• বৃহস্পতিবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
বাংলাদেশ সবসময় ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় কর ব্যবস্থাপনা তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা ব্যবস্থা যাতে পিছিয়ে না যায় সে ব্যবস্থা নিচ্ছি প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল হস্তান্তর ব্যাংক খাতের পরিস্থিতি জানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ১০ ডিসেম্বর বিএনপির মহাসমাবেশ, পরিবহন ধর্মঘট না ডাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী প্লিজ যুদ্ধ থামান, সংঘাত থামাতে সংলাপ করুন: শেখ হাসিনা হানিফের সংগ্রামী জীবন নতুন প্রজন্মের রাজনৈতিক কর্মীদের দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত করবে মোহাম্মদ হানিফ ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতা সংঘাত-দুর্যোগে নারীদের দুর্দশা বহুগুণ বাড়ে: প্রধানমন্ত্রী সচিবদের যেসব নির্দেশনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী জিয়া-খালেদা-তারেক খুনি: প্রধানমন্ত্রী জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মজীবী মহিলা হোস্টেল হবে: প্রধানমন্ত্রী সূচকের ওঠানামায় পুঁজিবাজারে চলছে লেনদেন দুপুরে সচিবদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন প্রধানমন্ত্রী স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ডা. মিলনের আত্মত্যাগ নতুন গতি সঞ্চার করে ডা. মিলন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র: রাষ্ট্রপতি মিছিল-মিটিংয়ে আপত্তি নেই, মানুষের ওপর হামলায় সহ্য করবো না ‘যারা গ্রেনেড দিয়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছে, তাদের সঙ্গে আলোচনা?

‘হ্যান্ড ফুট অ্যান্ড মাউথ ডিজিজ’ কতটা গুরুতর? জানুন এর লক্ষণ

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২  

হ্যান্ড ফুট অ্যান্ড মাউথ রোগের প্রকোপ দেখা দিয়েছে রাজধানীতে। অতি সংক্রামক এ রোগে আক্রান্ত হচ্ছে মূলত শিশুরা। ৫ বছরের কম বয়সীদের মধ্যে আক্রান্তের হার বেশি বলে জানা গেছে। অনেকটা জলবসন্তের মতো এ রোগ মাত্রাতিরিক্ত ছোঁয়াচে। তবে আতংকিত হওয়ার মতো কোনো বিষয় নেই বলে জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা।

হ্যান্ড ফুট অ্যান্ড মাউথ ডিজিজ’ কতটা গুরুতর?

হাত-পা ও মুখের রোগ মূলত ভাইরাল সংক্রমণ, যা শিশুদের মধ্যে বেশি দেখা যায়। এই রোগের লক্ষণগুলোর মধ্যে আছে মুখে ঘা, হাত ও পায়ে ফুসকুড়ি। হাত-পা ও মুখের রোগের সংক্রমণ ঘটে কক্স্যাকি ভাইরাস দ্বারা।

যদিও হাত-পা ও মুখের রোগের কোনো নির্দিষ্ট চিকিৎসা নেই। তবে ঘন ঘন হাত ধোয়া ও এই রোগে আক্রান্তদের কাছ থেকে দুরত্ব বজায় রাখার মাধ্যমে আপনার সন্তানের সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে পারবেন।

এই রোগে লক্ষণ কী কী?

>> জ্বর
>> গলা ব্যথা
>> ক্লান্তি
>> জিহ্বা, মাড়ি বা গালের ভেতরে বেদনাদায়ক ফোসকা ও ক্ষত
>> হাতের তালুতে, তলপেটে কিংবা নিতম্বে ফুসকুড়ি। ফুসকুড়ি চুলকায় না, তবে যন্ত্রণাদায়ক ফোসকা পড়ে। শিশুর ত্বকের রঙের উপর নির্ভর করে ফুসকুড়ি লাল, সাদা, ধূসর বা ছোট ছোট দাগ হিসেবে দেখা যেতে পারে।
>> শিশুদের মধ্যে অস্থিরতা
>> ক্ষুধামন্দা

কক্স্যাকি ভাইরাসে সংক্রমিতদের মধ্যে লক্ষণ প্রকাশ পায় মোটামুটি ৩-৬ দিনের মধ্যে। শিশুদের জ্বর ও গলা ব্যথা হতে পারে। জ্বর শুরু হওয়ার এক বা দুই দিন পরে, মুখ বা গলায় ঘা হতে পারে। হাত-পায়ে বা নিতম্বে ফুসকুড়িও দেখা দিতে পারে।

মুখ ও গলার পেছনের যে ঘায়ের সৃষ্টি হয় তা ‘হারপাঞ্জিনা’ নামক একটি ভাইরাল অসুস্থতার ইঙ্গিত দেয়। হার্পানজিনার অন্যান্য বৈশিষ্ট্যগুলোর মধ্যে আছে হঠাৎ করেই উচ্চ জ্বর ও কিছু ক্ষেত্রে খিঁচুনি। বিরল ক্ষেত্রে হাত, পায়ে বা শরীরের অন্যান্য অংশে ঘা দেখা দেয়।

কখন ডাক্তার দেখাবেন?

হাত-পা ও মুখের রোগ তেমন গুরুতর কোনো রোগ নয়। জ্বরের সঙ্গে সঙ্গে মাত্র কয়েকদিন পর্যন্ত এই রোগ হালকা উপসর্গ সৃষ্টি করে।

যদি আপনার সন্তানের বয়স ৬ মাসের কম হয়, তার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হয়ে পড়ে, অথবা মুখে ঘা বা গলা ব্যথার কারণে কিছু খেতে না পারে তাহলে দ্রুত ডাক্তার দেখান।

একই সঙ্গে সন্তানের উপসর্গ ১০ দিন পরেও না সারলে উন্নতমানের চিকিৎসার প্রয়োজনে হাসপাতালে যোগাযোগ করুন।