• মঙ্গলবার   ০৯ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৫ ১৪২৯

  • || ১০ মুহররম ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে বঙ্গমাতার মনোভাব প্রতিফলিত হয়েছে বঙ্গমাতার সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা স্বাধীনতার সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর সারথি ছিলেন আমার মা: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গমাতা কঠিন দিনগুলোতে ছিলেন দৃঢ় ও অবিচল: রাষ্ট্রপতি ফজিলাতুন নেছা মুজিব দৃঢ়চেতা-বলিষ্ঠ চরিত্রের অধিকারী ছিলেন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী আজ বাংলাদেশে সহায়তা অব্যাহত রাখবে চীন: ওয়াং ই চীনে ৯৯ শতাংশ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে বাংলাদেশ মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়েছি মায়ের দুধ শিশুর সর্বোত্তম খাবার: রাষ্ট্রপতি শেখ কামাল ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী: প্রধানমন্ত্রী শেখ কামাল ছিলেন ক্রীড়া ও সংস্কৃতিমনা সুকুমার মনোবৃত্তির মানুষ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের মর্যাদাকে সমুন্নত করবে যুবসমাজ ‘শেখ হাসিনার কাছ থেকে শিখুন’ ঘাতকরা আজও তৎপর, আমাকে ও আ’লীগকে সরাতে চায়: প্রধানমন্ত্রী বিচারকদের সততা-নিষ্ঠা নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে হবে: রাষ্ট্রপতি একনেকে ২ হাজার কোটি টাকার ৭ প্রকল্প অনুমোদন বাঁধ টেকসই করতে বেশি করে ঝাউগাছ লাগানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘আন্তর্জাতিক শান্তি পুরস্কার’ পেলো বাংলাদেশ বিএনপির আমলে মানুষের ভোটের অধিকার ছিল না: প্রধানমন্ত্রী

পদ্মা সেতু চালু হলেও নদীশাসন চলবে আরও এক বছর

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৬ জুন ২০২২  

পদ্মা সেতু চালু হলেও নদীশাসনের কাজ চলবে ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত। বিশ্ব রেকর্ডের চুক্তির কাজের অগ্রগতি এখন ৯৩ শতাংশ। ব্লক দিয়ে নান্দনিকভাবে বাঁধাই করা পদ্মাতীর এখন হয়ে উঠেছে আকর্ষণীয়।

উইকিপিডিয়া বলছে, পানিপ্রবাহের দিক থেকে ভয়াবহ দক্ষিণ আমেরিকার আমাজন, আফ্রিকার কঙ্গোর পর বিশ্বের তৃতীয় খরস্রোতা নদী গঙ্গা তথা পদ্মা। যেখানে প্রতি সেকেন্ডে ৩৮ হাজার ঘন মিটার পানিপ্রবাহিত হয়।

নতুন উদ্ভাবনী নির্মাণ কৌশল ব্যবহার করে পদ্মা নদীতে সেতু তৈরিতে সফল হয়েছে বাংলাদেশ। ভাঙনপ্রবণ পদ্মার দুই পাড়ে ১৪ কিলোমিটার নদীশাসন চলছে। যদিও নির্মাণকাজটি ছিল খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। ২০২০ সালের ৩১ জুলাই ভাঙনের কবলে পড়ে কন্সট্রাকশন ইয়ার্ড। পানিতে ভেসে যায় নানা যন্ত্রপাতির সঙ্গে রেলের স্টেনজার ও রোড স্ল্যাব।

এত চ্যালেঞ্জের পরও সেতু বাস্তবে রূপ নেয়ায় খুশি মানুষ। তারা বলছেন, এই পদ্মা সেতুর কারণে বিশ্বে বাংলাদেশের পরিচিতি আরও বাড়বে। এতে আমরা খুবই খুশি।

পদ্মা শাসনে ব্যবহার করা হয়েছে ৯৬ লাখের বেশি ব্লক ও ৯ লাখ ১৪ হাজার স্কয়ার মিটার বড় পাথর। ড্রেজিং করা হয়েছে ৫ কোটি ৮৯ লাখ ঘন মিটার বালু। ডাম্পিং করা হয়েছে ৮০০ কেজির ৩৪ লাখ ও ২৫ কেজির ১ কোটি ২৭ লাখ জিও ব্যাগ।

পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের কাজের অগ্রগতি ৯২ শতাংশ হয়ে গেছে। আরও এক শতাংশ হয়ে যাবে শিগগিরই। মাওয়া প্রান্তে ২ কিলোমিটার এবং জাজিরা অংশে প্রায় ১২ কিলোমিটার এলাকায় নদীশাসন হচ্ছে।