• বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ৮ ১৪৩০

  • || ১০ শা'বান ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আগামীকাল মিউনিখ সম্মেলনে শেখ হাসিনাকে নিমন্ত্রণ বাংলাদেশের গুরুত্ব বুঝায় গুণীজনদের সম্মাননা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে : রাষ্ট্রপতি একুশে পদকপ্রাপ্তদের অনুসরণ করে তরুণরা সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবে আজ একুশে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সফর শেষে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী বরই খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, কারণ অনুসন্ধান করবে আইইডিসিআর দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের উপযুক্ত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা: শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ নেদারল্যান্ডস, যুক্তরাজ্য, আজারবাইজান থেকে বড় বিনিয়োগ আহ্বান জার্মান চ্যান্সেলরের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক শান্তি ফর্মুলা বাস্তবায়নে শেখ হাসিনার সহযোগিতা চাইলেন জেলেনস্কি কাতারের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন শেখ হাসিনা কিছু খুচরো দল তিড়িং বিড়িং করে লাফাচ্ছে: শেখ হাসিনা মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে বিশ্বনেতাদের অভিনন্দন

মানিকগঞ্জে ২ বোন গণধর্ষণের শিকার, গ্রেফতার ৭

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ৬ ডিসেম্বর ২০২৩  

মানিকগঞ্জের ঘিওরে দুই চাচাতো বোন গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে ভুক্তভোগী ওই দুই নারী মামলা করার পর সন্ধ্যায় ঘিওর থানার ওসি মো. আমিনুর রহমান এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ ঘটনায় গ্রেফতার হয়েছেন ৭ জন।

গ্রেফতাররা হলেন মো. হৃদয় খান (২২), মো. সোহেল রানা (২৫) মো. শাহ আলম (২৫), রনি মিয়া (২০), হাসান আলী, ফয়সাল বেপারী (২০), তামিম (২৬), ছাকিদ হোসেন (৩০)। তারা সবাই ঘিওর উপজেলার পয়লা ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের বাসিন্দা। মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ঘিওর ও মানিকগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার সন্ধ্যায় দৌলতপুর উপজেলার খলসী গ্রামের ৩৫ ও ২৬ বছর বয়সী দুই চাচাতো বোন একটি অটো রিকশাযোগে ঘিওর বাজারের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। পথে বরংগাইল- দৌলতপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের তেরশ্রী মোড়ে পৌঁছালে অটোচালক তাদের নামিয়ে দেয়। তারা গাড়ির জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। একপর্যায়ে পায়ে হেঁটে কিছু দূর যাওয়ার পর রাস্তা থেকে কয়েকজন যুবক ভুক্তভোগী এক নারীর মোবাইল নম্বর চান। নম্বর না দেওয়ায় জোরপূর্বক তাদের ফোন, স্বর্ণের চেইন ও টাকা হাতিয়ে নেয়। এরপর ভুক্তভোগী দুই নারীকে রাস্তার পাশে একটি ভুট্টাক্ষেতে ৮ জন মিলে ধর্ষণ করেন।

ঘিওর থানার ওসি মো. আমিনুর রহমান বলেন, ‘ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। ঘিওরসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ভুক্তভোগী দুই নারীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য জেলা হাসপাতালে পাঠানো হবে।’