• মঙ্গলবার   ০৯ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৫ ১৪২৯

  • || ১০ মুহররম ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে বঙ্গমাতার মনোভাব প্রতিফলিত হয়েছে বঙ্গমাতার সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা স্বাধীনতার সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর সারথি ছিলেন আমার মা: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গমাতা কঠিন দিনগুলোতে ছিলেন দৃঢ় ও অবিচল: রাষ্ট্রপতি ফজিলাতুন নেছা মুজিব দৃঢ়চেতা-বলিষ্ঠ চরিত্রের অধিকারী ছিলেন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী আজ বাংলাদেশে সহায়তা অব্যাহত রাখবে চীন: ওয়াং ই চীনে ৯৯ শতাংশ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে বাংলাদেশ মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়েছি মায়ের দুধ শিশুর সর্বোত্তম খাবার: রাষ্ট্রপতি শেখ কামাল ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী: প্রধানমন্ত্রী শেখ কামাল ছিলেন ক্রীড়া ও সংস্কৃতিমনা সুকুমার মনোবৃত্তির মানুষ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের মর্যাদাকে সমুন্নত করবে যুবসমাজ ‘শেখ হাসিনার কাছ থেকে শিখুন’ ঘাতকরা আজও তৎপর, আমাকে ও আ’লীগকে সরাতে চায়: প্রধানমন্ত্রী বিচারকদের সততা-নিষ্ঠা নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে হবে: রাষ্ট্রপতি একনেকে ২ হাজার কোটি টাকার ৭ প্রকল্প অনুমোদন বাঁধ টেকসই করতে বেশি করে ঝাউগাছ লাগানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘আন্তর্জাতিক শান্তি পুরস্কার’ পেলো বাংলাদেশ বিএনপির আমলে মানুষের ভোটের অধিকার ছিল না: প্রধানমন্ত্রী

এন্টিঅক্সিডেন্ট এর উপকারিতা ও মানবদেহে এর প্রভাব

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২০ জানুয়ারি ২০১৯  

মানবদেহে অনেক প্রকার কাজ এর সমন্বয় হয়।আমাদের দেহের এসব কাজ গুলো অনেকগুলো রাসায়নিক বিক্রিয়ার মাধ্যমে হয়।এমন একটি বিক্রিয়ার নাম হলো জারন বিক্রিয়া। জারন বিক্রিয়ায় উৎপন্ন হওয়া রাসায়নিক দ্রব্য গুলো দেহের জন্য ক্ষতিকর।এসব ক্ষতিকর পদার্থ থেকে বাচার জন্য প্রাকৃতিক ভাবে এন্টিঅক্সিডেন্ট আমাদের দেহে তৈরি হয়।এছাড়া বিভিন্ন ফল, সবজি তে এটি বিদ্যমান। সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে এন্টিঅক্সিডেন্ট এর জুড়ি মেলা ভার।তাই আজ লিখছি এন্টি অক্সিডেন্ট নিয়ে।

**এন্টিঅক্সিডেন্ট ক্যানো প্রয়োজনঃ

বিভিন্ন কারণে শরীরে অ্যান্টি অক্সিডেন্টের প্রয়োজন। এন্টি অক্সিডেন্ট শরীরে খুব সামান্য, তবে অবশ্যই প্রয়োজন আছে। শরীরে যেসব কারণে অ্যান্টি অক্সিডেন্টের প্রয়োজন হয়, তা হলো—
*অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখে
*সারা দিনের ক্লান্তি দূর করে
*ভিটামিন ‘সি’ ও ‘এ’-এর অভাবজনিত ক্ষতি দূর করে
*প্রাণোচ্ছলতা বজায় রাখে
*স্মৃতিশক্তি বজায় রাখে
*ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য বিশেষ উপকারী
একটি গবেষণায় দেখা গেছে, অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ক্যানসার প্রতিরোধ করতে সক্ষম। একজন ব্যক্তি যত বেশি অ্যান্টি অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ খাবার খাবেন, তাঁর শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তত বেশি হবে।

**কোন কোন খাবারে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে
*শাকসবজি ও ফলমূলে অ্যান্টি অক্সিডেন্টের পরিমাণ বেশি। এ ছাড়া যেসব খাবারে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে, তা হচ্ছে ভিটামিন ‘ই’, ভিটামিন ‘সি’, বিটা ক্যারোটিন, কাঠবাদাম, গ্রিন টি, আনারাস, আঙুর, ভুট্টা, লাল আটা, বাদাম তেল, জলপাই, খেজুর, উদ্ভিজ তেল, ব্রোকলি প্রভৃতি।
*প্রতিদিনের খাবারে শাকসবজি অবশ্যই থাকা উচিত। ক্যালসিয়াম ও আঁশসমৃদ্ধ খাবারেও প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। সারা দিনে প্রচুর পরিমাণ পানি পান করা উচিত। কারণ, পানিতেও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আছে।

*বিভিন্ন রকমের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যেমন বিটা ক্যারোটিন চোখের জন্য খুব উপকারী, ফ্লাভানোয়েড হার্টের জন্য ভালো।

*অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ত্বকের অতি বেগুনি রশ্মির কারণে যে ক্ষতি হয়, তা প্রতিরোধ করে।

*হৃদ্রোগ, চোখের বিভিন্ন রোগ, স্মৃতিশক্তিজনিত যেকোনো সমস্যা প্রতিরোধ করে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট।

*অ্যান্টি অক্সিডেন্টের ফলে ত্বকের সৌন্দর্য বজায় থাকে, চোখের দৃষ্টিশক্তি বাড়ে। অ্যান্টি অক্সিডেন্ট চুল পড়া রোধ করে। এটি আয়রন লেভেল কার্যকরভাবে রক্ষা করে হিমোগ্লোবিনের সমতা বজায় রাখে। যাঁরা ওজন কমাতে চান, তাঁরা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট গ্রহণ করলে শরীর দুর্বল হয় না।

**অ্যান্টি অক্সিডেন্টের অভাবে কী হতে পারে?

অ্যান্টি অক্সিডেন্ট মূলত রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এর অভাবে লিভারে সমস্যা হতে পারে, ত্বকের সৌন্দর্য নষ্ট হয়, খুব কম বয়সে ত্বকে বয়সের ছাপ পড়ে যায় এবং অনেক সময় রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা একেবারেই নষ্ট হয়ে যায়।
সুতরাং সবারই প্রতিদিনের খাদ্যের তালিকায় অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে এমন খাবার রাখা উচিত।

আমাদের শরীরে কিছু পরিমান এন্টিঅক্সিডেন্ট আপনা আপনি তৈরি হয়।কিন্তু এপরিমাণ এন্টিঅক্সিডেন্ট রোগপ্রতিরোধ এবং অন্যান্য কার্যক্রম সঠিকভাবে চলার জন্য যথেষ্ট নয়।তাই এই বাড়তি এন্টিঅক্সিডেন্ট এর যোগান ঠিক রাখার জন্য দরকার সুষম এন্টিঅক্সিডেন্ট যুক্ত খাদ্যগ্রহন করা।উপরিউক্ত এন্টিঅক্সিডেন্ট যুক্ত খাদ্য, আপনার খাদ্য তালিকায় থাকলে আপনি চিন্তামুক্ত। তবে যদি খাদ্যতালিকায় না থেকে থাকে তবে অবশ্যই এগুলো আপনার খাদ্য তালিকায় যুক্ত করে নিন।