• শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১০ ১৪৩০

  • || ১২ শা'বান ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখেই সামুদ্রিক সম্পদ আহরণের আহ্বান সমুদ্রসীমার সম্পদ আহরণ করে কাজে লাগানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর ২১ বছর সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি: শেখ হাসিনা হঠাৎ টাকার মালিক হওয়ারা মনে করে ইংরেজিতে কথা বললেই স্মার্টনেস ভাষা আন্দোলন দমাতে বঙ্গবন্ধুকে কারান্তরীণ রাখা হয় : সজীব ওয়াজেদ ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই বাংলাদেশের মানুষ স্বাধিকার পেয়েছে অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আগামীকাল মিউনিখ সম্মেলনে শেখ হাসিনাকে নিমন্ত্রণ বাংলাদেশের গুরুত্ব বুঝায় গুণীজনদের সম্মাননা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে : রাষ্ট্রপতি একুশে পদকপ্রাপ্তদের অনুসরণ করে তরুণরা সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবে আজ একুশে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সফর শেষে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী বরই খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, কারণ অনুসন্ধান করবে আইইডিসিআর দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের উপযুক্ত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা: শেখ হাসিনা

বৃষ্টির পানি-কাঁচা মাছ খেয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে কাটল ২ মাস

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৭ জুলাই ২০২৩  

পৃথিবীর বৃহত্তম মহাসাগর হচ্ছে প্রশান্ত মহাসাগর। আর সেখানেই দুই মাস ধরে নিজেকে টিকিয়ে রাখতে সক্ষম হলেন এক অস্ট্রেলিয়ান নাবিক। সাথে কোনো খাদ্য বা খাবার পানীয় না থাকলেও কেবল কাঁচা মাছ এবং বৃষ্টির পানি পান করে বেঁচে ছিলেন তিনি।

সম্প্রতি তাকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং এই নাবিক এখন শারীরিকভাবে ভালো আছেন। সোমবার (১৭ জুলাই) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রশান্ত মহাসাগরে কাঁচা মাছ খেয়ে এবং বৃষ্টির পানি পান করে দুই মাস বেঁচে থাকা এক অস্ট্রেলিয়ান নাবিকের শারীরিক অবস্থা ‘স্থিতিশীল এবং খুব ভালো’ বলে একজন চিকিৎসক জানিয়েছেন। এমনকি সমুদ্রে তার সঙ্গে তার কুকুরও ছিল এবং সেও জীবিত আছে।


বিবিসি বলছে, অস্ট্রেলিয়ান ওই নাবিকের নাম টিম শ্যাডক। তিনি সিডনির বাসিন্দা। আর তার কুকুরের নাম বেলা। গত এপ্রিল মাসে কুকুর বেলাকে সঙ্গে নিয়ে ৫১ বছর বয়সী এই অস্ট্রেলিয়ান নাবিক মেক্সিকো ছেড়ে ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছিলেন। কিন্তু যাত্রা করার কয়েক সপ্তাহ পরে ঝড়ের কারণে তাদের নৌকাটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

এর পর দীর্ঘ দুইমাস ধরে নিখোঁজ ছিলেন তারা। এরপর সম্প্রতি একটি হেলিকপ্টার তাদের দেখতে পায় এবং এই সপ্তাহে একটি ট্রলারে করে তাদের উদ্ধার করা হয়। টুনা ট্রলারে থাকা এক ডাক্তার অস্ট্রেলিয়ার ৯নিউজকে বলেছেন, উদ্ধারকৃত ওই লোকটির ‘স্বাভাবিক গুরুত্বপূর্ণ কিছু লক্ষণ’ রয়েছে।

টিম শ্যাডক মেক্সিকোর লা পাজ শহর থেকে ৬ হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ (৩ হাজার ৭২৮ মাইল) যাত্রা শুরু করেছিলেন। কিন্তু খারাপ আবহাওয়ার কারণে তার নৌকার ইলেকট্রনিক্স নষ্ট হয়ে যাওয়ার পর খুব দ্রুতই তিনি গভীর সমুদ্রে আটকে পড়েন।

আর সেই পরিস্থিতিতে ওই নাবিক এবং তার কুকুরকে বিশাল ও প্রতিকূল উত্তর প্রশান্ত মহাসাগরে ভাসতে থাকেন। অবশেষে দুই মাস পরে যখন তাদের মেক্সিকো উপকূলে পাওয়া গেল, তখন তিনি ছিলেন অনেকটাই ক্ষীণ এবং তার মুখে বেশ বড় দাড়ি ছিল।

৯নিউজকে তিনি বলেন, ‘আমি সমুদ্রে খুব কঠিন অগ্নিপরীক্ষার মধ্য দিয়ে দিন পার করেছি। আমার শুধু বিশ্রাম এবং ভালো খাবার দরকার কারণ আমি দীর্ঘদিন ধরে সমুদ্রে একা ছিলাম। অন্যথায় আমি খুব ভালো আছি।’

শ্যাডক বলেন, মাছ ধরার সরঞ্জাম তাকে বেঁচে থাকতে সাহায্য করেছিল। এছাড়া তিনি তার নৌকার ছাউনির নীচে আশ্রয় নিয়ে রোদে পোড়া এড়াতে সক্ষম হন।

বিবিসি বলছে, উদ্ধারের পরপরই অস্ট্রেলিয়ান নাবিক টিম শ্যাডককে হাসতে দেখা যায় এবং বাহুতে রক্তচাপের মনিটর পরা অবস্থায় দেখা যায়। অল্পস্বল্প খাবারও খেতে পারছেন তিনি।

নাবিককে উদ্ধার করা টুনা ট্রলারটি এখন মেক্সিকোতে ফিরে যাচ্ছে। সেখানে টিম শ্যাডক মেডিকেল পরীক্ষা করবেন এবং প্রয়োজনে আরও চিকিৎসা গ্রহণ করবেন।