• সোমবার ১৭ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২ ১৪৩১

  • || ০৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ আশ্রয়ণের ঘর মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন সোনিয়া গান্ধী মোদীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় হবে বাংলাদেশ ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানি করতে আগ্রহী : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদী সংক্ষিপ্ত শুভেচ্ছা বিনিময় অ্যাক্রেডিটেশন দেশের অর্থনীতিকে সুদৃঢ় করতে সহায়তা করে: রাষ্ট্রপতি

ভোটে জিততে ভরসা ফকির বাবার ‘জুতোর বাড়ি’!

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর ২০২৩  

কথায় আছে, জুতো মেরে গরু দান। তবে এখানে ঠিক গরু নয়, জুতো মেরে ভোটে জেতানো হচ্ছে, এমনটা বলা যেতে পারে। সম্প্রতি ভারতের মধ্যপ্রদেশের বিধানসভার নির্বাচনকে ঘিরে এক প্রার্থীর একটি ভাইরাল হওয়া ভিডিওতেই মিলেছে সেই জবাব। যেখানে কংগ্রেসের প্রার্থী হওয়া পারাস সাখলেচাকে ভোটে জয়ী হতে জুতোর মার খেতে দেখা গিয়েছে।

শনিবার (১৮ নভেম্বর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, সাখলেচা এর আগে ২০১৩ ও ২০১৮ সালে মধ্যপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন। কিন্তু জয়ী হতে পারেনি। এজন্য এবার তিনি জয়ী হতে বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) ওই ফকির বাবার কাছে নতুন জুতা নিয়ে দোয়া চাইতে যান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, নতুন জুতা বাবার কাছে দেয়ার পর তা দিয়ে সাখলেচাকে মারতে শুরু করেন ফকির। একবার পিঠে, একবার গালে, এমনকি কংগ্রেস নেতার মাথায় পর্যন্ত জুতো দিয়ে মারছিলেন ওই ফকির। অথচ একবারের জন্য প্রতিবাদ করেননি কংগ্রেস নেতা। জুতার বাড়ি খেয়েও সাখলেচাকে হাসতেও দেখা যায়।

ওই বাবা একজন ফকির। স্থানীয়রা তাকে বাবা বলে ডাকেন। অনেকে তার কাছ থেকে দোয়া নিতে যান।

এ বিষয়ে সাখলেচা বলেন, তিনি একজন বিখ্যাত ফকির বাবা, সবাই তাকে বাবা বলেই ডাকেন। মানুষজন তাকে ভালোবেসে লুঙ্গি চপ্পল দান করেন। অনেকেই মনে করেন তার আধ্যাত্মিক ক্ষমতা আছে। আর এই ক্ষমতা বলে তিনি অশুভ শক্তিতে দূর করতে পারেন।

প্রসঙ্গত,  শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) মধ্যপ্রদেশের বিধানসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচন প্রায় ৭৬.২২ শতাংশ ভোট পড়ে। আগামী ৩ ডিসেম্বর ভোটের ফলাফল প্রকাশ করা হবে।