• বৃহস্পতিবার   ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২০ ১৪২৯

  • || ১০ রজব ১৪৪৪

আলোকিত ভোলা
ব্রেকিং:
জনগণের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে আসিনি: প্রধানমন্ত্রী সবাইকে হিসাব করে চলার অনুরোধ প্রধানমন্ত্রীর উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে কৃষি উন্নয়নের বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী ক্রীড়া শিক্ষায় বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী জনস্বাস্থ্য নিশ্চিতে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্যের বিকল্প নেই জনগণকে বিশ্বাস করি, তারা যদি চায় আমরা থাকবো: প্রধানমন্ত্রী ২০২২-২৩ অর্থবছরে ১০ বিলিয়ন ডলারের বেশি রেমিট্যান্স এসেছে ভাষা-সাহিত্য চর্চাও ডিজিটাল করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ মানহীন শিক্ষায় উচ্চশিক্ষিত বেকার বাড়ছে: রাষ্ট্রপতি গণতান্ত্রিক ধারাকে বাধাগ্রস্ত করতে চায় এক শ্রেণির বুদ্ধিজীবী মুসলিম উম্মাহকে ফিলিস্তিনের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান দেশের ব্যাপক উন্নয়ন বিবেচনায় নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত থাকলেই মানুষের উন্নতি হয়: প্রধানমন্ত্রী আমি জোর করে দেশে ফিরেছিলাম, আ.লীগ পালায় না: শেখ হাসিনা আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ১-৭ মার্চ মোবাইলে কল করলেই শোনা যাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিন: প্রধানমন্ত্রী সন্ত্রাস রুখে দিতে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে যাচ্ছে পুলিশ

কাতারের পোশাক নিয়ে ব্যঙ্গ, অবশেষে ক্ষমা চাইলেন ধারাভাষ্যকার

আলোকিত ভোলা

প্রকাশিত: ১ ডিসেম্বর ২০২২  

জার্মানি ও স্পেনের খেলার ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় কাতারের পুরুষদের ঐতিহ্যবাহী পোশাক নিয়ে বেফাস মন্তব্যের ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন জার্মানির সাবেক ফুটবলার জান্দ্রো ভাগনার।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) জার্মানির সরকারি প্রচার মাধ্যম জেডডিএফ চ্যানেলে বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ ঐ ম্যাচের ধারাভাষ্য দেওয়ার এক পর্যায়ে ভাগনার বলেন, তিনি ভেবেছিলেন আল বায়াত স্টেডিয়ামের এক প্রান্ত জার্মান দর্শকে পরিপূর্ণ। তিনি বলেন, ‘কিন্তু পরেই আমি অনুধাবন করলাম সেটা কাতারি বাথরোব।’ কাতারের ঐতিহ্যবাহী পোশাক ‘থাউব’ নিয়ে এমন মন্তব্য করেন বায়ার্ন মিউনিখের সাবেক এই খেলোয়াড়।

থাউব হলো লম্বা হাতাসহ সাদা পূর্ণ দৈর্ঘ্যের পোশাক, যা কাতারসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে পড়েন পুরুষরা। কাতারিদের কাছে জাতীয় মর্যাদার প্রতীক এটি। প্রত্যেক আরব রাষ্ট্রের নিজস্ব থাউবের প্রচলন রয়েছে।

পোশাক নিয়ে ভাগনারের এমন মন্তব্যের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা শুরু হয়। অনেকে তার মন্তব্যেকে ‘বর্ণবাদী’ বলে জেডডিএফ টিভি চ্যানেলের টুইটারে সমালোচনা করেন।

এমন পরিস্থিতিতে সোমবার বিবৃতি দিয়ে ভাগনার তার মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। টুইটারে তিনি বলেন, তার মন্তব্যের কারণে কেউ আঘাত পেয়ে থাকতে পারেন, তবে সেটা ইচ্ছাকৃত ছিল না।

জার্মান প্রচার মাধ্যমটিও তার এই মন্তব্যেকে ‘দুঃখজনক’ বলে অভিহিত করে। সেদিন হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর জার্মান ও স্পেনের খেলা ১-১ গোলে ড্র হয়।