• বৃহস্পতিবার   ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২০ ১৪২৯

  • || ১০ রজব ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে কৃষি উন্নয়নের বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী ক্রীড়া শিক্ষায় বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী জনস্বাস্থ্য নিশ্চিতে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্যের বিকল্প নেই জনগণকে বিশ্বাস করি, তারা যদি চায় আমরা থাকবো: প্রধানমন্ত্রী ২০২২-২৩ অর্থবছরে ১০ বিলিয়ন ডলারের বেশি রেমিট্যান্স এসেছে ভাষা-সাহিত্য চর্চাও ডিজিটাল করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ মানহীন শিক্ষায় উচ্চশিক্ষিত বেকার বাড়ছে: রাষ্ট্রপতি গণতান্ত্রিক ধারাকে বাধাগ্রস্ত করতে চায় এক শ্রেণির বুদ্ধিজীবী মুসলিম উম্মাহকে ফিলিস্তিনের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ সারদায় কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন বাংলাদেশ পুলিশ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করছে

অনুমোদনহীন ওষুধ কারখানায় অভিযান

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩  

গাইবান্ধা সদরে অনুমোদনহীন একটি গবাদিপশুর ওষুধ কারখানার সন্ধান পেয়ে অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় জব্দ করা হয়েছে ওষুধ তৈরির ল্যাবসহ বিপুল পরিমাণ ওষুধ। খবর পেয়ে মালিক পালিয়ে গেলেও আটক করা হয়েছে দুজনকে।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) বিকেল ৩টার দিকে গাইবান্ধা পৌর এলাকার গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়কের পাশে শাপলা মিল এলাকায় জেলা প্রশাসনের সহায়তায় উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিস, বিএসটিআই, ওষুধ প্রশাসন ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর অনুমোদনহীন এসএ অ্যাগ্রোভেট কারখানায় অভিযান পরিচালনা করেন।

এ সময় কারখানার থেকে গরু মোটাতাজাকরণ ও বিভিন্ন রোগের বিপুল পরিমাণ ওষুধ ও ওষুধ তৈরির কাঁচামাল জব্দ করা হয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, দীর্ঘদিন থেকে ওই বাড়িটি ভাড়া নিয়ে ওষুধ তৈরির কারবার করে আসছিল পার্শ্ববর্তী সুন্দরগঞ্জ উপজেলার আসাদুজ্জামান। কিন্তু কারখানাটি সব সময় বাইরে থেকে বন্ধ থাকায় সেখানে কী তৈরি হতো, তা জানতো না কেউ।

এ বিষয়ে গাইবান্ধা সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, কারখানাটির কোনো অনুমোদন ছিল না। দীর্ঘদিন ধরে এখানে ওষুধ উৎপাদন করে জেলার বিভিন্ন এলাকায় বাজারজাত করে আসছিল ওই প্রতিষ্ঠানটি। অনুমোদনহীন হওয়ায় কারখানাটি সিলগালা করা হয়েছে এবং নিয়মিত মামলার প্রস্তুতি চলছে।