• শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১০ ১৪৩০

  • || ১২ শা'বান ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখেই সামুদ্রিক সম্পদ আহরণের আহ্বান সমুদ্রসীমার সম্পদ আহরণ করে কাজে লাগানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর ২১ বছর সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি: শেখ হাসিনা হঠাৎ টাকার মালিক হওয়ারা মনে করে ইংরেজিতে কথা বললেই স্মার্টনেস ভাষা আন্দোলন দমাতে বঙ্গবন্ধুকে কারান্তরীণ রাখা হয় : সজীব ওয়াজেদ ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই বাংলাদেশের মানুষ স্বাধিকার পেয়েছে অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আগামীকাল মিউনিখ সম্মেলনে শেখ হাসিনাকে নিমন্ত্রণ বাংলাদেশের গুরুত্ব বুঝায় গুণীজনদের সম্মাননা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে : রাষ্ট্রপতি একুশে পদকপ্রাপ্তদের অনুসরণ করে তরুণরা সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবে আজ একুশে পদক তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ সফর শেষে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী বরই খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, কারণ অনুসন্ধান করবে আইইডিসিআর দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের উপযুক্ত জবাব দিন: প্রধানমন্ত্রী গাজায় যা ঘটছে তা গণহত্যা: শেখ হাসিনা

কনের মেক-আপ করা নিয়ে তর্ক-বিতর্ক, কনেপক্ষের মারধরে হাসপাতালে বর

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৯ জুলাই ২০২৩  

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশের মুর্শিদাবাদে কনের মেক-আপ করা নিয়ে তর্ক-বিতর্কের পর কনেপক্ষের লোকজনের বেধড়ক মারপিটে আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বর। শুধু তাই নয়, বরপক্ষের আরও অন্তত চারজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দেশটির গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, মুর্শিদাবাদের রঘুনাথগঞ্জ থানার সন্তোষপুর এলাকায় কনেপক্ষের সাথে বরপক্ষের লোকজনের সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটেছে। এতে বরসহ মোট ৫ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধারের পর জঙ্গিপুর মহকুমা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের বাংলা সংবাদমাধ্যম নিউজ১৮ বলছে, সন্তোষপুর এলাকায় এক বিয়ের অনুষ্ঠানে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে বরপক্ষকে। সাগরদিঘী থানার শেখদীঘি এলাকার বাসিন্দা মিনারুল শেখ বরযাত্রী নিয়ে বউ আনতে গিয়েছিলেন সন্তোষপুরে। এগারো মাস আগে নিয়ম মেনে বিয়ে হয়েছিল তাদের। কিন্তু সেই সময় কোনও অনুষ্ঠান হয়নি। ফলে নতুন করে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানের পর পাত্রীকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নেয় বরপক্ষ। আত্মীয়-স্বজনদের নিয়ে তারা কনের বাড়িতে হাজির হন। সব কিছু ঠিকঠাকই চলছিল। কিন্তু এতে আচমকাই ছন্দপতন ঘটে। কনের মেক-আপ করা নিয়ে দুই পক্ষের মাঝে তীব্র বাগবিতণ্ডা শুরু হয়।

বরপক্ষের লোকজন কনেকে সাধারণ মেকআপে সাজানোর দাবি জানান। তারা লিপস্টিক ও টিপ পড়ানো যাবে না বলে শর্ত দেন। কিন্তু কনেপক্ষের লোকজন কড়া মেক-আপে সাজিয়ে মেয়েকে পাঠাবেন বলে জানান। এই নিয়ে উভয়পক্ষের লোকজনের মাঝে শুরু হয় বচসা।

পরিস্থিতি এতটাই খারাপ হয়ে যায় যে, কনেপক্ষ উত্তেজিত হয়ে বরকে মারধর করে। পেটানো হয় বরের বাবা ও ভাইকেও। বাঁশের লাঠি ও কাঠ দিয়ে মারধর করা হয় তাদের। এতে বরসহ মোট ৫ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদের জঙ্গিপুর মহকুমা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।