বলে জানানো হয়। ২০১৪ সালের ১৮ জানুয়ারি স্বামী খুনের দায়ে স্ত্রী মিনু আক্তারকে আসামি করে মামলা করে পটিয়া থানা পুলিশ। ২০১৪ সালের ২০ মার্চ আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ। ২০১৫ সালের ২৫ মার্চ আসামির বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত।

ট্রাইবুনালের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর জ্ঞানতোষ চৌধুরী জানান, স্বামীকে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় স্ত্রীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে আদালত আসামিকে ২০ হাজার অর্থদন্ডসহ অনাদায়ে আরও ছয় মাস কারাদণ্ড দেন। মোট ১১ জন সাক্ষীর মধ্যে ৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত এ রায় দিয়েছেন। আসামি পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।