• বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৫ ১৪৩১

  • || ১১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
শেখ হাসিনার ভারত সফর: আঞ্চলিক ভূ-রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে ফিলিস্তিনসহ দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ আশ্রয়ণের ঘর মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন সোনিয়া গান্ধী মোদীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় হবে

‘নেশা করে স্ত্রী-সন্তানকে হত্যার পর ফাঁস নেন সুর্যল’

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৫ মার্চ ২০২৩  

বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) তখন দুপুর। ওই সময় স্ত্রী জেসমিন আক্তার ও প্রতিবন্ধী সন্তান ইয়াছিন ও স্বামী সুর্যলের লাশ উদ্ধার হয়। শুধু তাই নয়, ওই দম্পতির দুই বছরের শিশুকন্যা আইরিনকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেছে শিশুটি। তবে তার গলায় এখনো দেখা যাছে আঘাতের চিহ্ন।
ঘটনাটি ঘটেছে হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে। তবে এলাকাবাসী ও পুলিশ বলছে, সুর্যল নেশা করতেন। সেই সঙ্গে পরিবারে ছিল অভাব। তাই হতাশাগ্রস্ত হয়ে স্ত্রী-সন্তানকে হত্যার পর আত্মহননের পথ বেছে নেন সুর্যল।

এদিকে নিহত তিনজনের ময়নাতদন্ত শেষে শুক্রবার রাতেই তাদের দাফন করা হয়েছে। এ ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা করেছে পুলিশ। একটি হত্যা এবং অপরটি অপমৃত্যু মামলা। এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে চুনারুঘাটের গাদিশাল গ্রামে গাছে ঝুলানো অবস্থায় সুর্যলের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। আর তার স্ত্রী জেসমিন আক্তারের মরদেহ ঘরের খাটের নিচে এবং বড় ছেলের লাশ খাটের ওপর থেকে উদ্ধার করা হয়। সুর্যল হকের বাকি তিন সন্তান বর্তমানে চাচার আশ্রয়ে রয়েছে।

চুনারুঘাট ও মাধবপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার নির্মলেন্দু চক্রবর্তী জানান, সুর্যল হক প্রায়ই নেশা করতেন

তিনি বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনার সঙ্গে অন্য কারো প্ররোচনা রয়েছে কি না তা দেখা হচ্ছে। পূর্ণাঙ্গ তদন্ত ছাড়া আসলে কিছুই বলা যাবে না। তবে সুর্যল যে তার স্ত্রী ও সন্তানকে হত্যা করে নিজে আত্মহত্যা করেছেন এটা প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে।

চুনারুঘাট থানার ওসি মো. রাশেদুল হক জানান, পুলিশ বাদী হয়ে এ ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা করেছে। একটি হত্যা এবং অপরটি অপমৃত্যু মামলা।

আহম্মদাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন পলাশ জানান, সুর্যল হক মানসিক রোগীর মতো আচরণ করতেন। প্রায়ই তার স্ত্রীকে মারধর করতেন তিনি।

নিহতের ভাই নুরুল হক জানান, তার ভাই নেশা করতেন। তার স্ত্রীকে মারধরও করতেন। এর আগেও তিনি তার স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা করেছেন।

আত্মহননকারী সুর্যল হকের বেঁচে থাকা দ্বিতীয় ছেলে জিহান মিয়া জানায়, তার মাকে হত্যা করার আগে সুর্যল হক সিগারেটের সঙ্গে কিছু একটা খেয়েছেন। তিনি নেশাগ্রস্ত ছিলেন।