• শুক্রবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
বাংলাদেশ সবসময় ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় কর ব্যবস্থাপনা তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা ব্যবস্থা যাতে পিছিয়ে না যায় সে ব্যবস্থা নিচ্ছি প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল হস্তান্তর ব্যাংক খাতের পরিস্থিতি জানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ১০ ডিসেম্বর বিএনপির মহাসমাবেশ, পরিবহন ধর্মঘট না ডাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী প্লিজ যুদ্ধ থামান, সংঘাত থামাতে সংলাপ করুন: শেখ হাসিনা হানিফের সংগ্রামী জীবন নতুন প্রজন্মের রাজনৈতিক কর্মীদের দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত করবে মোহাম্মদ হানিফ ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতা সংঘাত-দুর্যোগে নারীদের দুর্দশা বহুগুণ বাড়ে: প্রধানমন্ত্রী সচিবদের যেসব নির্দেশনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী জিয়া-খালেদা-তারেক খুনি: প্রধানমন্ত্রী জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মজীবী মহিলা হোস্টেল হবে: প্রধানমন্ত্রী সূচকের ওঠানামায় পুঁজিবাজারে চলছে লেনদেন দুপুরে সচিবদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন প্রধানমন্ত্রী স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ডা. মিলনের আত্মত্যাগ নতুন গতি সঞ্চার করে ডা. মিলন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র: রাষ্ট্রপতি মিছিল-মিটিংয়ে আপত্তি নেই, মানুষের ওপর হামলায় সহ্য করবো না ‘যারা গ্রেনেড দিয়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছে, তাদের সঙ্গে আলোচনা?

শিশুর শরীরে র‌্যাশ দেখা দিলে করণীয়

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২  

খুব গরম বা আবহাওয়া পরিবর্তনে অনেক সময় শিশুর শরীরে র‌্যাশ বা ফুসকুড়ি দেখা দেয়। অনেক মা এ সমস্যায় নিয়ে ফেলেন ভুল পদক্ষেপ। এতে শিশুর কষ্ট না কমে বরং বেড়ে যায়। তাই আজ জানাব এ সমস্যায় নিজের শিশুকে কীভাবে সুরক্ষিত রাখবেন তার বিস্তারিত।

চিকিৎসাশাস্ত্রে এ সমস্যাকে বলা হয় হিট র‌্যাশ। সাধারণত যখন আবহাওয়া হঠাৎ ঠান্ডা থেকে গরম বা গরম থেকে ঠান্ডা হতে শুরু করে, তখন এ সমস্যায় আক্রান্ত হয় শিশুরা। অনেক সময় বড়দের মধ্যেও এ সমস্যা দেখা যায়। হিট র‍্যাশ বা ফুসকুড়ির প্রধান কারণ হলো ত্বকের ফোঁড়গুলো হঠাৎ বন্ধ হয়ে যাওয়া।

এ সমস্যা দেখা দিলে যেসব বিষয়ে সতর্ক থাকা প্রয়োজন–

১. হিট র‌্যাশ হলে অবশ্যই পরনে সুতির কাপড় প্রাধান্য দিতে হবে। পোশাকে যেন বাতাস ঢুকতে পারে, এর জন্য ঢিলেঢালা পোশাক পরার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

আরও পড়ুন: রঙিন দেয়ালে সেজে উঠুক পূজার আমেজ

২. শিশুকে নিয়মিত গোসল আর পরিষ্কার রাখতে হবে। অকারণে শিশুকে কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখা যাবে না।

৩. শিশুর ঘর যেন অতিরিক্ত ঠান্ডা বা গরম না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

৪. গোসলে প্রতিদিন সাবান ব্যবহার করা যাবে না। কারণ, সাবানের ব্যবহার শিশুর ত্বক রুক্ষ আর খসখসে করে তোলে।

৫. হিট র‌্যাশে ত্বক তীব্র গরম সহ্য করতে পারে না। তাই প্রখর রোদ থেকে শিশুকে দূরে রাখতে হবে।

৬. অনেকেই এ সময় শিশুর ত্বকে বেশি বেশি পাউডার আর লোশনের ব্যবহার শুরু করে দেন, যা মোটেও উচিত নয়।

৭. শিশুকে এ সময়  ডায়াপার পরিয়ে রাখা একদমই উচিত নয়। কারণ, ডায়াপার পরার কারণে এ সময় শিশুর ত্বকে হিট র‌্যাশ আরও বেড়ে যাবে।

৮. গরমে শিশু ঘেমে গেলে তা যেন শিশুর ত্বকে না লেগে থাকে, সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। এর জন্য যখনই শিশু ঘেমে যাবে সঙ্গে সঙ্গে শিশুর ত্বক থেকে একটি ভেজা তোয়ালে দিয়ে আলতোভাবে ঘাম মুছে নিতে হবে।

৯. পরিষ্কার ত্বকে শসার পেস্ট বরফ করে শরীরে ঘষে দিতে পারেন। ১০ মিনিট শরীরে রস রাখার পর স্বাভাবিক পানি দিয়ে তা ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এর ব্যবহারে হিট র‌্যাশ অনেকটাই সহনীয় পর্যায়ে চলে আসবে। কারণ, শসার ট্যানিন ও ফ্ল্যাভোনয়েড অ্যালার্জিবিরোধী। তাই হিট র‌্যাশ দূর করতে এটি ভালো কাজে আসে।

১০. হিট র‌্যাশে ত্বকের পিএইচ ব্যালান্স স্বাভাবিক রাখতে হয়। তাই মা ও শিশু উভয়কেই এ সময় বেশি বেশি পানি ও তরলজাতীয় খাবার খেতে হবে।