• বুধবার ২৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৯ ১৪৩১

  • || ১৬ মুহররম ১৪৪৬

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ২১ জুলাই স্পেন যাবেন প্রধানমন্ত্রী আমার বিশ্বাস শিক্ষার্থীরা আদালতে ন্যায়বিচারই পাবে: প্রধানমন্ত্রী কোটা সংস্কার আন্দোলনে প্রাণহানি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত করা হবে মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী পবিত্র আশুরা মুসলিম উম্মার জন্য তাৎপর্যময় ও শোকের দিন আশুরার মর্মবাণী ধারণ করে সমাজে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার আহ্বান মুসলিম সম্প্রদায়ের উচিত গাজায় গণহত্যার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী দুঃখ লাগছে, রোকেয়া হলের ছাত্রীরাও বলে তারা রাজাকার শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ ‘চীন কিছু দেয়নি, ভারতের সঙ্গে গোলামি চুক্তি’ বলা মানসিক অসুস্থতা দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে না দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী : প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সরকার ব্যবসাবান্ধব সরকার ফুটবলের উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে সরকার যথাযথ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিশ্বমানের খেলোয়াড় তৈরি করুন চীন সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করতে চায় চীন: শি জিনপিং চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

১৫০ কিমি সঞ্চালন লাইন প্রস্তুত, অপেক্ষা গ্যাস সরবরাহের

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

বগুড়া থেকে নীলফামারী পর্যন্ত ১৫০ কিলোমিটার গ্যাস সঞ্চালনের পাইপলাইন প্রস্তুত। শেষ হয়েছে কমিশনিং প্রক্রিয়াও। এখন শুধু অপেক্ষা বাণিজ্যিকভাবে গ্যাস সরবরাহের। তবে ক্ষুদ্র শিল্পকেও সমানভাবে গুরুত্ব দেয়াসহ দ্রুত সময়ের মধ্যে সরবরাহের দাবি শিল্প উদ্যোক্তাদের।

সংশ্লিষ্টরা জানান, বগুড়া থেকে সৈয়দপুর পর্যন্ত ৩০ ইঞ্চি ব্যাসের উচ্চচাপ সম্পন্ন গ্যাস সঞ্চালন লাইন স্থাপন শেষ হয়েছে। এর মধ্যে পীরগঞ্জ টিবিএস-২০ এমএমএসসিএফডি (সিটি গেট স্টেশন), রংপুর টিবিএস- ৫০ এমএমএসসিএফডি, সৈয়দপুর সিজিএস-১০০ এমএমএসসিএফডি ক্ষমতাসম্পন্ন পাইপলাইন দিয়ে প্রতিদিন সরবরাহ সক্ষমতা ৫০ কোটি স্ট্যান্ডার্ড কিউবিক ফিট গ্যাস।

আপাতত ভারী শিল্প কলকারখানা, ইপিজেড এবং রিফুয়েলিং স্টেশনে গ্যাস সরবরাহের পরিকল্পনা কর্তৃপক্ষের। তবে সংযোগের ক্ষেত্রে ভারী শিল্পের পাশাপাশি ক্ষুদ্র শিল্পকেও সমানভাবে গুরুত্ব দেয়াসহ দ্রুত সময়ে গ্যাস সরবরাহের দাবি শিল্প উদ্যোক্তাদের।

স্থানীয়রা জানান, ব্যাপক সম্ভাবনা থাকার পরও শুধুমাত্র জ্বালানির অভাবে এতোদিন শিল্পের বিকাশ ঘটেনি উত্তরের রংপুর অঞ্চলে। যে কারণে দেশের অন্যান্য অঞ্চল থেকে শিল্প বাণিজ্যে অনেক পিছিয়ে রংপুর বিভাগের পাঁচ জেলা। তবে সরকারের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী উত্তরবঙ্গে সরাসরি পাইপলাইনে গ্যাস আসার প্রক্রিয়া শেষ হওয়ায় খুশি এই অঞ্চলের মানুষ।

তারা জানান, ‘উত্তরবঙ্গে সরাসরি পাইপলাইনে গ্যাস আসলে ঢাকায় যে বড় বড় কোম্পানি আছে সেগুলো আমাদের বাড়ির পাশে হবে। কর্মসংস্থানের সুবিধাও বাড়বে।’

রংপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মো. আকবর আলী বলেন, ‘গ্যাস আসলে আমাদের এখানে কলকারখানা গড়ে উঠবে। এতে শিল্পায়ন ও কর্মসংস্থানের সংকট কমে যাবে, বাড়বে অর্থনৈতিক উন্নয়ন।’

তবে মিটারিং স্টেশন, ডিআরএস স্থাপনসহ সবকিছুই প্রস্তুত। তবে সরবরাহের বিষয়টি পশ্চিমাঞ্চলীয় গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের ওপর নির্ভরশীল বলে জানিয়েছে পাইপলাইন স্থাপনকারী প্রতিষ্ঠান জিটিসিএলের প্রকল্প কর্মকর্তা মো. জিয়াউল হক।

তিনি বলেন, সরবরাহ নেটওয়ার্ক তৈরির মাধ্যমে ছোট-বড় শিল্প কারখানা, সিএনজি স্টেশনসহ সব ক্ষেত্রে গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেড (জিটিসিএল) গ্যাস সরবরাহ করবে।  

এ বিষয়ে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. মোরশেদ হোসেন বলেন, রংপুর অঞ্চলে পাইপলাইনে গ্যাস সঞ্চালন শুরু হলেই দেশি ও বিদেশি বিনিয়োগকারীরা এখানে অর্থ ঢালতে আগ্রহ দেখাবে। এতে সামগ্রিকভাবে এ অঞ্চলে অর্থনৈতিক একটা পরিবর্তন আসবে।

উল্লেখ্য, প্রকল্পটি সরকার ও গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেডের (জিটিসিএল) যৌথ অর্থায়নে এক হাজার ৩৭৮ কোটি টাকা ব্যয়ে বাস্তবায়ন হচ্ছে। এরই মধ্যে গ্যাস সরবরাহ নিরবচ্ছিন্ন করতে পাইপ লাইন বসানো ও অবকাঠামো নির্মাণ শেষ হয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে ২০২৫ সালে গ্যাস সরবরাহ করবে পশ্চিমাঞ্চলীয় ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি। আপাতত শিল্প, কলকারখানা ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান এমনকি ক্ষুদ্র পর্যায়ের উদ্যোক্তারাও পাবেন এ গ্যাসের সুফল। এখন অপেক্ষা বাণিজ্যে পিছিয়ে থাকা উত্তরের শিল্পখাতকে এগিয়ে নেয়ার।